লঞ্চের আগেই ফাঁস Samsung Galaxy Buds Pro এর রিটেল বক্সের ছবি ও ফিচার

samsung-galaxy-buds-pro-retail-box-image-leaked-support-page-goes-live

আর মাত্র কয়েকদিনের অপেক্ষা, তারপরেই অর্থাৎ ১৪ই জানুয়ারিতে লঞ্চ হচ্ছে স্যামসাংয়ের বহুচর্চিত ফ্ল্যাগশিপ সিরিজ Samsung Galaxy S21। স্মার্টফোন ছাড়াও Samsung ওইদিন Galaxy Buds Pro নামক ট্রুলি ওয়্যারলেস ইয়ারবাডের ঘোষনা করতে পারে। পূর্বে একাধিকবার এই ইয়ারবাডের তথ্য বলুন বা ছবি সোশ্যাল মিডিয়াতে ফাঁস হয়েছে। তবে লঞ্চের আগেই এবার গ্যালাক্সি বাডস প্রো-র রিটেল বক্স কনটেন্টের সাথে লাইভ ছবি প্রকাশ্যে এল। শুধু তাই নয় স্যামসাংয়ের কানাডিয়ান ওয়েবসাইটের সাপোর্ট পেজে একে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। যেখানে Samsung Galaxy Buds Pro এর মডেল নম্বর SM-R190। এই একই মডেল নম্বরকে কোম্পানির ভারত, কোরিয়া, চীনের ওয়েবসাইটেও দেখা গিয়েছিল।

এদিকে সেবাস্টিয়ান নামে এক ফেসবুক ব্যবহারকারী রিটেল বক্সের সাথে Samsung Galaxy Buds Pro-র ছবি সরাসরি আপলোড করেছিলেন (পরবর্তীতে ডিলিট করা হয়)। ইয়ারবাডটিকে তার পূবসূরি মডেলের মতো গোলাকৃতি ডিজাইন পরিবর্তে ওভাল শেপ বা ডিম্বাকৃতি ডিজাইন পেয়েছে। এর চার্জিং কেস Galaxy Buds Live-র মতো অনেকটা দেখতে। রিটেল বক্সে প্রিন্টেড ফিচার লিস্ট থেকে জানা গেছে যে, এই ইয়ারবাডে ডুয়াল ড্রাইভার, অ্যাক্টিভ নয়েজ ক্যানসেলেশন, ৫-১৮ ঘন্টা প্লেটাইম (চার্জিং কেসের দৌলতে), এবং IP67 রেটিং রয়েছে। চার্জ দেওয়ার জন্য এতে থাকবে ইউএসবি টাইপ-সি পোর্ট।

Samsung Galaxy Buds Pro এর রিটেল বক্সের ছবি

অ্যান্ড্রয়েড ও অ্যাপলের আইওএস-এর সাথে স্যামসাং গ্যালাক্সি বাডস প্রো কানেক্ট করা যাবে। সেক্ষেত্রে অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনের র‌্যাম হতে হবে ১.৫ জিবি বা তার বেশী এবং ফোনটিতে অ্যান্ড্রয়েড ৭.০ বা তার ওপরে সফটওয়্যার ভার্সন থাকতে হবে। আইওএস-এর ক্ষেত্রে এরকম কোনো প্রয়োজনীয়তার কথা উল্লেখ করা হয় নি। স্যামসাং ব্রান্ডেড নয় এমন ফোনের সাথে গ্যালাক্সি বাডস প্রো ব্যবহার করলে এর সব ফিচার সাপোর্ট নাও করতে পারে। ইয়ারবাড ওয়াটারপ্রুফ হলেও এর চার্জিং কেস ওয়াটার রেজিস্ট্যান্ট নয়।

রিপোর্ট অনুযায়ী, Samsung Galaxy Buds Pro-তে থ্রিডি স্প্যাটিয়াল অডিও ফাংশন থাকবে। তবে এটি তখনই কাজ করবে যখন কানেক্ট করা স্যামসাং ফোনটিতে অ্যান্ড্রয়েড ১১ বেসড ওয়ানইউআই ৩.০ থাকবে। স্যামসাং গ্যালাক্সি বাডস প্রো ইয়ারবাডের দাম হতে পারে ২৯৯ ইউরো, যা ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ২০,৬০০ টাকা।