বাজেট রেঞ্জে আসা সমস্ত Samsung Galaxy ফোনে থাকবে ৫০০০ mAh ব্যাটারি

ফোনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ফিচার হল সেটির ব্যাটারি ক্যাপাসিটি। ফোনের ব্যাটারির পার্সেন্টেজ হু হু করে কমতে থাকলেই সব কাজ পণ্ড! এই বিষয়টি মাথায় রেখে স্মার্টফোন নির্মাতা সংস্থাগুলি এখন তাদের একাধিক ডিভাইসে ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি সরবরাহ করছে। তবে টেক জায়ান্ট Samsung, এই বিষয়টি নিয়ে আরো একধাপ এগিয়ে যাওয়ার কথা ভাবছে। গতকাল দক্ষিণ কোরিয়ার এই জনপ্রিয় সংস্থাটি জানিয়েছে যে, আগামী বছর থেকে ব্র্যান্ডের সমস্ত বাজেট গ্যালাক্সি স্মার্টফোনে থাকবে ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি ব্যাকআপ।

রিপোর্ট অনুযায়ী, Samsung তার ডিভাইসগুলির বিশেষত বাজেট স্মার্টফোনগুলির ব্যাটারির আয়ু উন্নত করার চেষ্টা করবে। আর এই পদক্ষেপের একটি অংশ হিসেবেই সংস্থার সমস্ত বাজেট স্মার্টফোনগুলিতে ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি দেখা যাবে। এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি, Samsung ইতিমধ্যেই তার স্মার্টফোনগুলিতে ৭,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি সরবরাহ করা শুরু করেছে। সেপ্টেম্বরে লঞ্চ হওয়া Galaxy M51 স্মার্টফোনটিতে ইতিমধ্যেই ৭,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি দেখা গিয়েছে। তবে আগামী বছর অর্থাৎ ২০২১ সালে স্যামসাং তার অন্যান্য স্মার্টফোনে আরো বেশি ক্ষমতাসম্পন্ন ব্যাটারি ব্যবহারের পরিকল্পনা করছে বলে জানা গিয়েছে।

এদিকে দিন দুয়েক আগেই সংস্থাটি Samsung Galaxy A12 ও Samsung Galaxy A02s নামের দুটি নতুন ফোন বাজারে এনেছে, যাতে ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি ও ১৫ ওয়াট ফাস্ট চার্জিংয়ের সুবিধা রয়েছে। এই ফোনগুলির দাম যথাক্রমে প্রায় ১৫,৭২০ টাকা ও ১৩,২১০ টাকা এবং এটি নীল, কালো, লাল এবং সাদা রঙের বিকল্পগুলিতে কেনা যায়। তবে দুটি ফোনই পরের বছর পাওয়া যাবে।

প্রসঙ্গত, স্যামসাং আগামী দিনে তার কিছু ফ্ল্যাগশিপ এবং কিছু মিড-রেঞ্জ ডিভাইসের জন্য 5G কানেক্টিভিটি ফিচার যুক্ত করবে বলে জানা গিয়েছে। তবে সংস্থাটি স্পষ্ট জানিয়েছে গ্যালাক্সি সিরিজের কোনো বাজেট স্মার্টফোনেই 5G কানেক্টিভিটি থাকবেনা। তবে ক্যামেরা বা নেটওয়ার্ক কানেক্টিভিটি ছাড়াও সংস্থাটি যেভাবে ব্যাটারি ক্যাপাসিটি উন্নত করার কথা ভাবছে তা সত্যিই প্রশংসনীয়!