সিম সোয়াপ জালিয়াতিতে ২.২ লক্ষ টাকা খোয়ালেন ৩৯ বছর বয়সি মহিলা, কিভাবে বাঁচবেন

SIM card fraud chartered accountant lost 2.2 lakh rupees how to save

ভারতে দ্রুত বাড়ছে সিম কার্ড সোয়াপ বা সিম কার্ড ক্লোনিং স্ক্যাম। এর আগেও বহুমানুষ কে এই কায়দায় ফাঁসিয়েছে জালিয়াতরা। এবার পুনের এক ৩৯ বছর বয়সি চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট (CA) এর থেকে ২.২ লক্ষ টাকা হাতালো জালিয়াতরা। প্রতারকরা তার ৩জি সিমকে ৪জি সিমে আপগ্রেড করে দেওয়ার কথা বলে ফাঁসিয়ে ছিল। তারা ওই মহিলা চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট এর সিম কার্ড ক্লোন করে এবং ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে সমস্ত টাকা ট্রান্সফার করে নেয়।

কিভাবে ঘটলো পুরো ঘটনা

জালিয়াতরা ওই মহিলাকে টেলিকম সংস্থার কর্মচারী বলে ফোন করেছিলে। কলে তারা মহিলা কে বলেছিল যে তিনি (সিএ) যে ৩জি সিম কার্ড ব্যবহার করছেন, তা ৪জি-তে আপগ্রেড না করলে বন্ধ হয়ে যাবে। মহিলা এই শুনে ভয় পেয়ে সিম কার্ড আপগ্রেড করতে রাজি হলে, জালিয়াতরা মহিলার কাছ থেকে সমস্ত বিবরণ নিয়ে ২০ সংখ্যার একটি নম্বর। এরপর তারা ওই মহিলা কে জানিয়েছিল ওই নম্বরে ক্লিক করতে। এরপর যেই না নম্বরে ক্লিক করা, সাথে সাথেই সিম কার্ডটি ব্লক হয়ে যায় এবং প্রতারক একই নম্বরের অন্য একটি সিম কার্ড ক্লোন করে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা ট্রান্সফার করে নেয়।

সিম সোয়াপ বা সিম ক্লোন আসলে কি

এটির মূল অর্থ নম্বর এক রেখে সিম কার্ড পরিবর্তন। এতে, হ্যাকাররা আপনার সিমটি ব্লক করে এবং তাদের কাছে ওই একই নম্বর অ্যাক্টিভ করে। আর এই নম্বর যদি আপনার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের সাথে লিঙ্ক থাকে, তবে হ্যাকাররা সুবিধা পেয়ে যায়। তারা ব্যাংকের অ্যাক্সেস নিয়ে ক্লোন করা সিমে ওটিপি পাঠায়। যেহেতু নম্বরটি তাদের কাছেই সক্রিয় আছে, তাই সহজেই সেই ওটিপি সাবমিট করে অ্যাকাউন্ট খালি করে দেয়।

সিম সোয়াপ বা ক্লোন থেকে কিভাবে বাঁচবেন

সাধারণত, প্রতারকরা আপনাকে সিম কার্ড আপগ্রেড, নেটওয়ার্ক উন্নতি বা টেলিকম সম্পর্কিত অন্যান্য পরিষেবা দেওয়ার নামে ফাঁসিয়ে থাকে। এমন পরিস্থিতিতে অচেনা কাউকে কোনও তথ্য না দেওয়াই ভাল। আপনি যদি সিম কার্ডটি আপগ্রেড করতে চান তবে অফিসিয়াল স্টোরে যান। এছাড়াও কোনও অজানা নম্বর থেকে আসা লিংকে ক্লিক করবেন না।