জলে ব্যবহার করতে পারবেন, Samsung আনতে পারে নতুন TWS ইয়ারবাড

স্যামসাংয়ের সম্ভাব্য TWS ইয়ারবাড নিয়ে কাজ করছে যা জলের নীচে ব্যবহারের উপযোগী

samsung-files-new-tws-earbuds-patent-that-can-use-in-water.jpg

কিছু পণ্য উৎপাদন ও বাজারে লঞ্চের আগে প্রস্তুতকারক সংস্থাকে আনুষ্ঠানিকভাবে তার পেটেন্ট পেশ করতে হয়। সম্প্রতি স্যামসাংয়ের (Samsung) এরকম একটি পেটেন্ট দাখিলের পর প্রযুক্তি-মহলে জল্পনা তৈরী হয়েছে। কারণ স্যামসাংয়ের এই পেটেন্ট একটি সম্ভাব্য ট্রুলি ওয়্যারলেস ইয়ারবাডের (TWS) ব্যাপারে ইঙ্গিত প্রদান করছে, যা একাধিক আকর্ষণীয় ফিচারের সঙ্গে আসতে পারে বলে আমাদের অনুমান। কয়েকদিন আগে লেটস’গো ভিজিটাল (Let’sGo Digital) সংস্থা তাদের প্রতিবেদনে আলোচ্য ইয়ারবাড সম্পর্কে আলোকপাত করেছে। তাদের মতে স্যামসাংয়ের সম্ভাব্য প্রোডাক্টটি অপসারণযোগ্য নেকব্যান্ড সহ আসবে যা জলের নীচে ব্যবহারের উপযোগী!

Samsung আনছে জলে ব্যবহারযোগ্য TWS ইয়ারবাড?

প্রকাশিত সংবাদ অনুযায়ী চলতি বছরের ৩রা মার্চ ওয়ার্ল্ড ইন্টেলেকচুয়াল প্রপার্টি অর্গানাইজেশন বা ডব্লিউআইপিও (WIPO)-তে স্যামসাং আলোচ্য ইয়ারবাডের পেটেন্ট দাখিল করে। প্রতিবেদকের দাবী থেকে আমরা জানতে পারি, পেটেন্টটি একটি ওয়্যারেবল ডিভাইস। এটি আমাদের সম্পূর্ণ নতুন একটি ট্রুলি ওয়্যারলেস ইয়ারবাডের ডিজাইন সম্পর্কে ধারণা দেয় যা উৎপাদনের কাজে স্যামসাং তাদের মনোনিবেশ স্থাপন করেছে।

প্রতিবেদন থেকে আরও জানা গেছে, স্যামসাংয়ের সম্ভাব্য ইয়ারবাড একটি অপসারণযোগ্য নেকব্যান্ড ও সম্পূর্ণ ওয়াটারপ্রুফ ডিজাইন সহ আসবে। বর্তমানে সংস্থার ইয়ারবাডগুলি আইপি৬৮ (IP68) রেটিংয়ের সাথে উপলব্ধ, যা জল এবং ধূলিকণা রোধ করে। যদিও তথাকথিত জলরোধী ইয়ারবাডগুলির ক্ষেত্রেও ৩০ মিনিটের বেশী জলের নীচে থাকার বিধিনিষেধ থাকে। তাছাড়া গভীর জলে ব্যবহারের ক্ষেত্রেও এগুলি নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। তবে স্যামসাংয়ের যে নতুন পেটেন্টের হদিশ আমরা পেয়েছি, তা অপেক্ষাকৃত বেশী জলরোধী ক্ষমতার সঙ্গে আসবে বলে শোনা গিয়েছে।

প্রকাশ্যে আসা পেটেন্টের যে ডিজাইন লেটস’গো ডিজিটাল তুলে ধরেছে তা থেকে স্যামসাংয়ের সম্ভাব্য ইয়ারবাডের সঙ্গে গ্যালাক্সি বাডসের (Galaxy Buds) মিল পাওয়া গেছে। অপসারনযোগ্য নেকব্যান্ডের অন্তর্ভুক্তির ফলে এই আসন্ন ডিভাইস নেকব্যান্ড স্টাইল ওয়্যারলেস ইয়ারফোন হিসেবে ব্যবহার করা যাবে। এ থেকে মনে হয়, জলের নীচে ইয়ারবাড যাতে না হারায় সেজন্যেই সংস্থা অপসারণযোগ্য নেকব্যান্ড প্রদান করছে।

ফিচারের দিক থেকে আমাদের আলোচ্য ইয়ারবাড একাধিক মাইক্রোফোন ও সেন্সর সহ আসতে পারে। তাছাড়া এতে বিভিন্ন স্বাস্থ্য সংক্রান্ত সুবিধা যুক্ত হবে। একইসাথে এতে অসাধারণ টাচ কন্ট্রোলের দেখা মিলবে। তবে জলের তলায় এই ফিচার কতটা কার্যকর হবে সে নিয়ে সন্দেহ থেকেই যাচ্ছে।

পেটেন্ট দাখিল থেকে জল্পনা বাড়লেও স্যামসাংয়ের আলোচ্য পণ্য সম্পর্কে কোনো নিশ্চিত ধারণা পোষণ ভুল হতে পারে। ভবিষ্যতে এই ধরণের ডিভাইস সত্যি আসবে কি না তা সময়ই বলবে।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

One of the newest members of the Techgup Family. Soumo grew his liking for gadgets almost a decade back while searching for his first smartphone, and started writing about tech recently in 2020