লঞ্চ হল Samsung Galaxy Note 20 5G ও Galaxy Tab 7 এর এন্টারপ্রাইজ এডিশন

samsung-galaxy-note-20-5g-and-galaxy-tab-7-enterprise-editions-announced

এমাসেই শুরুতেই Samsung, Galaxy Note 20 5G ও Galaxy Tab 7 লঞ্চ করেছিল। এবার এদের এন্টারপ্রাইজ এডিশন আনলো কোম্পানি। আপাতত জার্মানিতে পাওয়া যাবে Samsung Galaxy Note 20 5G ও Galaxy Tab 7 Enterprise Editions৷ প্রসঙ্গত, এই দুই ডিভাইস শুধুমাত্র B2B অর্থাং বিজনেস টু বিজনেস প্রোডাক্ট হিসাবে বাজারে আনা হচ্ছে। এন্টারপ্রাইজ এই এডিশানে স্যামসাং নক্স স্যুট একবছরের জন্য ফ্রী থাকবে এবং চার বছর পর্যন্ত আপডেট দেওয়া হবে। চলতি বছরের সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে ডিভাইস দুটি জার্মানির মার্কেটে অথোরাইজড ডিলারদের কাছ থেকে পাওয়া যাবে বলে জানা গিয়েছে।

Samsung Galaxy Note 20 5G Enterprise Edition স্পেসিফিকেশন:

এই ফোনটির ডিসপ্লে সাইজ ৬.৬৭ ইঞ্চি৷ এটি ফুল এইচডি প্লাস ডিসপ্লে, যার পিক্সেল রেজুলেশান ১০৮০x২৪৬০। ফোনটি শুধুমাত্র ৮ জিবি র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজের একটি ভ্যারিয়েন্টে বাজারে পাওয়া যাবে। ফোনটিকে দেওয়া হয়েছে কোয়ালকমের স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫+ প্রসেসর। অ্যান্ড্রয়েড ১০ অপারেটিং সিস্টেমের সাথে আসা এই ফোনে আপনি পাবেন One UI ইন্টারফেস।

Galaxy Note 20 5G Enterprise এডিশানে ফটোগ্রাফির জন্য আছে ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ। যার প্রধান ক্যামেরা ১২ মেগাপিক্সেল৷ এতে এফ/১.৮ লেন্স ও ডুয়াল পিক্সেল অটোফোকাস আছে। এছাড়া অন্য দুটি ক্যামেরা হলো ৬৪ মেগাপিক্সেলের টেলিফটো সেন্সার ও ১২ মেগাপিক্সেল আলট্রা ওয়াইড এঙ্গেল লেন্স। ফোনটিতে ৮কে ভিডিও শ্যুট করারও সুবিধা থাকছে। ফ্রন্টে এখানে ডুয়েল পিক্সেল অটো ফোকাস সহ ১০ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা আছে। এই ফোনে ফাস্ট চার্জিং-এর সাপোর্ট সহ ৪, ৩০০ এমএএইচ ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে। ফোনটি শুধুমাত্র মিস্টিক গ্রে কালারে বাজারে পাওয়া যাবে।

দাম:

Galaxy Note 20 5G Enterprise এডিশানের রিটেল মূল্য রাখা হয়েছে €১০৫৯, অর্থাং ভারতীয় মূল্যে প্রায় ৯৩০০০ টাকা।

Samsung Galaxy Tab 7 4G Enterprise Edition স্পেসিফিকেশন:

ট্যাবটিতে ১১ ইঞ্চির এলটিপিএস আপিএস এলসিডি ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে। এইচডিআর ১০+ সাপোর্টযুক্ত এই ট্যাবের পিক্সেল রেজুলেশান ২৫৬০x১৬০০। ডিসপ্লের টাচ স্যাম্পলিং রেট ১২০ হার্জ। ট্যাবটিতে স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫+ অক্টাকোর প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। জিপিইউ হিসাবে থাকছে এড্রেনো ৬৫০। ট্যাবটি দুটি স্টোরেজ অপশানে বাজারে পাওয়া যাবে যেগুলি হল ৬ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ এবং ৮ জিবি র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ৷ ট্যাবটিতে তিনটি কালার অপশানে পাওয়া যাবে – ব্ল্যাক, ব্রোঞ্জ ও সিলভার।

ফটোগ্রাফির জন্য ট্যাবটির পেছনে ডুয়াল ক্যামেরা সেটআপ দেওয়া হয়েছে৷ যেখানে এফ/২.০ লেন্সের ১৩ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর এবং এফ/২.০ লেন্সের ৫ মেগাপিক্সেল সেকেন্ডারি ক্যামেরা আছে। ট্যাবটিতে ৩০ এফপিএসে 4K ভিডিও রেকর্ড করার সুবিধা থাকছে। সেলফির জন্য এতে আছে এফ/২.০ লেন্সের ৮ মেগাপিক্সেলের সেন্সর৷ এটির মাধ্যমে ৩০ এফপিএসে এইচডি ভিডিও শ্যুট করা যাবে।

ট্যাবটিতে ৪৫ ওয়াটে চার্জারের সাথে বিশাল ৮,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে। ফাস্ট চার্জিং-এর সাথে এখানে পাবেন ইউএসবি টাইপ সি পোর্ট। সিকিরিউটির জন্য থাকছে সাউড মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। সাউন্ডের জন্য ট্যাবে AKG স্পীকার দেওয়া হয়েছে।

দাম:

Galaxy Tab 7 4G Enterprise এডিশানের রিটেল মূল্য রাখা হয়েছে €৮০৯, অর্থাং ভারতীয় মূল্যে প্রায় ৭১,০০০ টাকা।