পূজার সময় দাম বাড়তে পারে স্মার্টফোনের, জেনে নিন কারণ

Smartphone price may increase ahead of festive season

এই বছর নতুন স্মার্টফোনের পাশাপাশি বেশ কিছু ব্র্যান্ডের পুরনো ডিভাইসগুলিরও কিছুটা দাম বেড়েছে। তবে শোনা যাচ্ছে আগামী দিনে ভারতের বাজারে আরো ব্যয়বহুল হতে চলেছে স্মার্টফোন। আসলে, বেশির ভাগ সাপ্লায়ার স্মার্টফোনের মূল কম্পোনেন্টগুলির দাম ১৫% পর্যন্ত বাড়িয়েছে। ফলে বিভিন্ন ব্র্যান্ড নিজেদের আয়ের পরিমাণ ঠিক রাখতে স্মার্টফোনের দাম ২৫ শতাংশ বাড়াতে পারে। এমনকি ই-কমার্স প্ল্যাটফর্মগুলির সেলে স্মার্টফোন কিনতে চাইলে আগের মত ছাড় বা অফার নাও পাওয়া যেতে পারে।

উৎসবের মরসুমে এবং বিভিন্ন সেলগুলিতে প্রচুর স্মার্টফোন বিক্রি হয়। এতদিন অবধি ১৫ই আগস্টে, দুর্গাপুজোর আগে এবং দীপাবলিতে বেশ কিছু সেলের আয়োজন করত Flipkart বা Amazon এর মতো ই-কমার্স প্ল্যাটফর্মগুলি। কিন্তু এই বছর স্বাধীনতা দিবসে তেমন কোনো জোরদার সেল দেখা যায়নি। তাই ক্রেতারা আগামী সেলগুলির জন্য অপেক্ষা করে আছে। তবে সেই সেলগুলিতেও বিশেষ কোনো ছাড় থাকবেনা বলেই মনে করা হচ্ছে।

এদিকে, Xiaomi, OPPO, Vivo, Realme বা OnePlus-এর মত সংস্থাগুলিও উৎসব বা পার্বণগুলিতে বেশি বিক্রির প্রত্যাশা করছে। অনেকে মনে করছেন, সংস্থাগুলি ইতিমধ্যেই বিক্রয়ের জন্য ডিভাইসের তালিকা প্রস্তুত করছে এবং উৎপাদন বাড়াচ্ছে। তবে দাম কমানোর বিষয়ে তাদের আপাতত কোনো ভাবনা নেই।

হংকং-বেসড ব্র্যান্ড নুউ মোবাইলস (Nuu Mobiles)-এর এক কর্মকর্তা নূর আলী জহগির বলছেন, চীনের LCD/LED সাপ্লায়াররা কম্পোনেন্টের দাম ১৫ শতাংশ বাড়িয়েছে। ফলে ৫ ইঞ্চি, ৫.৫ ইঞ্চি স্ক্রিন এবং ৭ ইঞ্চি স্ক্রিন সাইজের স্মার্টফোনগুলিতে ৩-৪ ডলার দাম বাড়তে পারে। এক্ষেত্রে, সস্তা ফোনের দাম ১৫০ থেকে ২০০ টাকা বাড়তে পারে, অন্যদিকে দামি ফোনগুলির দাম ৩৮০-৪০০ টাকা পর্যন্ত বাড়তে পারে।

আসন্ন উৎসবের মরসুমে স্মার্টফোনগুলিতে পার্টসের মূল্যবৃদ্ধির প্রভাব না থাকলেও আগের মতো ছাড় এবং অফার পাওয়া যাবে এমনটা আশা না করাই ভালো। এমনিতেই লকডাউনের জন্য স্মার্টফোন কোম্পানিগুলির বেশ লোকসান হয়েছে, ফলে ফোন কিনলে কোনোরকম ছাড় পাওয়া যাচ্ছেনা। আবার জিএসটি বাড়ায় দাম বেড়েছে পুরানো ফোনগুলির। সুতরাং আপনি যদি নতুন ফোন কিনতে চান, তবে আপনাকে মোটা টাকা খসাতেই হবে।