আচমকাই ব্লাস্ট করলো স্যামসাং স্মার্টফোন, চরম অস্বস্তিতে কোম্পানি

samsung-galaxy-a20e-catches-fire-user-shares-video

প্রায় ৪ বছর আগে স্যামসাং তাদের Note 7 ফোনের প্রোডাকশন বন্ধ করেছিল, কারণ ফোনের কিছু সমস্যার কারণে কয়েকটি ফোন ব্লাস্ট হয়েছিল। আবারও একটি স্যামসাং ফোন ব্লাস্ট করার ঘটনা সামনে এল। ফোনটির নাম Samsung Galaxy A20e। ঘটনাটি ঘটেছে ক্যালিফোর্নিয়ায়। এই ঘটনায় চরম অস্বস্তিতে দক্ষিণ কোরিয়ান কোম্পানিটি।

DailyMail এর রিপোর্ট অনুযায়ী, Kenji Yanase নামে এক ক্যালিফোর্নিয়াবাসী একটি ভিডিও শেয়ার করেছে, যেখানে তার স্যামসাং ফোন হঠাৎ জ্বলে ওঠে। কেঞ্জি তার ফোনটি ব্লাস্ট করার পর ভিডিও রেকর্ড করে এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করে দেয়। ফোনটির ব্লাস্ট করার ধরণ ৪ বছর আগে Note 7 ব্লাস্ট করার করার মতোই। এরপরেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে যে, স্যামসাং গ্যালাক্সি এ২০ই ফোনে নোট ৭ এর মত সমস্যা নেই তো। যদিও ব্লাস্ট হওয়া কারণ এখনও জানা যায়নি।

কেঞ্জি জানিয়েছে, আমার ফোনটির স্ক্রিন ডেড হয়ে গিয়েছিল। সেইজন্য ফোনের পিছনের প্যানেল খুলে দেখতে শুরু করেছিলাম। হঠাৎ ফোনের ব্যাটারি গরম অনুভব করতে শুরু করে। এরপরে ফোনে আগুন ধরে যায়। এদিকে স্যামসাং এই ঘটনার পর তাদের বিবৃতি দিয়েছে এবং ব্যবহারকারির সাথে যোগাযোগ করছে। তারা জানিয়েছে গ্যালাক্সি সিরিজের যাবতীয় ফোন অত্যন্ত উত্তম মানের ফোন। গ্রাহকরা এই সিরিজ কে যথেষ্ট ভালোবাসা দিয়েছে। কিভাবে Galaxy A20e ব্লাস্ট করলো তা পরীক্ষা করলে বোঝা যাবে।

কেন ব্লাস্ট করে ফোন ?

উৎপাদনগত ত্রুটি :
উৎপাদনগত ত্রুটি স্মার্টফোন ব্লাস্ট করার প্রধান কারণ। স্মার্টফোনের শক্তি যোগায় লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারি। ফলে এটিকে সঠিকভাবে পরীক্ষা করে তবেই ফোনে ব্যবহার করা উচিত। অ্যাসেমব্লি লাইনে কোনো ভুল উপাদান দেওয়া হয়ে থাকলে ব্যাটারিকে ত্রুটিযুক্ত করে তোলে। যার ফলে ফোন ব্লাস্ট করতে পারে।

ব্যাটারিতে ফিজিক্যাল ড্যামেজ :
ব্যাটারির বর্তমান অবস্থা ফোন ব্লাস্টের কারণ হতে পারে। আমাদের হাত থেকে যখন ফোন পড়ে যায়, তখন ব্যাটারির অভ্যন্তরীণ যান্ত্রিক বা রাসায়নিক কাঠামোর পরিবর্তন হতে পারে। যার ফলে শর্ট সার্কিট, ওভারহিটিং প্রভৃতি সমস্যা দেখা দেয়। তাই যখন আপনার মনে হবে ব্যাটারি খারাপ হয়ে যাচ্ছে বা গেছে সেইমাত্র বদলে ফেলুন।

বাজার চলতি চার্জার :
ফোনে আগুন লাগার অন্যতম আরেকটি কারণ হলো বাজার চলতি চার্জার ব্যবহার করা। যেহেতু থার্ড পার্ট চার্জারগুলো আপনার ফোনের স্পেসিফিকেশন অনুযায়ী আসেনা, তাই এর দ্বারা চার্জ দিলে ফোনে সঠিকমাত্রায় পাওয়ার আসেনা। যার কারণে ফোন গরম হয়ে ব্লাস্ট হতে পারে।

সারারাত চার্জে বসিয়ে রাখা :
স্মার্টফোনকে কখনও সারারাত চার্জে লাগিয়ে রাখবেন না। যদিও এটি আমরা সবাই প্রায় করি। এটি না তো শুধু ফোনকে ওভারহিট করে এছাড়াও ব্যাটারিতেও প্রভাব ফেলে। পরবর্তীতে এই কারণেই ফোন ব্লাস্ট হতে পারে।

প্রসেসরের উপর চাপ পড়লে :
ফোন গরম হওয়ার পিছনে প্রসেসরের হাত থাকে। হাই গ্রাফিক্সের কোনো গেম খেলার ফলে প্রসেসরের উপর চাপ পড়ে। যার কারণে ফোন গরম হয়ে আগুন ধরে যেতে পারে। সেকারণে বাজেট ফোনে কখনোই হাই গ্রাফিক্সের গেম খেলা উচিত নয়।

ফোনকে রৌদ্রে রাখা :
আপনি যদি দীর্ঘক্ষণ ফোনকে রোদে রাখেন তবে আপনার ফোন গরম হতে পারে। একটি পরীক্ষায় দেখা গেছে ফোনের স্ক্রিনে দীর্ঘক্ষণ সূর্যের আলো পড়লে ফোন গরম হয়। এরজন্য আপনি বাইরে বার হলে ফোনটিকে ব্যবহার না করলে ব্যাগের মধ্যে রাখুন।