Samsung Galaxy M30 রিভিউ : এই বাজেটে ‘ভ্যালু ফর মানি’ স্মার্টফোন

Galaxy M10 এবং Galaxy M20 এরপরে দক্ষিণ কোরিয়ান স্মার্টফোন ব্র্যান্ড স্যামসাং লঞ্চ করল তাদের M সিরিজের পরবর্তী ফোন Galaxy M30। কিছুদিন আগে লঞ্চ হওয়া Galaxy M10 ও Galaxy M20 এই ফোন দুটিও মোবাইল ব্যবহারকারীদের মধ্যে বেশ জনপ্রিয়। আজ আমরা এই সিরিজের নতুন সংস্করণ M30 এর রিভিউ আপনাদের সামনে তুলে ধরব।

ডিজাইন :

এই স্মার্টফোনটির ডিজাইন অত্যন্ত আকর্ষণীয় যা আপনার পছন্দ হতে বাধ্য। ফোনটির ব্যাক প্যানেল রয়েছে ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ এবং ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার। সামনের দিকে রয়েছে ইনফিনিটি ডিসপ্লে ওয়াটার ড্রপ নচের সাথে। মোবাইলটির ওপরের এবং দুইপাশের বেজেল খুবই পাতলা কিন্তু নিচের দিকের বেজেল একটু মোটা করা হয়েছে। ফোনটি ডানদিকের প্যানেলে ভলিউম এবং পাওয়ার বাটন রয়েছে। এবং বাঁদিকের প্যানেলে রয়েছে সিম এবং মেমোরি কার্ড স্লট। নিচের দিকে রয়েছে স্পিকার, ইউএসবি টাইপ-সি পোর্ট তথা চার্জিং স্লট, হেডফোন জ্যাক এবং মাউথ পিস। ফোনের ব্যাক প্যানেলটি নন রিমুভেবল। নতুন এই স্মার্টফোনটিতে ডুয়াল ৪জি সিম পোর্ট দেওয়া হয়েছে। ব্যাক প্যানেল রয়েছে গ্রেডিয়েন্ট ফিনিশ এবং ফোনটির গ্রিপ যথেষ্ট ভালো। ফোনটি ওজনে একটু ভারী লাগতে পারে কারণ এর ভেতরে রয়েছে একটি নন-রিমুভেবল ৫০০০ এমএএইচ এর ব্যাটারি।

ডিসপ্লে :

নতুন এই স্মার্টফোনটিতে দেওয়া রয়েছে ৬.৪ ইঞ্চির ইনফিনিটি ইউ ডিসপ্লে। এই ডিসপ্লেটিতে 4K ভিডিও দেখতে আপনার কোন অসুবিধা হবে না। এছাড়াও স্ক্রিন কালার কনট্রাস্ট এবং ঔজ্জ্বল্য খুবই ভালো। তবে এই ডিসপ্লেটিতে আপনার চোখে কোন রকম চাপ পড়বে না অর্থাৎ ভিডিও দেখার সময় আপনার কোন অসুবিধা হবে না। বেজেল খুব কম হওয়ার কারণে আপনি ফুল ভিউ ডিসপ্লের আনন্দ নিতে পারবেন। এছাড়াও এই ফোনটি ফেস আনলক সাপোর্ট করে। ডিসপ্লেটিতে ওয়াটার ড্রপ নচ দেওয়া রয়েছে যার মধ্যেই সেলফি ক্যামেরা এবং ইয়ার পিস ফিট করা রয়েছে।

পারফরম্যান্স :

ফোনটিতে রয়েছে স্যামসাং এর নিজস্ব এক্সিনোস ৭৯০৪ অক্টা কোর প্রসেসর। এই প্রসেসরটি স্পিড ১.৮ গিগাহার্ৎজ এবং ১.৬ গিগাহার্ৎজ। ফোনটিতে রয়েছে মালি জি৭১ জিপিইউ যার মাধ্যমে আপনি পাবজির মতো হাই রেসোলিউশন গেম খুব অনায়াসেই খেলতে পারবেন। এছাড়াও এই প্রসেসরটির জন্য ডিভাইসটি হ্যাং অথবা ল্যাগ হবে না। এই ফোনটি আপনারা পাবেন দুটি র‌্যাম/স্টোরেজ বিকল্পে ৪জিবি র‌্যাম/৬৪ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ এবং ৬জিবি র‌্যাম/১২৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। এই ফোনটির স্টোরেজ আপনারা ৫১২ জিবি অবধি বাড়াতে মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহার করে। ফোনটি সার ভ্যালু স্বাভাবিকের থেকে যথেষ্ট কম অর্থাৎ আপনার দেহে রেডিয়েশনের পরিমাণও খুবই কম হবে। এছাড়াও ফোনটি চলে অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ ওরিও এবং স্যামসাং এক্সপেরিয়েন্স ইউজার ইন্টারফেস ভার্শন ৯.৫ এর ওপরে। এছাড়াও ফোনটিতে দেওয়া রয়েছে ৫০০০ এমএএইচ এর ব্যাটারি যা আপনার স্মার্টফোনকে এক থেকে দেড় দিনের এনার্জি দিতে সক্ষম। এই স্মার্টফোনটি ১৫ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করে অর্থাৎ আপনি খুব তাড়াতাড়ি আপনার ফোনকে চার্জ করতে পারবেন।

ক্যামেরা :

এছাড়া ফোনটিতে থাকছে একটি ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ। যার প্রধান ক্যামেরাটি ১৩ মেগাপিক্সেলের (f/১.৯), দ্বিতীয়টি ৫ মেগাপিক্সেলের(f/২.২) ডেপ্থ সেন্সিং এর জন্য এবং তৃতীয়টি ৫ মেগাপিক্সেলের (f/২.২) । তৃতীয় লেন্সটি একটি ওয়াইড অ্যাঙ্গেল লেন্স। এছাড়াও সামনে একটি ১৬ মেগাপিক্সেলের (f/২.০) সেলফি ক্যামেরা থাকবে। ফোনটির রিয়ার ক্যামেরার মাধ্যমে আপনারা অতি উন্নত লো লাইট ফটোগ্রাফি করতে পারবেন। এছাড়াও ফ্রন্ট ক্যামেরায় আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স ফিচার এবং এ আর স্টিকার দেওয়া রয়েছে। এই ক্যামেরা টির মাধ্যমে আপনি ফুল এইচডি কোয়ালিটির ফটো এবং ভিডিও তুলতে পারবেন। তাই যদি আপনি মিডরেঞ্জের এর মধ্যে ভালো ক্যামেরা স্মার্টফোন চান তাহলে এই ফোনটিকে অবশ্যই তালিকাভুক্ত করতে পারেন।

দাম :

Samsung Galaxy M30 এর বেস ভেরিয়েন্টটির দাম রাখা হয়েছে ১৪,৯৯০ টাকা। এ নতুন ফোনটি সবদিক থেকেই যথেষ্ট ভালো যার ফলে এটি শাওমি, ভিভো, ওপ্পো জাতীয় অন্যান্য চীনা স্মার্টফোন ব্র্যান্ড গুলির বিভিন্ন মিডরেঞ্জার ফোনের সঙ্গে টক্কর দিতে সক্ষম।

Last Updated on