Samsung Galaxy M51 নাকি OnePlus Nord, কোনটি কেনা লাভজনক জানুন

Samsung Galaxy M51 vs One Plus Nord price and specification comparison

গতকালই ভারতে লঞ্চ হয়েছে Samsung এর নতুন ফোন Galaxy M51। এই ফোনে ৭,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও স্যামসাং গ্যালাক্সি এম ৫১ ফোনে আছে ৬৪ মেগাপিক্সেল কোয়াড রিয়ার ক্যামেরা। ভারতে এই ফোনটি ওয়ানপ্লাস এর সস্তা 5G ফোন, OnePlus Nord এর সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে। আজ আমরা এই দুই ফোনের স্পেসিফিকেশন ও দামের পার্থক্য আপনাদেরকে জানাবো। যারপরে আপনি Samsung Galaxy M51 নাকি OnePlus Nord কেনা লাভজনক হবে তা বুঝতে পারবেন।

Samsung Galaxy M51 vs OnePlus Nord দাম

ভারতে স্যামসাং গ্যালাক্সি এম ৫১ দুটি স্টোরেজের সাথে লঞ্চ হয়েছে। এর ৬ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজের দাম ২৪,৯৯৯ টাকা। আবার ৮ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজের দাম ২৬,৯৯৯ টাকা। ফোনটি ইলেকট্রিক ব্লু ও সিলেস্টিয়াল ব্ল্যাক কালারে পাওয়া যাবে। 

ওয়ানপ্লাস নোর্ড তিনটি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের সাথে ভারতে এসেছে। ফোনটির দাম শুরু হয়েছে ২৪,৯৯৯ টাকা থেকে (অক্টোবরে উপলব্ধ হবে)। এই দাম ফোনটির ৬ জিবি র‌্যাম ও ৬৪ জিবি স্টোরেজের। আবার এর ৮ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজের দাম ২৭,৯৯৯ টাকা এবং ১২ জিবি র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজের দাম ২৯,৯৯৯। ফোনটি এসেছে ব্লু মার্বেল, গ্রে অনিক্স কালারে।

Samsung Galaxy M51 vs OnePlus Nord ডিসপ্লে

স্যামসাং গ্যালাক্সি এম ৫১ ফোনে পাবেন ৬.৬৭ ইঞ্চি ফুল এইচডি প্লাস সুপার এমোলেড প্লাস প্যানেল। এর রিফ্রেশ রেট ৬০ হার্টজ এবং আসপেক্ট রেশিও ২০:৯। এতে ইনফিনিটি O ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে। ডিসপ্লের প্রটেকশনের জন্য এখানে আছে কর্নিং গরিলা গ্লাস ৩। ফোনের ডিসপ্লের উপরদিকে মাঝখানে পাঞ্চ হোল কাট আউট আছে।

ওয়ানপ্লাসের এই ফোনে ৬.৪৪ ইঞ্চি ফ্লুইড অ্যামোলেড স্ক্রিন দেওয়া হয়েছে। যার রিফ্রেশ রেট ৯০ হার্টজ এবং আসপেক্ট রেশিও ২০:৯। ফুল এইচডি প্লাস এই ডিসপ্লে অফার করবে ৪০৮ পিপিআই সাপোর্ট। স্ক্রিনের সুরক্ষার জন্য এতে কর্নিং গরিলা গ্লাস ৫ প্রটেকশন রয়েছে। এর ডিসপ্লে ডিজাইন পাঞ্চ হোল।

Samsung Galaxy M51 vs OnePlus Nord প্রসেসর ও স্টোরেজ

গ্যালাক্সি এম ৫১ কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৭৩০জি অক্টা কোর প্রসেসর সহ এসেছে। এতে পাবেন ৮ জিবি পর্যন্ত র‌্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজ। মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে এর স্টোরেজ বাড়ানো যাবে।

ওয়ানপ্লাস নোর্ড ফোনটিতে স্ন্যাপড্রাগন ৭৬৫জি প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। ফোনটি ৫জি সাপোর্টের সাথে এসেছে। গ্রাফিক্সের জন্য এতে আছে এড্রেনো ৬২০ জিপিইউ।

Samsung Galaxy M51 vs OnePlus Nord ক্যামেরা

স্যামসাং গ্যালাক্সি এম৫১ ফোনের পিছনে আছে কোয়াড রিয়ার ক্যামেরা। যেখানে ৬৪ মেগাপিক্সেল সনি আইএমএক্স৬৮২ প্রাইমারি সেন্সর (এফ/১.৮ অ্যাপারচার) + ১২ মেগাপিক্সেল আল্ট্রা-ওয়াইড-অ্যাঙ্গেল ক্যামেরা (এফ/২.২ অ্যাপারচার) + ৫ মেগাপিক্সেল ডেপ্থ সেন্সর (এফ/২.৪ অ্যাপারচার) + ৫ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো ক্যামেরা (এফ/২.৪ অ্যাপারচার) দেওয়া হয়েছে। আবার Galaxy M51 ফোনের সামনে আছে এফ/২.২ অ্যাপারচার সহ ৩২ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা। ক্যামেরা ফিচারের কথা বললে,সিঙ্গল টেক, নাইট হাইপারলেপস ফিচার উপলব্ধ। বিশেষত সেলফি ক্যামেরার জন্য আছে ফ্রন্ট স্লো মোশন ভিডিও, ৪কে ভিডিও, এআর ডুডল এবং এআর ইমোজি ফিচার আছে।

ক্যামেরার কথা বললে ওয়ানপ্লাস নোর্ড ফোনে কোয়াড রিয়ার ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে। যার প্রাইমারি ক্যামেরা এফ/ ১.৭৫ অ্যাপারচার সহ ৪৮ মেগাপিক্সেল সনি আইএমএক্স ৫৮৬ সেন্সর। এতে OIS/EIS সাপোর্ট করবে। অন্য তিনটি ক্যামেরা হল ৮ মেগাপিক্সেল আলট্রা ওয়াইড লেন্স (ফিল্ড অফ ভিউ ১১৯ ডিগ্রী), ৫ মেগাপিক্সেল ডেপ্থ সেন্সর এবং ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো লেন্স। রিয়ার ক্যামেরার সাহায্যে 4K ভিডিও রেকর্ড করা যাবে। ফোনের সামনে পাবেন এফ/২.৪৫ অ্যাপারচার সহ ৩২ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি ক্যামেরা ও ৮ মেগাপিক্সেল ওয়াইড এঙ্গেল লেন্স (ফিল্ড অফ ভিউ ১০৫ ডিগ্রী)। 

Samsung Galaxy M51 vs OnePlus Nord ব্যাটারি, সিকিউরিটি ও অপারেটিং সিস্টেম

স্যামসাং গ্যালাক্সি এম ৫১ ফোনে দেওয়া হয়েছে ৭,০০০ এমএএইচ এর বড় ব্যাটারি। এরসাথে ২৫ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করবে। এরসাথে রিভার্স চার্জিং সাপোর্ট ও দেওয়া হয়েছে। চার্জিংয়ের জন্য এতে আছে ইউএসবি টাইপ সি পোর্ট। সিকিউরিটির জন্য এতে সাইড মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর ও ফেস আনলক দেওয়া হয়েছে। স্মার্টফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ১০ ভিত্তিক স্যামসাংয়ের নিজস্ব OneUI-এ চলবে। 

ওয়ানপ্লাস নোর্ড ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ১০ বেসড অক্সিজেন ওএস ১০.৫ এর সাথে এসেছে। এতে ৪,১১৫ এমএএইচ ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে, যার সাথে ৩০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট রয়েছে। এতে Warp Charge ইউএসবি টাইপ সি পোর্ট আছে।  সিকিউরিটির জন্য এতে ইন ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর দেওয়া হয়েছে।

Samsung Galaxy M51 vs OnePlus Nord আমাদের মতামত

প্রথমে যদি দামের কথা বলি তাহলে স্যামসাং গ্যালাক্সি এম৫১ কিছুটা হলেও ওয়ানপ্লাস নোর্ড এর থেকে সস্তা। তবে ডিসপ্লে বিভাগে ওয়ানপ্লাস নোর্ড সামান্য ছোট ডিসপ্লে অফার করলেও এর রিফ্রেশ রেট ও প্রটেকশন অনেক ভালো। এছাড়াও প্রসেসরের ক্ষেত্রেও স্যামসাং গ্যালাক্সি এম৫১ পিছিয়ে। ওয়ানপ্লাস নোর্ড একটি ৫জি ফোন, সেখানে গ্যালাক্সি এম ৫১ ৪জি কানেক্টিভিটির সাথে এসেছে।

এদিকে ক্যামেরা বিভাগে গ্যালাক্সি এম৫১ অনেকটাই এগিয়ে। যদিও ওয়ানপ্লাস নোর্ড ফোনে দুটি সেলফি ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে। আবার ব্যাটারিরি ক্ষেত্রেও গ্যালাক্সি এম৫১ এগিয়ে থাকবে। তাই আপনি যদি ভালো 4G ফোন খুঁজে থাকেন তাহলে অবশ্যই স্যামসাং গ্যালাক্সি এম৫১ বেছে নিতে পারেন। কারণ ভারতে এমনিতেও ৫জি আসতে এখনও কয়েকবছর বাকি। তবে যদি মনে করেন আপনার 5G সাপোর্টের ফোন দরকার তাহলে ওয়ানপ্লাস নোর্ড সেরা বিকল্প হবে।