আজ আসছে Samsung Galaxy Note 20 সিরিজ সহ মোট ৫টি ডিভাইস, জানুন সম্ভাব্য দাম ও ফিচার

samsung-galaxy-unpacked-event-galaxy-note-20-ultra-live-launch-event-price-specifications

আজ দক্ষিণ কোরিয়ায় অনুষ্ঠিত হতে চলেছে বহু প্রতীক্ষিত Samsung Galaxy Unpacked Event। আগে থেকেই স্যামসাংয়ের তরফে জানানো হয়েছে এই ইভেন্টে মোট ৫টি পাওয়ারফুল ডিভাইস লঞ্চ করা হবে। ৩০ সেকেন্ডের একটি ভিডিও টিজারে বলা হয়েছে এই গ্যালাক্সি আনপ্যাকেড ইভেন্টে Galaxy Note 20 সিরিজGalaxy Z Fold 2, Galaxy Tab S7, Galaxy Watch 3 ও Galaxy Buds Live লঞ্চ করা হবে। এই ইভেন্ট ভারতীয় সময় সন্ধ্যা ৭:৩০ মিনিটে অনুষ্ঠিত হবে। এই ইভেন্ট Samsung.com ও Samsung Global ফেসবুক পেজ থেকে সরাসরি দেখা যাবে।

 Samsung Galaxy Note 20 সিরিজ সম্ভাব্য দাম ও স্পেসিফিকেশন:

আপাতত জানা গেছে স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট ২০ সিরিজে দুটি ফোন লঞ্চ হতে পারে, যেগুলি হলো Galaxy Note 20 ও Galaxy Note 20 Ultra। কোম্পানির তরফে যদিও এই সিরিজের দামের বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি। তবে ডাচ ব্লগ GalaxyClub এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, Samsung Galaxy Note 20 এর ৪জি ভ্যারিয়েন্টের দাম হবে ৯৪৯ ইউরো, যা প্রায় ৮৩,৭০০ টাকার সমান। আবার এর ৫জি ভ্যারিয়েন্টের দাম ১,০৪৯ ইউরো, যা প্রায় ৯২,৫০০ টাকার সমান। এদিকে Galaxy Note 20 Ultra এর দাম ১ লক্ষ টাকা হবে বলে জানানো হয়েছে।

Winfuture.de ওয়েবসাইটে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, Samsung Galaxy Note 20 তে ৬.৭ ইঞ্চির সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লে পাওয়া যাবে, যার রিফ্রেশ রেট ৬০ হার্জ ও আসপেক্ট রেশিও ২০:৯। এই স্মার্টফোনটিতে শক্তিশালী ২.৭ গিগা হার্জের এক্সিনোস ৯৯০ অক্টাকোর প্রসেসর দেওয়া হবে। তথ্য অনুযায়ী, ফোনটি ৮ জিবি র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টে পাওয়া যাবে। কিন্তু আশা করা যায়, এছাড়াও এটি অন্যান্য র‌্যাম ও স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টেও বাজারে আসবে। ফোনে AKG অপটিমাইজড স্টিরিও স্পিকার থাকবে।

এরপর আসা যাক স্মার্টফোনটির ক্যামেরা সম্বন্ধে। এই ফোনের পিছনে ১২ মেগাপিক্সেলের প্রাইমারি ক্যামেরা লেন্সের সাথে f/২.২ অ্যাপারচারের ১২ মেগাপিক্সেল আল্ট্রা ওয়াইড লেন্স এবং ৩এক্স অপটিক্যাল জুম বিশিষ্ট f/2.0 অ্যাপারচারের ৬৪ মেগাপিক্সেলের ইমেজ সেনসর লেন্স মিলবে । এই ক্যামেরার মাধ্যমে 8K ভিডিও রেকর্ডিং করা যাবে। ফোনের সামনে একটি ১০ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা থাকবে,।

রিপোর্ট অনুযায়ী, Note 20 স্মার্টফোনটিতে ৪৩০০ এমএইচ এর ব্যাটারির সাথে আসবে। এই ফোনে থাকবে ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তি, যার জন্য মাত্র ৩০ মিনিটে ৫০ শতাংশ ব্যাটারি চার্জ করা যাবে। ফোনে ওয়্যারলেস চার্জিং ও রিভার্স ওয়্যারলেস চার্জিং সম্ভবত পাওয়া যাবে। ফোনটি চার্জ করার জন্য ইউএসবি টাইপ সি পোর্ট থাকবে।

এদিকে স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট ২০ আলট্রা ফোনে LTPO OLED ডিসপ্লে থাকবে, যার রিফ্রেশ রেট ১২০ হার্জ। আবার এই ডিসপ্লের রেজুলেশন হবে QHD+।  এছাড়াও এই ফোনে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫ প্লাস প্রসেসর থাকবে। এর সাথে নতুন S Pen stylus দেওয়া হবে। এছাড়াও এই ফোনে ৪,৫০০ এমএএইচ ব্যাটারি, ১০৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা, ৫০ এক্স ডিজিটাল জুম থাকতে পারে।

Samsung Galaxy Watch 3 সম্ভাব্য দাম ও স্পেসিফিকেশন:

এই নতুন গ্যালাক্সি স্মার্টওয়াচে থাকছে, অ্যাপল ওয়াচের মত ‘Fall-Detection’ ফিচার, অর্থাৎ ইউজার এই ঘড়িটি পরে থাকা অবস্থায় অজ্ঞান হয়ে গেলে, এটি এক মিনিট অবধি ইউজারের গতিবিধি লক্ষ্য করে। এরপরও ইউজারের সাড়া না পেলে এমার্জেন্সি কন্ট্যাক্ট এবং জরুরি পরিষেবাগুলিতে আপনার লোকেশন সহ ৫ সেকেন্ডের এমার্জেন্সি ভয়েস মেসেজ পাঠায়।

এছাড়া Galaxy Watch 3 স্মার্টওয়াচে ফোন কল নিয়ন্ত্রণের জন্য থাকছে বিশেষ ফিচার। যদি কোনো কল স্মার্টওয়াচে আসে তবে আপনি হাতের মুঠো বন্ধ করে ফোনটি রিসিভ করতে পারেন। অন্যদিকে, আপনি যদি কোনও কল রিজেক্ট করতে চান তবে, আপনাকে ঘড়িটি পরে থাকা হাত ঝাঁকাতে (Shake) হবে। এছাড়াও এতে রয়েছে ইসিজি এবং রক্তচাপ পরিমাপ করার সুবিধাও। যদিও এই ডিভাইসের দাম এখনও জানা যায়নি।

Samsung Galaxy Buds Live সম্ভাব্য দাম ও স্পেসিফিকেশন:

WinFuture এর রিপোর্ট অনুযায়ী, স্যামসাং গ্যালাক্সি বাডস লাইভ এর দাম হবে ১৬৯ ডলার, যা প্রায় ১২,৫০০ টাকার সমান। এতে AKG সাউন্ড, দুটি ইন্টারনাল এবং একটি এক্সটার্নাল মাইক্রোফোন দেওয়া হবে। এতে থাকবে নয়েস ক্যান্সেলেশন ফিচার। এটি একবার চার্জে সাড়ে পাঁচ ঘন্টা চলবে। এতে ওয়্যারলেস চার্জিং সাপোর্ট করবে।

Samsung Galaxy Z Fold 2 সম্ভাব্য দাম ও স্পেসিফিকেশন:

Galaxy Z Fold 2 ফোনে ৭.৫৯ ইঞ্চি সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লে থাকবে, যার রিফ্রেশ রেট হবে ১২০ হার্টজ। ফোনটির দ্বিতীয় ডিসপ্লে হবে ৬.২৩ ইঞ্চি সুপার অ্যামোলেড। আবার এতে S Pen সাপোর্ট দেওয়া হবে। এছাড়াও গ্যালাক্সি ফোল্ড ২ ফোনে ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা দেওয়া হবে। যার প্রাইমারি ক্যামেরা হবে ১২ মেগাপিক্সেল। এছাড়াও ১৬ মেগাপিক্সেল আলট্রা ওয়াইড সেন্সর ও ৬৪ মেগাপিক্সেল টেলিফোটো লেন্স থাকবে । উন্নত ফটোগ্রাফির জন্য এখানে ডুয়েল অপটিক্যাল ইমেজ স্টেবিলাইজেশান দেওয়া হতে পারে। সিকিউরিটির জন্য এতে সাইড মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর দেওয়া হতে পারে।

গ্যালাক্সি জেড ফোল্ড ২ ফোনটি কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫ প্লাস প্রসেসরের সাথে আসতে পারে। এতে পাঞ্চ হোল ডিসপ্লে সহ ডুয়েল ফ্রন্ট ক্যামেরা দেওয়া হতে পারে। এতে থাকবে ৪,৩৬৫ এমএএইচ ব্যাটারি দেওয়া হবে, যার সাথে ১৫ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করবে। আবার ফোনটি ২৫৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজের সাথে আসবে। যদিও কোম্পানির তরফে এই ফোনের দাম এখনও জানা যায়নি, তবে গ্যালাক্সি ফোল্ড ২ ফোনটি ১,৪০,০০০ টাকার রেঞ্জে আসতে পারে।