আকর্ষণ হারাবে Samsung Galaxy S30 সিরিজ?থাকবেনা ToF সেন্সর

samsung-galaxy-s30-may-come-without-time-of-flight-sensor

এবছরের শুরুতেই দক্ষিণ কোরিয়ান কোম্পানি Samsung লঞ্চ করেছে Galaxy S20 সিরিজ। এই ফ্ল্যাগশিপ সিরিজ লঞ্চ হওয়ার পরই কথা উঠতে শুরু করেছে পরবর্তী সিরিজ Galaxy S30 কে নিয়ে। স্বাভাবিক ভাবেই আগামী বছরে বাজারে Samsung তাদের এই Galaxy S30 সিরিজকে নিয়ে আসবে। তবে এই সিরিজের ফোনগুলি ঠিক কতটা সাড়া ফেলতে পারে সেই নিয়ে বিস্তর জল্পনা শুরু হয়েছে, যার মূল কারণ সিরিজটির ক্যামেরা সেন্সর।

সম্প্রতি, দ্য ইলেক (The Elec) নামের একটি কোরিয়ান পাবলিকেশনের প্রতিবেদন থেকে জানা গিয়েছে আসন্ন Galaxy S30 সিরিজে টাইম-অফ-ফ্লাইট (ToF) 3D সেন্সর থাকবেনা। সংস্থার সদ্য লঞ্চ হওয়া Note 20 ফোনটিতেও এই সেন্সর নেই। অথচ স্যামসাংয়ের পূর্ববর্তী Galaxy S20+ এবং S20 Ultra ফোনদুটিতে এই 3D ToF সেন্সর ছিল। এই প্রসঙ্গে বলে রাখি, ToF সেন্সরের সাহায্যে ফোনের ক্যামেরা থেকে 3D ছবি ক্যাপচার করা যায়, এবং ছবিগুলিতে দূর্দান্ত ডিটেলিং দেখা যায়।

দ্য ইলেকের ওই প্রতিবেদনে Apple-এর iPhone 12 এবং iPad Pro ডিভাইসদুটির সাথে তুলনা করে, স্যামসাংয়ের সেন্সরের নিম্নমানের পারফরম্যান্সের কথা উল্লেখ করা হয়েছে। স্যামসাং নিজেও স্বীকার করছে এই নতুন ফোনটিতে আহামরি কোনো কন্টেন্ট নেই।

প্রযুক্তিগত দিক থেকে, এমনিতে অ্যাপলের সাথে স্যামসাংয়ের ঠান্ডা লড়াই চলে। ইদানীং দুটি সংস্থার ডিভাইসের সেন্সরে বেশ বৈষম্য ধরা পড়ছে। যেখানে অ্যাপল LiDAR মডিউলসহ ডাইরেক্ট ToF সেন্সর ব্যবহার করে, সেখানে স্যামসাং শুধুমাত্র ইন-ডাইরেক্ট ToF সেন্সর ব্যবহার করে। ফলে, অ্যাপল ডিভাইসের ক্যামেরাগুলি ৬ মিটার অবধি দূরত্ব পরিমাপ করতে পারে, কিন্তু স্যামসাংয়ের সেন্সরটি ৩ মিটার পরিসর অর্জন করতে পারে।

প্রসঙ্গত, স্যামসাং বা অ্যাপলের মধ্যে কেউই নিজে ToF সেন্সর বানায় না, উভয়েই Sony-র কাছ থেকে কম্পোনেন্ট কেনে। তবে Sony এর সাথে Apple এর বিশেষ এই ডাইরেক্ট ToF সেন্সর চুক্তি আছে। যা সনি আর অন্য কোনো কোম্পানিকে সরবরাহ করেনা। সেকারণে স্যামসাংয়ের কাছে ইন-ডাইরেক্ট ToF সেন্সর ব্যবহার করা ছাড়া বিকল্প নেই। অতএব, এই ঘটনায় স্যামসাংকে দোষী সাব্যস্ত করা একেবারেই অনুচিত হবে। তবে শোনা যাচ্ছে স্যামসাং শীঘ্রই অন্য কোম্পানির সাথে যুক্ত হয়ে ডাইরেক্ট ToF সেন্সরের ওপর কাজ শুরু করবে।