Samsung Galaxy Watch 4, Galaxy Watch 4 Classic স্মার্টওয়াচ মাসিক চক্র ট্র্যাক সহ একাধিক ফিটনেস ফিচারের সঙ্গে লঞ্চ হল

Samsung Galaxy Watch 4 Galaxy Watch 4 classic launched with exynos w920 soc one ui watch 3 os price sale date specifications
Samsung Galaxy Watch 4, Galaxy Watch 4 Classic লঞ্চ হল

অবশেষে অনুষ্ঠিত হয়েই গেল Samsung (স্যামসাং)-এর বহু প্রতীক্ষিত Galaxy Unpacked (গ্যালাক্সি আনপ্যাকড) ইভেন্ট। আর পূর্ব ঘোষণা মতই আজকের এই বিশেষ ইভেন্ট থেকে একগুচ্ছ প্রোডাক্ট সামনে আনল দক্ষিণ কোরিয়ার জনপ্রিয় মাল্টি-টেক ব্র্যান্ডটি। এক্ষেত্রে নতুন দুটি ফোল্ডেবল ডিভাইসের সাথে স্যামসাং একজোড়া নতুন স্মার্টওয়াচ সিরিজ লঞ্চ করেছে, যাদের নাম Samsung Galaxy Watch 4 ( স্যামসাং গ্যালাক্সি ওয়াচ ৪) এবং Samsung Watch 4 Classic (স্যামসাং ওয়াচ ৪ ক্লাসিক)। এই গ্যালাক্সি ওয়াচগুলিতে নতুন অপারেটিং সিস্টেমের সাথে স্যামসাংয়ের সর্বশেষ ওয়ান ইউআই ওয়াচ ৩ (One UI 3) কাস্টম স্কিন রয়েছে। সাথে রয়েছে Exynos W920 প্রসেসর, LTE কানেক্টিভিটি, গরিলা গ্লাস ডিক্স প্রোটেকশন। আসুন বিস্তারিতভাবে Samsung Galaxy Watch 4 এবং Samsung Watch 4 Classic স্মার্টওয়াচের স্পেসিফিকেশন ও দাম জেনে নেওয়া যাক।

Samsung Galaxy Watch 4, Watch 4 Classic-এর স্পেসিফিকেশন

স্যামসাং গ্যালাক্সি ওয়াচ ৪-এর ৪০ মিমি এবং ওয়াচ ৪ ক্লাসিকের ৪২ মিমি মডেলটিতে ৩৯৬×৩৯৬ পিক্সেল রেজোলিউশনসহ ১.২ ইঞ্চি AMOLED ডিসপ্লে দেখা ‌যাবে। অন্যদিকে গ্যালাক্সি ওয়াচ ৪-এর ৪৪ মিমি এবং ওয়াচ ৪ ক্লাসিকের ৪৬ মিমি বিকল্পদুটিতে ১.৪ ইঞ্চি AMOLED ডিসপ্লে রয়েছে, যার রেজোলিউশন ৪৫০×৪৫০ পিক্সেল। সমস্ত মডেলেই গরিলা গ্লাস ডিএক্স (DX) প্রোটেকশন পাওয়া যাবে। আবার স্যামসাং গ্যালাক্সি ওয়াচ ৪ এর প্রথম দুটি মডেল (৪০ মিমি, ৪২ মিমি) ২৪৭ এমএএইচ ব্যাটারি সহ এসেছে, যেখানে দ্বিতীয় ভ্যারিয়েন্টগুলিতে ৩৬১ এমএএইচ ব্যাটারি ক্যাপাসিটি পাওয়া যাবে। আবার গ্যালাক্সি ওয়াচ ৪-এর ৪০ মিমি এবং ৪৪ মিমি মডেলের ওজন যথাক্রমে ২৫.৯ গ্রাম এবং ৩০.৩ গ্রাম। অন্যদিকে ওয়াচ ৪ ক্লাসিকের দুটি সংস্করণ ওজন যথাক্রমে ৪৬.৫ গ্রাম এবং ৫২ গ্রাম।

Samsung Galaxy Watch 4, Watch 4 Classic নতুন ওয়্যার ওএসের উপর ভিত্তি করে ওয়ান ইউআই ওয়াচ ৩ কাস্টম স্কিনের সাহায্যে চলবে। তাছাড়া এগুলিতে পাওয়া যাবে Exynos W920 এসওসি, ১.৫ জিবি র‍্যাম এবং ১৬ জিবি অনবোর্ড স্টোরেজ। স্মার্টওয়াচ দুটি ব্যবহার করার জন্য ইউজারের কাছে কমপক্ষে অ্যান্ড্রয়েড ৬.০ ওএস চালিত ডিভাইস থাকতে হবে।

ফিটনেস ফিচারে কথা বললে, দুটি নতুন গ্যালাক্সি ওয়াচই কোম্পানির বিশেষ বায়োঅ্যাক্টিভ সেন্সরের সাথে এসেছে, যা অপটিক্যাল হার্ট রেট সেন্সর (PPG), ইলেকট্রিক্যাল হার্ট রেট সেন্সর এবং একটি বায়োইলেক্ট্রিকাল ইম্পিডেন্স অ্যানালাইসিস (BIA) সেন্সরের সমন্বয়ে ফিটনেস এবং হেল্থ ট্রাকিংয়ের সুবিধা দেবে। এছাড়া ইউজাররা এগুলিতে হার্ট রেট মনিটরিং, SpO2 ট্র্যাকিং এবং ঘুমের মাত্রা নির্ণয় করতে পারবেন। মিলবে ইলেক্ট্রোকার্ডিওগ্রাম (ECG) সাপোর্ট। উপরন্তু, স্মার্টওয়াচগুলিতে ফল ডিটেকশন এবং মাসিক চক্র ট্র্যাকিংয়ের সুবিধা থাকবে। এছাড়া, স্বাস্থ্য সম্পর্কিত বিষয় বা রোগ নির্ণয়ের জন্য মেডিক্যালি অনুমোদিত না হলেও, Samsung Galaxy Watch 4, Watch 4 Classic-এর প্রিলোডেড স্পোর্টস মোড ইউজাররকে ফিটনেস সংক্রান্ত ক্রিয়াকলাপ ট্র্যাক করতে সাহায্য করবে।

এগুলির অন্যান্য ফিচারের মধ্যে জল-প্রতিরোধী IP68 রেটিং, স্যামসাং পে বা গুগল পের মত পরিষেবাগুলির সাপোর্ট, কল বা এসএমএস/ইমেল নোটিফিকেশন অ্যাক্সেস ইত্যাদি বৈশিষ্ট্য উল্লেখযোগ্য। কানেক্টিভিটির জন্য এগুলিতে আছে 4G LTE (ঐচ্ছিক), ডুয়াল-ব্যান্ড ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ ৫.০, জিপিএস/গ্লোনাস/গ্যালিলিও এবং NFC অপশন।

Samsung Galaxy Watch 4, Watch 4 Classic-এর দাম, প্রাপ্যতা

স্যামসাং গ্যালাক্সি ওয়াচ ৪-এর ব্লুটুথ ভ্যারিয়েন্টের প্রারম্ভিক দাম রাখা হয়েছে ২৪৯.৯৯ ডলার (প্রায় ১৮,৬০০ টাকা) এবং এর LTE মডেলটি ২৯৯.৯৯ ডলার (প্রায় ২২,৩০০ টাকা) থেকে কেনা যাবে। অন্যদিকে গ্যালাক্সি ওয়াচ ৪ ক্লাসিকের ব্লুটুথ সংস্করণের জন্য ৩৪৯.৯৯ ডলার (প্রায় ২৬,০০০ টাকা) এবং LTE মডেলের জন্য ৩৯৯.৯৯ ডলার (২৯,৭০০ টাকার কাছাকাছি) ব্যয় করতে হবে।

এক্ষেত্রে স্যামসাং গ্যালাক্সি ওয়াচ ৪ সিরিজের ঘড়িগুলিতে অ্যালুমিনিয়াম বিল্ড এবং স্টেইনলেস স্টিলের বডি দেখা যাবে। ওয়াচ ৪-এর ৪০ মিমি মডেল ব্ল্যাক, পিঙ্ক গোল্ড, সিলভার – তিনটি রংয়ে এবং ৪৪ মিমি মডেলটি ব্ল্যাক, গ্রিন, ও সিলভার রংয়ের বিকল্পে কেনা যাবে। আবার গ্যালাক্সি ওয়াচ ৪ ক্লাসিকের ৪২ মিমি এবং ৪৬ মিমি উভয় মডেলই ব্ল্যাক এবং সিলভার কালার অপশনে উপলব্ধ হবে। আগামী ২৭শে আগস্টের পর থেকে স্মার্টওয়াচ দুটির সেল শুরু হবে; তবে আজ থেকে বিশ্বের নির্বাচিত বাজারে এগুলি প্রি-অর্ডার করা যাবে।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

A person who enjoys creating, buying, testing, evaluating and learning about new technology.