তিনটি ক্যামেরা সহ লঞ্চ হল Samsung W21 5G ফোল্ডিং ফোন

গতবছর চীনে লঞ্চ করা Samsung W20 5G স্মার্টফোনের উত্তরসূরী হিসেবে Samsung পেশ করলো W21 5G ফোল্ডেবল স্মার্টফোন। যদিও এটি কোনো নতুন ফোন নয়, কারণ এই ফোনটি আদতে কিছুদিন আগে গ্লোবাল মার্কেটে লঞ্চ হওয়া Samsug Galaxy Z Fold 2-এর চাইনিজ ভার্সান। গতবছরও Samsug তাদের Galaxy Fold এর চাইনিজ ভার্সন হিসাবে W20 5G লঞ্চ করেছিল। এবছরও দক্ষিণ কোরিয়ান কোম্পানিটি সেই রীতি বজায় রেখেছে। তবে গালাক্সি জেড ফোল্ড ২ ও ডব্লিউ২১ ৫জি ফোনের ডিজাইন বা স্পেসিফিকেশন একই রকম হলেও এদের মধ্যে সামান্য পার্থক্য রয়েছে। যেমন- এর ব্যাক প্যানেলের ডিজাইন ভিন্ন। প্যানেলের ওপর থেকে নীচ পর্যন্ত ভার্টিকাল লাইন নেমে এসেছে এবং সেইসঙ্গে প্রিমিয়াম লুক দেওয়ার জন্য এটিকে গ্লিটার গোল্ড নামে নতুন একটি রঙে আনা হয়েছে। আবার এই ফোনে দুটি রেগুলার ন্যানো সিম কার্ড স্লট রয়েছে, যেখানে Galaxy Z Fold 2 ফোনে ই-সিম কনফিগারের সুবিধা ছিল।

Samsung W21 5G এর দাম

চীনের মার্কেটে এই ফোনের দাম রাখা হয়েছে ১৯,৯৯৯ ইউয়ান (প্রায় ভারতীয় মুদ্রায় ২.২৩ লক্ষ টাকা। এটি ১২ জিবি + ৫১২ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টে উপলব্ধ। ফোনটি এখন প্রি-বুকিংও করা যাচ্ছে।

জানিয়ে রাখি ভারতে স্যামসাং গ্যালাক্সি জেড ফোল্ড ২ এর দাম ১,৪৯,৯৯৯ টাকা। এই দাম ফোনটির ফোনটি ১২ জিবি র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজের।

Samsung W21 5G এর স্পেসিফিকেশন

আগেই বলেছি স্পেসিফিকেশনের দিক থেকে Samsung W21 5G হচ্ছে Samsug Galaxy Z Fold 2-এর সাথে সম্পূর্ণরূপে সাদৃশ্যক্ত। আনফোল্ড করলে এর ৭.৬ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস ডায়নামিক অ্যামোলেড ইনফিনিটি O ডিসপ্লে দেখা যাবে। ডিসপ্লের পিক্সেল রেজোলিউশন ১,৭৬৮ x ২,২০৮ এবং রিফ্রেশ রেট ১২০ হার্টজ। আবার ফোনটি ফোল্ড করলে ৬.২ ইঞ্চি সুপার অ্যামোলেড ইনফিনিটি ফ্লেক্স ডিসপ্লে দৃশ্যমান হয়। এর রেজোলিউশন ৮১৬x২২৬০ পিক্সেল।

ফটোগ্রাফির জন্য ফোনের পিছনে আছে ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ। যার প্রাইমারি সেন্সর এফ/১.৮ অ্যাপারচার সহ ১২ মেগাপিক্সেল। এছাড়াও আছে ২.২ অ্যাপারচার সহ ১২ মেগাপিক্সেলের আলট্রা ওয়াইড এঙ্গেল লেন্স এবং ১২ মেগাপিক্সেলের টেলিফটো লেন্স, যা পিডিএফ, ওআইএস, ২x অপটিকাল জুম এবং ১০x পর্যন্ত ডিজিটাল জুম সাপোর্ট করে। সেলফির জন্য রয়েছে ১০ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

এই ফোল্ডিং ফোনে পাবেন অক্টা কোর কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫ প্লাস প্রসেসর। এছাড়াও আছে ১২ জিবি LPDDR5 র‌্যাম এবং ৫১২ জিবি UFS 3.1 অন বোর্ড স্টোরেজ। এতে ডলবি এটমসের সাথে স্টিরিও স্পিকার আছে। অপারেটিং সিস্টেম হিসাবে এতে আছে অ্যান্ড্রয়েড ১০ বেসড ওয়ানইউআই ২.৫ স্কিন। আবার সিকিউরিটির জন্য ফোনের পাশে রাখা হয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। ফোনে ২৫ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং এবং ১১ ওয়াট ওয়্যারলেস চার্জিং সাপোর্ট সহ ৪,৫০০ এমএএইচ ব্যাটারি আছে।