Xiaomi কে পিছনে ফেললো Apple, বিশ্বের বৃহত্তম স্মার্টফোন ব্র্যান্ড এখনও Samsung

গ্লোবাল স্মার্টফোন শিপমেন্টের শীর্ষে আছে Samsung এবং সর্বোচ্চ মুনাফা অর্জনকারী সংস্থার তকমা পেলো Apple

samsung-tops-global-smartphone-shipment-apple-highest-operating-profit-in-q3-q2-counterpoint-canalys

বাজারে শীর্ষস্থান পাওয়ার জন্য স্মার্টফোন কোম্পানিগুলির মধ্যে প্রতিযোগিতার কথা নতুন নয়। প্রতিটি কোম্পানি একে অন্যকে টেক্কা দিতে তাদের নিজস্ব মার্কেট স্ট্র্যাটেজি বানায়। এতে কেউ সফল হয় আবার কেউ অসফলও। সেই হিসেবে চলতি বছরের তৃতীয় কোয়ার্টারে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) Samsung পুরোপুরি সফল। আসলে উল্লেখিত সময়ে দক্ষিণ কোরিয়ান কোম্পানিটি গ্লোবাল স্মার্টফোন শিপমেন্ট সেগমেন্টে শীর্ষে অবস্থান করছে। অন্যদিকে, Apple, ২০২১ সালের দ্বিতীয় কোয়ার্টারে (এপ্রিল-জুন) অপারেটিং প্রফিট সেকশনে সবার উপরে রয়েছে। এই দাবিগুলির নেপথ্যে কিন্তু আমরা নই, বরং বেশ কয়েকটি শীর্ষস্থানীয় মার্কেট রিসার্চার ফার্ম এমনই জানিয়েছে।

২০২১ সালে গ্লোবাল স্মার্টফোন শিপমেন্টের শীর্ষে আছে Samsung এবং সর্বোচ্চ মুনাফা অর্জনকারী সংস্থার তকমা পেলো Apple

ফার্মগুলির রিপোর্ট অনুযায়ী, গ্লোবাল স্মার্টফোন শিপমেন্টের হার গত বছর অর্থাৎ ২০২০ সালের তুলনায় ২০২১ সালের তৃতীয় কোয়ার্টারে এসে ৬% হ্রাস পেয়েছে। তা সত্ত্বেও, Samsung কিন্তু ধারাবাহিক ভাবে তাদের ২৩% মার্কেট শেয়ারকে ধরে রাখতে সফল হয়েছে। আবার, দ্বিতীয় স্থানে থাকা Apple এর মার্কেট শেয়ার পূর্ববর্তী ২টি কোয়ার্টার থেকে ৩% বৃদ্ধি পেয়েছে, বলেও শোনা যাচ্ছে। যাইহোক, স্মার্টফোন শিপমেন্ট সেগমেন্টে প্রথম স্থান হাতছাড়া হয়ে গেলেও, চলতি বছরের দ্বিতীয় কোয়ার্টার ৭৫% অপারেটিং প্রফিটের সাথে Apple সবথেকে এগিয়ে আছে।

শীর্ষস্থানীয় গ্লোবাল টেকনোলজি মার্কেট অ্যানালিস্ট ফার্ম Canalys, ২০২০ সালের দ্বিতীয় কোয়ার্টার থেকে চলতি বছরের তৃতীয় কোয়ার্টার অবধি ২৩% মার্কেট শেয়ার ধরে রাখার কারণে স্যামসাংকে গ্লোবাল স্মার্টফোন শিপমেন্টের ‘নৃপতি’ তকমা দিয়েছে। যেখানে কিনা, কোভিড-১৯ অতিমারীর দাপটে গত দেড় বছরে কম্পোনেন্ট ঘাটতির ফলে গ্লোবাল স্মার্টফোন মার্কেটে শিপমেন্টের হার সামগ্রিকভাবে ৬% কমে গিয়েছিল। এমত পরিস্থিতিতেও, সামসাং যে তাদের জায়গা বজায় রাখতে পেরেছে তা সত্যি কৃতিত্বের।

যাইহোক, গত বছরের তুলনায় এই বছরে অ্যাপলের স্মার্টফোন শিপমেন্টের মার্কেট শেয়ারের হার ১২% থেকে উন্নীত হয়ে ১৫% হয়ে গেছে। এই সেগমেন্টে, ১৪% স্কোরের সাথে তৃতীয় স্থানে আছে শাওমি (Xiaomi)। গত বছরেও সংস্থাটির মার্কেট শেয়ার এক সমান ছিল, ফলে কোনো উন্নতি দেখা যায়নি। ভিভো (Vivo) এবং ওপ্পো (Oppo) সংস্থা দুটি যৌথ ভাবে ১০% মার্কেট শেয়ারের সাথে টপ-৫ তালিকায় নিজেদের নাম লিখিয়েছে। জানিয়ে রাখি, উক্ত চীনা সংস্থাদ্বয়ের মার্কেট শেয়ার, ইয়ার-অন-ইয়ার বা YoY গ্রোথের হিসাবে মাত্র ১% বৃদ্ধি পেয়েছে ২০২১ সালের তৃতীয় কোয়ার্টারে এসে।

Counterpoint একটি সাম্প্রতিক রিপোর্টে জানিয়েছে, চলতি বছরের দ্বিতীয় কোয়ার্টারে ‘টপ’ অপারেটিং প্রফিট এবং রেভিনিউ জেনারেটর সংস্থা হলো অ্যাপল। সেক্ষেত্রে, সংস্থাটি গ্লোবাল স্মার্টফোন মার্কেটের ৭৫% অপারেটিং প্রফিট এবং ৪০% রেভিনিউ আয়ত্ত করেছে। রিপোর্টে বলা হয়েছে, মূলত iPhone 13 লঞ্চ করার পরেই অ্যাপলের অপারেটিং প্রফিট ও রেভিনিউয়ের গ্রাফ উপরে উঠতে থাকে।

মার্কেট রিসার্চ কোম্পানিটি তাদের রিপোর্টে আরো উল্লেখ করেছে যে, শিপমেন্টের ক্ষেত্রে Samsung কে টক্কর দেওয়া না গেলেও, অপারেটিং প্রফিটে Samsung-এর স্থান কিন্তু দ্বিতীয়তে। আমরা যদি পূর্ববর্তী রেকর্ড ঘেঁটে দেখি, তবে ২০১৯ সালের চতুর্থ কোয়ার্টারে এবং ২০২০ সালের দ্বিতীয় কোয়ার্টারে Huawei কথিত সেগমেন্টে স্যামসাংকে পেছনে ফেলে দিয়েছিলো। তদুপরি, Apple ও Samsung-এর পর, Xiaomi, Oppo এবং Vivo সংস্থা-ত্রয়ী ২০২১ সালের দ্বিতীয় কোয়ার্টারে সর্বাধিক রেভিনিউ পেয়েছে।

কাউন্টারপয়েন্টের রিপোর্ট বলছে, Xiaomi বিগত কয়েক কোয়ার্টার ধরে তাদের গ্লোবাল স্মার্টফোন শিপমেন্টের সংখ্যা বাড়ানোর প্রতি বিশেষ মনোযোগী। এখন, এই চীনা OEM (Original equipment manufacturer) তাদের ‘হাই ভলিউম’ বিজনেসকে ‘হাই প্রফিটেবল’ বিজনেসে রূপান্তর করার লক্ষে অগ্রসর।

অ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

শুভেচ্ছা বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী। তিনি একদিকে যেমন ফটোগ্রাফার, তেমনি পাশাপাশি লেখিকাও। এছাড়াও তার শখের মধ্যে আছে বই পড়া, গান গাওয়া, ছবি আঁকা এবং ওয়েব ডিজাইন। শুভেচ্ছা আমাদের টেকগাপ পরিবারের একজন নতুন সদস্য।