তথ্য ফাঁসের আশঙ্কা ৯ কোটি আরোগ্য সেতু অ্যাপ ব্যবহারকারীর? হ্যাকারকে কি জবাব দিল ডেভেলপাররা

সুরক্ষিত নয় ব্যবহারকারীদের ডেটা, ফের একবার এই অভিযোগ এল Aarogya Setu অ্যাপের বিরুদ্ধে। যদিও সরকারের তরফে এই অভিযোগ পুরোপুরি উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। ফরাসি এথিক্যাল হ্যাকার Elliot Alderson এই অভিযোগ করেছেন। তিনি জানিয়েছেন ইতিমধ্যেই আরোগ্য সেতুর ডাউনলোড সংখ্যা ৯ কোটি ছাড়িয়েছে, তবে এই অ্যাপের ব্যবহাকারীদের ডেটা মোটেই সুরক্ষিত নেই। যদিও এরপরেই আরোগ্য সেতু অ্যাপের ডেভেলপাররা বিবৃতি দিয়ে এই অভিযোগ খারিজ করেছে। তারা জানিয়েছে, ‘কোনও ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য বিপদে নেই।’

প্রসঙ্গত অল্ডারসন একটি টুইটে লিখেছিলেন, ‘আপনাদের আরোগ্য সেতু অ্যাপ্লিকেশনটিতে একটি সুরক্ষা ত্রুটি খুঁজে পাওয়া গেছে। এরফলে নয় কোটি ভারতীয়ের গোপনীয়তা বিপদে রয়েছে। আপনারা কি আমার সাথে প্রাইভেট যোগাযোগ করবেন? ‘ প্রায় ৫০ মিনিট পরে তিনি আরও একটি টুইট করে বলেছিলেন, ‘ইন্ডিয়ান কম্পিউটার ইমার্জেন্সি রেসপন্স টিম এবং ন্যাশনাল ইনফরম্যাটিকস সেন্টার আমার সাথে যোগাযোগ করেছিল। তাদের সমস্যার কথা জানিয়েছে।

এরপরেই আরোগ্য সেতু ডেভেলপাররা জানিয়েছেন, আমরা ক্রমাগত আমাদের সিস্টেমটিকে পরীক্ষা করে দেখছি এবং উন্নত করছি। টিম আরোগ্য সেতু সবাইকে আশ্বাস দেয় যে কোনও তথ্যের সুরক্ষা লঙ্ঘন খুঁজে পাওয়া যায়নি।’

আপনাকে জানিয়ে রাখি গত ২ এপ্রিল ভারত সরকার করোনা ভাইরাস ট্র্যাকিং অ্যাপ হিসাবে একটি অ্যাপ লঞ্চ করেছিল যার নাম আরোগ্য সেতু। এই অ্যাপটি ব্যবহার করা হচ্ছে করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে দেশকে সুরক্ষিত করার জন্য। এই অ্যাপ্লিকেশনটি ব্লুটুথ এবং লোকেশন ডাটা ব্যবহার করে ব্যবহারকারীর ডিভাইসকে ট্র্যাক করে এবং তাদের চলাচল পর্যবেক্ষণ করে।

যদি কোনো ব্যক্তির কখনো করোনাভাইরাস পজিটিভ এসে থাকে তাহলে, গত ১৪ দিন ধরে যারা তার সংস্পর্শে এসেছিলেন তাদেরকে নোটিফাই করা হয়। এছাড়াও এই অ্যাপ্লিকেশনে কাছাকাছি থাকা টেস্টিং সেন্টার এবং কোয়ারেন্টাইন সেন্টারের ডিটেইলসও রয়েছে। শুধু তাই নয় এটি একটি চ্যাটবট এর মাধ্যমে ব্যবহারকারীদের সুরক্ষিত থাকার পরামর্শ দেয়।

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।