বড় ব্যাটারি ও ডিসপ্লে সহ লঞ্চ হল Samsung Galaxy Tab S7 এবং Galaxy Tab S7+

samsung-galaxy-tab-s7-and-galaxy-tab-s7-plus-launched-price-700-euro-wifi-5g-lte-features-specifications

দক্ষিণ কোরিয়ান কোম্পানি Samsung আজ একগুচ্ছ Galaxy ডিভাইস নিয়ে হাজির হয়েছে। আসলে সংস্থাটি আজ অনলাইনে অনুষ্ঠিত Galaxy Unpacked 2020 ইভেন্টে, Galaxy Note 20 সিরিজের স্মার্টফোন, Galaxy Z Fold 2 ফোল্ডিং ফোন, Galaxy Buds Live ইয়ারফোন এবং Galaxy Watch 3 স্মার্টওয়াচ লঞ্চ করেছে। কিন্তু এগুলি ছাড়াও দক্ষিণ কোরিয়ান এই ব্র্যান্ডটি, Galaxy Tab S7 সিরিজও নিয়ে এসেছে। এই সিরিজে দুটি ট্যাবলেট আছে Galaxy Tab S7 এবং Galaxy Tab S7+। এগুলি মিস্টিক ব্ল্যাক, মিস্টিক ব্রোঞ্জ এবং মিস্টিক সিলভার কালারে এসেছে। আসুন এই নতুন স্যামসাং গ্যালাক্সি ট্যাব এস ৭ এবং গ্যালাক্সি ট্যাব এস ৭ প্লাস ট্যাবলেট সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিই।

Samsung Galaxy Tab S7 স্পেসিফিকেশন:

স্যামসাং গ্যালাস্ট ট্যাব এস ৭ ট্যাবলেটে পাবেন ১১ ইঞ্চি ওয়াইড কোয়াড এক্সটেন্ডেড গ্রাফিক্স অ্যারে LTPS TFT প্যানেল। এর পিক্সেল রেজুলেশন ২৫৬০ x ১৬০০ এবং আসপেক্ট রেশিও ১৬:১০। এই ডিসপ্লে ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট ও সর্বোচ্চ ৫০০ নিটস ব্রাইটনেস এর সাথে এসেছে। এতে দেওয়া S Pen এর লেটেন্সি ২৬ মিলিসেকেন্ডস। এই ট্যাবলেটে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫ প্লাস প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে এর স্টোরেজ ১ টিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

এই ট্যাবলেটের পিছনে ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে। এর প্রাইমারি ক্যামেরা এফ/২.০ লেন্স সহ ১৩ মেগাপিক্সেল এবং সেকেন্ডারি ক্যামেরা ৫ মেগাপিক্সেল আলট্রা ওয়াইড এঙ্গেল লেন্স। ফোনের সামনে ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে। জানিয়ে রাখি পিছনের ক্যামেরার সাথে অটো ফোকাস সাপোর্ট করবে।

পাওয়ারের কথা বললে এতে ৭,০৪০ এমএএইচ ব্যাটারি পাবেন। এতে কুইক চার্জ প্রযুক্তি আছে। কোম্পানির দাবি এই ব্যাটারি ১৫ ঘণ্টা ভিডিও প্লেব্যাক টাইম দেয়। চার্জিংয়ের জন্য এতে আছে ইউএসবি টাইপ সি পোর্ট। এতে DeX mode দেওয়া হয়েছে, যেটি আপনাকে মিনি ডেস্কটপের অনুভব দেবে। এটি অ্যান্ড্রয়েড ১০ অপারেটিং সিস্টেমে চলে। এখানে ৪টি AKG স্পিকার ও ডলবি অ্যাটমোস সাউন্ড সিস্টেম উপলব্ধ।

Samsung Galaxy Tab S7+ স্পেসিফিকেশন:

স্যামসাং গ্যালাস্ট ট্যাব এস ৭ প্লাস ট্যাবলেটটি তিনটি বিকল্পে পাবেন কেবল Wi-Fi, LTE এবং 5G। এটি ১২.৪ ইঞ্চি ওয়াইড কোয়াড এক্সটেন্ডেড গ্রাফিক্স অ্যারে প্লাস সুপার এমোলেড ডিসপ্লে সহ এসেছে। এর পিক্সেল রেজুলেশন ২৮০০ x ১৭৫২ এবং আসপেক্ট রেশিও ১৬:১০। এই ডিসপ্লে ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট ও সর্বোচ্চ ৪২০ নিটস ব্রাইটনেস এর সাথে এসেছে। ডিসপ্লের মধ্যে ফিঙ্গারপ্রিন্ট রিডার ও উপলব্ধ আছে। এই ট্যাবলেটে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫ প্লাস প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে এর স্টোরেজ ১ টিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে। এতে দেওয়া S Pen এর লেটেন্সি ৯ মিলিসেকেন্ডস।

স্যামসাং গ্যালাস্ট ট্যাব এস ৭ প্লাস ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরার সাথে এসেছে। প্রাইমারি ক্যামেরা এফ/২.০ লেন্স সহ ১৩ মেগাপিক্সেল এবং সেকেন্ডারি ক্যামেরা ৫ মেগাপিক্সেল আলট্রা ওয়াইড এঙ্গেল লেন্স। এখানে এলইডি ফ্ল্যাশের সাথে অটো ফোকাস সাপোর্ট করবে। সামনে ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে।

এই ট্যাবলেটে পাবেন ১০,০৯০ এমএএইচ ব্যাটারি। এটি আপনাকে ১৬ ঘণ্টা পর্যন্ত ভিডিও দেখতে দেবে। এতে ৪৫ ওয়াট চার্জিং সাপোর্ট করবে। যদিও বক্সে পাবেন ১৫ ওয়াট চার্জার। চার্জিংয়ের জন্য এতে আছে ইউএসবি টাইপ সি পোর্ট। এটি অ্যান্ড্রয়েড ১০ অপারেটিং সিস্টেমে চলে। এখানে পাবেন DeX mode, যা আপনাকে ল্যাপটপের অনুভব দেবে। এখানে ৪টি AKG স্পিকার ও ডলবি অ্যাটমোস সাউন্ড সিস্টেম আছে।

Samsung Galaxy Tab S7, Galaxy Tab S7+ দাম:

Samsung Galaxy Tab S7 ফোনটির ওয়াই-ফাই ভ্যারিয়েন্টে দুটি স্টোরেজের সাথে এসেছে। এর ৬ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজের দাম প্রায় ৬২,১৭০ টাকা এবং ৮ জিবি র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজের দাম প্রায় ৬৯,৩১৪ টাকা। আবার এর LTE ভ্যারিয়েন্টও পাওয়া যাবে। এর ৬ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজের দাম প্রায় ৭১,১৯৩ টাকা এবং ৮ জিবি র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজের দাম প্রায় ৭৮,২৯৫ টাকা।

অন্যদিনে Samsung Galaxy Tab S7+ ফোনটি ওয়াই-ফাই ও ৫জি ভ্যারিয়েন্টে এসেছে। দুটি ভ্যারিয়েন্টই ৬ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজ এবং ৮ জিবি র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজের সাথে পাওয়া যাবে। ওয়াই-ফাই মডেলের দুটি স্টোরেজের দাম যথাক্রমে প্রায় ৮০,০৬৪ টাকা ও ৮৭,১৮০ টাকা। আবার ৫জি ভ্যারিয়েন্টের দুটি স্টোরেজের দাম প্রায় ৯৭,৮৮০ টাকা ও ১,০৪,৯৯৮ টাকা। এর এলটিই ভ্যারিয়েন্টের দাম জানা যায়নি।