চীনা স্মার্টফোন কিনবেন না? জুন মাসে Samsung ভারতে এনেছে নতুন চারটি মোবাইল

চীনা স্মার্টফোন কোম্পানিদের আটকাতে এবছরে নতুন পরিকল্পনা নিয়েছে স্যামসাং। এই কারণে কোম্পানি বছরের শুরু থেকেই নতুন স্মার্টফোন লঞ্চ করেছে। এই জুন মাসেও একাধিক স্মার্টফোনকে ভারতে এনেছে Samsung। যে ফোনগুলি বাজেট রেঞ্জ থেকে মিড বাজেট রেঞ্জে উপলব্ধ। আপনি যদি চীনা স্মার্টফোন না কিনতে চান, তাহলে এই ফোনগুলি আপনার জন্য ভালো বিকল্প। আসুন Samsung এর জুন মাসে লঞ্চ করা ফোনগুলি দেখে নিই।

Samsung Galaxy A31 :

ভারতে স্যামসাং গ্যালাক্সি এ৩১ এর দাম রাখা হয়েছে ২১,৯৯৯ টাকা। এই দাম ফোনটির ৬ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজের। স্যামসাংয়ের এই ফোনে পাবেন ৬.৪ ইঞ্চি ফুল এইচডি প্লাস সুপার AMOLED ইনফিনিটি ইউ ডিসপ্লে। যার স্ক্রিন রেজুলেশন ১০৮০ x ২৪০০ পিক্সেল। স্যামসাং গ্যালাক্সি এ ৩১ ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ১০ এর উপর চলে। আবার এই ফোনে পাবেন অক্টা কোর মিডিয়াটেক হেলিও পি৬৫ প্রসেসর। গ্রাফিক্সের জন্য এখানে ARM মালি জি৫২ জিপিইউ ব্যবহার করা হয়েছে। ডিভাইসটি ৬ জিবি র‌্যাম এবং ১২৮ জিবি স্টোরেজের সাথে পাওয়া যাবে। মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে এর স্টোরেজ বাড়ানো যাবে ৫১২ জিবি পর্যন্ত।

ডুয়েল সিমের এই ফোনের পিছনে কোয়াড ক্যামেরা সেটআপ উপলব্ধ। যার প্রধান ক্যামেরা এফ/২.০ অ্যাপারচারের সাথে ৪৮ মেগাপিক্সেল। এছাড়াও অন্য দ্বিতীয় ক্যামেরা হল ৮ মেগাপিক্সেল আলট্রা ওয়াইড এঙ্গেল লেন্স, যার অ্যাপারচার এফ/২.০। এছাড়াও আছে ৫ মেগাপিক্সেলের ম্যাক্রো লেন্স ও ৫ মেগাপিক্সেল ডেপ্থ সেন্সর। সেলফির জন্য এখানে ২০ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা ও পাওয়া যাবে।

আবার সিকিউরিটির জন্য এখানে পাবেন ইন-ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। আবার এই ফোনে কোম্পানি ৫,০০০ এমএএইচ এর বড় ব্যাটারি দিয়েছে। যার সাথে ১৫ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করবে। কানেক্টিভিটির জন্য এখানে ডুয়েল ফোরজি, ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ, ইউএসবি টাইপ সি পোর্ট এর মতো ফিচার উপলব্ধ।

Samsung Galaxy M11 :

স্যামসাং গ্যালাক্সি এম ১১ ফোনের ৩ জিবি র‌্যাম ও ৩২ জিবি স্টোরেজের দাম ১০,৯৯৯ টাকা। আবার ৪ জিবি র‌্যাম ও ৬৪ জিবি স্টোরেজের দাম পড়বে ১২,৯৯৯ টাকা। স্পেসিফিকেশনের কথা বললে স্যামসাং গ্যালাক্সি এম ১১ ফোনে ৬.৪ ইঞ্চি এইচডি প্লাস ইনফিনিটি ও ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে। এর ডিসপ্লে ডিজাইন পাঞ্চ হোল। ফোনটির উপরের দিকে বাম দিকের কোনায় পাঞ্চ হোলের মধ্যে ৮ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা রয়েছে। যার অ্যাপারচার এফ/২.০। আবার ফোনটির পিছনে তিনটি ক্যামেরা পাবেন। যার প্রধান ক্যামেরা এফ/১.৮ অ্যাপারচার সহ ১৩ মেগাপিক্সেল। এছাড়াও আছে ৫ মেগাপিক্সেল আলট্রা ওয়াইড এঙ্গেল ক্যামেরা এবং পোর্ট্রেট শটের জন্য ২ মেগাপিক্সেল ডেপ্থ সেন্সর।

এই ফোনে স্ন্যাপড্রাগন ৪৫০ প্রসেসর আছে। অক্টা কোর এই প্রসেসরটির ক্লক স্পিড ১.৮ গিগাহার্টজ। এই ফোনে ৩ জিবি র‌্যাম ও ৩২ জিবি স্টোরেজ আছে। মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে এর স্টোরেজ বাড়ানো যাবে। এই ফোনে ১৫ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং যুক্ত ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি রয়েছে। এই ফোনে ‘Alive Keyboard’ ফিচার উপলব্ধ। সিকিউরিটির জন্য এখানে পাবেন ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর।

Samsung Galaxy M01 :

স্যামসাং গ্যালাক্সি এম ০১ এর ৩ জিবি র‌্যাম ও ৩২ জিবি স্টোরেজের দাম ৮,৯৯৯ টাকা। ফোনটি কালো, নীল ও লাল রঙে পাওয়া যাবে। এই ফোনে ৫.৭ ইঞ্চি এইচডি প্লাস ইনফিনিটি ভি ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে। ফোনটি কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৪৩৯ প্রসেসরের সাথে এসেছে। র‌্যাম ও স্টোরেজের কথা বললে এতে ৩ জিবি র‌্যাম ও ৩২ জিবি স্টোরেজে রয়েছে। সিকিউরিটির জন্য এখানে পাবেন ফেস আনলক ফিচার। মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে এর স্টোরেজ ৫১২ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

ফটোগ্রাফির জন্য এই ফোনের পিছনে আছে ডুয়েল ক্যামেরা। যার প্রাইমারি ক্যামেরা ১৩ মেগাপিক্সেল এবং অন্য ক্যামেরাটি ২ মেগাপিক্সেল। সেলফির জন্য এখানে ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা উপলব্ধ। কানেক্টিভিটির জন্য, এই স্যামসাং ফোনটিতে ৪ জি ভোল্টি, জিপিএস / এ-জিপিএস এফএম রেডিও, মাইক্রো-ইউএসবি এবং ৩.৫ মিমি হেডফোন জ্যাকের মতো ফিচার উপস্থিত।

Samsung Galaxy A21s :

ভারতে স্যামসাং গ্যালাক্সি এ২১এস দুটি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের সাথে এসেছে। এর ৪ জিবি র‌্যাম ও ৬৪ জিবি স্টোরেজের দাম রাখা হয়েছে ১৬,৪৯৯ টাকা। আবার ৬ জিবি র‌্যাম ও ৬৪ জিবি স্টোরেজের দাম ১৮,৪৯৯ টাকা। Samsung Galaxy A21s ডিজাইন অনেকটাই গ্যালাক্সি এ২১ এর মতো। ফোনটিতে পাবেন ৬.৫ ইঞ্চি AMOLED ইনফিনিটি O এইচডি প্লাস ডিসপ্লে। এর আসপেক্ট রেশিও ২০:৯ এবং পিক্সেল রেজুলেশন ৭২০x১৬০০। গ্যালাক্সি এ২১এস এর ডিসপ্লে ডিজাইন পাঞ্চ হোল। এই ফোনে ২.০ গিগাহার্টজ অক্টা কোর প্রসেসর দেওয়া হয়েছে। ফোনটি ৪ জিবি ও ৬ জিবি র‌্যামের সাথে এসেছে। আবার এতে পাওয়া যাবে ৬৪ জিবি স্টোরেজ। মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে এর স্টোরেজ ৫১২ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে। সিকিউরিটির জন্য এই ফোনের পিছনে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর আছে।

ফটোগ্রাফির জন্য এতে কোয়াড রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ আছে। যার প্রাইমারি ক্যামেরা ৪৮ মেগাপিক্সেল, এছাড়াও আছে ৮ মেগাপিক্সেল আলট্রা ওয়াইড এঙ্গেল সেন্সর, ২ মেগাপিক্সেল ডেপ্থ সেন্সর ও ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো সেন্সর। এই ফোনের সামনে ১৩ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা আছে। অপারেটিং সিস্টেমের কথা বললে ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ১০ ভিত্তিক OneUI ২.০ এ চলে। এই ফোনে ১৫ ওয়াট চার্জিং সাপোর্ট সহ ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি আছে। সাউন্ডের জন্য এতে ডলবি অ্যাটমাস সাপোর্ট পাওয়া যাবে।