Samsung ফোনে ফের আগুন! দাউ দাউ করে জ্বলে উঠলো কাঁধের ব্যাগ

samsung-phone-catches-fire-in-mans-bag-in-china

ফোনের ব্যাটারিতে যে কিছু সমস্যা হচ্ছে, তা আগেভাগেই তিনি আঁচ করেছিলেন। কিন্তু ফোন বছর পাঁচেক পুরনো হওয়ায় জন্য বিষয়টি ততটা আমল দেওয়ার মতো ছিল না। কারণ জীব জগতের মতো বয়স বৃদ্ধির সাথে সাথে স্মার্টফোন সহ বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্স ডিভাইসে নানা সমস্যার সৃষ্টি হওয়াটা স্বাভাবিক ব্যাপার। কিন্তু তাই বলে নিজে থেকেই আগুন ধরে গিয়ে স্মার্টফোনের যে পঞ্চত্বপ্রাপ্তি ঘটবে, তা তিনি স্বপ্নেও ভাবেননি।

চীনের এক ভদ্রলোকের সাথে ঠিক এমনই ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাটির সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করে SCMP (South China Morning Post) ৫১ সেকেন্ডের একটি ভিডিও ক্লিপ শেয়ার করেছে। ভাইরাল হওয়া এই ভিডিও নেটাগরিকদের পুরোপুরি স্তম্ভিত করে দিয়েছে। ভিডিওতে ব্যস্ত রাস্তায় একজন পথচারীকে হাঁটতে দেখা যাচ্ছে, হঠাৎই অঘটন। কাঁধের স্লিং ব্যাগটি দাউ দাউ করে জ্বলে উঠল।

তৎক্ষণাৎ ব্যাগ ছুড়ে ফেলে দিয়ে কিছুটা পিছিয়ে এসে ব্যক্তিটি নিজেকে সুরক্ষিত করলেন বটে। কিন্তু তারমধ্যেই তার হাত, চুল, এবং চোখের পাতা কিছুটা ঝলসে গিয়েছে। রিপোর্ট বলছে, ব্যাগের মধ্যে ২০১৬ সালে কেনা একটি Samsung স্মার্টফোন রাখা ছিল। ব্যাগের মধ্যে ফোনটি চার্জেও বসানো ছিল না। ফলে আগুন ধরে যাওয়ার ঘটনাও খুব অস্বাভাবিক।

উল্লেখ্য, ব্যাটারি পুড়ে যাওয়ার ঘটনায় স্যামসাংয়ের ভাবমূর্তিতে আগেও ধাক্কা লেগেছে। বিশেষত ২০১৬ সালে Galaxy Note 7 লঞ্চের পর। অতিরিক্ত তাপ উৎপন্ন হয়ে ব্যাটারিতে আগুন ধরে যাওয়ার বিভিন্ন ঘটনা সামনে আসার পর স্যামসাংকে প্রবল সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছিল। পুরনো নোট ৭ ফোন এক্সচেঞ্জের সুবিধা দেওয়ার পরও সমস্যার সমাধান হয়নি। রিপ্লেসমেন্ট মডেলেও একই ত্রুটি থাকার ফলে স্যামসাং সমস্ত নোট ৭ মডেল গ্রাহকদের কাছ থেকে ফিরিয়ে নেওয়ার পর চিরতরে ফোনটির প্রোডাকশন বন্ধ করে দেয়। চীনের ওই ভদ্রলোক স্যামসাংয়ের কোন মডেল ব্যবহার করছিলেন, তা অজানা। তবে এরকম ঘটনা কেন ঘটল, তার রহস্য উদঘাটনের জন্য তদন্ত চলছে বলে সংবাদসংস্থা সূত্রে খবর পাওয়া গিয়েছে।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন