Samsung Galaxy Z Fold 3 ফোল্ডিং ফোনের দাম হবে গ্যালাক্সি জেড ফোল্ড ২ এর মতই

গত সেপ্টেম্বরে, ইলেক্ট্রনিক্স জায়ান্ট Samsung ফোল্ডেবল স্মার্টফোন Galaxy Z Fold 2 লঞ্চ করেছিল। যার পরেই ইন্টারনেট দুনিয়ায়, এই ফোনের সাকসেসর বা উত্তরসূরি Samsung Galaxy Z Fold 3 ডিভাইসটি নিয়ে চর্চা শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যেই এই ফোনটির স্পেসিফিকেশন এবং দাম সম্পর্কিত একাধিক রিপোর্টও সামনে এসেছে। মনে করা হচ্ছে, স্যামসাং জেড ফোল্ড ৩ ফোল্ডেবল ডিভাইসটি আগামী বছরের দ্বিতীয়ার্ধে লঞ্চ হতে পারে।

আশা করা যায় স্যামসাং তার পরবর্তী ফোল্ডেবল স্মার্টফোনটির ডিজাইন এবং হার্ডওয়্যার, আরো উন্নত করার চেষ্টা করবে। তবে এটির দাম পূর্বসূরী Samsung Galaxy Z Fold 2 ডিভাইসের কাছাকাছিই থাকবে বলে মনে করা হচ্ছে। MauriQHD নামের টিপস্টারের সাম্প্রতিক টুইটেও একই কথা বলা হয়েছে। এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি, বিশ্বের একাংশ মার্কেটে Samsung Galaxy Z Fold 2-এর দাম ২ হাজার ডলার (ভারতে ফোনটির দাম ১,৪৯,৯৯৯ টাকা)। যাইহোক, আগামী দিনে গ্রাহকরা যদি একই দামে নতুন ডিভাইস এবং নতুন ফিচার ব্যবহার করতে পারেন তাহলে বিষয়টি যে বেশ মজাদার তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না!

এদিকে, বেশ কয়েকটি রিপোর্টে প্রকাশিত হয়েছে যে, Samsung, Galaxy Fold Z Fold 3 ডিভাইসটিতে এস পেন (S Pen) ব্যবহারের সুবিধা দিতে পারে। অর্থাৎ এটি সংস্থার এস পেন সাপোর্ট যুক্ত প্রথম ফোল্ডেবল ফোন হতে পারে। এর আগে সংস্থাটি এই বিশেষ ফিচারটি সরবরাহ করেনি, কারণ সেই মুহূর্তে সংস্থাটি এস পেন এবং স্ক্রিনের সংস্পর্শে আসার পর সৃষ্টি হওয়া স্ক্রিনের স্ক্র্যাচগুলি প্রতিরোধ করার জন্য অতিরিক্ত স্ক্রিন প্রোটেকশন লেয়ার তৈরি করতে পারেনি। তবে এখন সংস্থাটি স্ক্রিনে ট্রান্সপ্লারেন্ট পলিমাইড (CPI) ফিল্মের বদলে আল্ট্রা থিন গ্লাস (UTG) ব্যবহার করছে, তাই এস পেন জাতীয় ফিচার সরবরাহ করতে সংস্থাটির কোনো বাধা নেই।

এছাড়া এটাও শোনা যাচ্ছে যে, স্যামসাং, তার গ্যালাক্সি জেড ফোল্ড ৩ ডিভাইসের ডিজাইনেও পরিবর্তন আনতে পারে। এক্ষেত্রে সংস্থাটি ডিভাইসে নচ ডিসপ্লে প্রদান করতে পারে। শুধু তাই নয়, এই ফোল্ডেবল ডিভাইসটিতে ইন-ডিসপ্লে ক্যামেরা অন্তর্ভুক্ত থাকতে পারে বলে শোনা যাচ্ছে।