চীন নয়, আসছে মেড ইন ইন্ডিয়া টিভি! ১০ শতাংশ পর্যন্ত বাড়বে দাম

যতোই ওটিটি প্ল্যাটফর্ম হটস্টার বা নেটফ্লিক্স আসুক, টেলিভিশনের জনপ্রিয়তা কমেনি। কিন্তু দূরদর্শনপ্রেমীদের জন্য রয়েছে দুঃসংবাদ! পরের মাস থেকে দাম বাড়তে পারে টিভির। আসলে চীনের সাথে চলমান উত্তেজনার প্রভাব পড়েছে টিভি প্যানেলের সাপ্লাইয়ের ওপরও, ফলে টেলিভিশন ৫-১০% ব্যয়বহুল হতে পারে এমনটাই মনে করছেন Thomson TV-র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা অবনীত সিং মারওয়াহ। একটি সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন ৩২ ইঞ্চি টেলিভিশনের দাম বাড়তে পারে ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা। ৫% থেকে ১০% অবধি বাড়তে পারে ৪৩ ইঞ্চি টেলিভিশনের দাম।

অবনীত জানিয়েছেন বর্তমানে টিভি প্যানেলগুলি চীন, দক্ষিণ কোরিয়া, ভিয়েতনাম এবং তাইওয়ান থেকে আমদানি করা হয়। একটি টিভির যা দাম তার ৬০-৭০ শতাংশ দাম প্যানেলের হয়ে থাকে। তিনি মনে করেন এদেশে যদি টিভি প্যানেলগুলি তৈরি শুরু হয় তাহলে ইন্ডাস্ট্রি প্রচুর সহায়তা পাবে। এর ফলে টিভির দাম হ্রাস পাবে। একটি টিভি প্যানেল তৈরির কারখানায় ১০ থেকে ১৫ হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগ প্রয়োজন। তাই এমন পরিস্থিতিতে একটি টিভি প্যানেল তৈরির কারখানা স্থাপনে সরকারের সহায়তা দরকার।

সংস্থাটি, দেশের কনসিউমার ইলেকট্রনিক অংশে তাদের অবস্থান আরো জোরদার করতে চায়। অবনীত জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রীর ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ প্রকল্পের আওতায় সংস্থাটি আগামী পাঁচ বছরে এক হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে। তারা ধারাবাহিকভাবে প্রিমিয়াম সাশ্রয়ী পণ্য আনতে চলেছে। অবনীত আরো বলেছেন, ফিচার এবং কোয়ালিটির দিক থেকে তাদের প্রোডাক্ট কোনো অংশে পিছিয়ে নেই। জানিয়ে রাখি, জনপ্রিয় টিভি নির্মাতা এই সংস্থাটি সম্প্রতি ওয়াশিং মেশিন লঞ্চ করেছে। আপাতত থমসন ব্র্যান্ডের তিন রকম সাইজের সেমি অটোমেটিক মেশিন পাওয়া, যার দাম শুরু হয়েছে ৬৯৯৯ টাকা থেকে।

বর্তমান পরিস্থিতিতে চাইনিজ পণ্যের ওপর ভারতবাসীর ক্ষোভ সম্পর্কে নতুন করে বলার কিছু নেই। অবনীত মনে করছেন এই ঘটনায় নন-চীনা ব্র্যান্ডগুলি উপকৃত হবে। তাই তারা প্রোডাক্টের গুণমান এবং টেকনোলজির ওপর গুরুত্ব দিচ্ছেন। তাদের লক্ষ্য গ্রাহকদের কাছে সাশ্রয়ী মূল্যে উন্নত বিকল্প পৌঁছে দেওয়া।