Homeস্মার্টওয়াচApple: গভীর খাদে পড়ে গিয়েও বেঁচে ফিরলো যুবক, রক্ষাকর্তা হয়ে উঠলো হাত ঘড়ি

Apple: গভীর খাদে পড়ে গিয়েও বেঁচে ফিরলো যুবক, রক্ষাকর্তা হয়ে উঠলো হাত ঘড়ি

গুরুতর দুর্ঘটনা থেকে সেরে ওঠার পর মুম্বাই নিবাসী স্মিত মেহতা অ্যাপল সংস্থার সিইও টিম কুককে একটি ইমেল পাঠান। যেখানে অ্যাপল ওয়াচ সিরিজ ৭ স্মার্টওয়াচটি কীভাবে তাকে এই আকস্মিক দুর্ঘটনার কবল থেকে নিরাপদে বের করে নিয়ে এসেছে তার বিশদ দেওয়া ছিল

আজকাল প্রায়শই অ্যাপল ওয়াচের (Apple Watch) জীবন রক্ষার কাহিনী ইন্টারনেটে ঘোরাফেরা হতে দেখা যায়। তবে এবার যে ঘটনাটি সামনে এসেছে তার সাথে জড়িত আছে খাস ভারতের এক কিশোর। জানা গেছে, হাইকিং করতে গিয়ে এক মুম্বাই নিবাসী পা পিছলে ১৫০ ফুট গভীর খাদে পরে যান। কিন্তু কব্জিতে বাঁধা Apple Watch Series 7 সঙ্গে থাকায় তিনি সাহায্যের জন্য পরিবার এবং বন্ধুদের তৎক্ষণাৎ ডাকতে পেরেছিলেন। আর তাই গভীর খাদে পড়ে গিয়ে গুরুতর জখম হওয়ার পরও এই গল্পের নায়কের জীবিত অবস্থায় বেরিয়ে আসা সম্ভব হয়েছিল। যদি অ্যাপলের ওয়াচটি সাথে না থাকতো, তাহলে দীর্ঘ সময় ধরে খাদে আটকে থাকার দরুন হয়তো প্রাণ খোয়াতে হত এই কিশোরকে।

Apple Watch এর দৌলতে গভীর খাদে পরে গিয়েও স্বশরীরে বেঁচে ফিরলো ভারতের এক যুবক

মহারাষ্ট্রের রাজধানী মুম্বাই থেকে প্রায় ৮০ কিলোমিটার দূরে লোনাভালায় বসবাসকারী স্মিত মেহতা নামক এক কিশোর তার বন্ধুদের সাথে হাইকিং করতে গিয়েছিলেন। বৃষ্টির কারণে রাস্তা পিচ্ছিল হয়ে যাওয়াতে, ফেরার সময় পা পিছলে সে গভীর খাদে পড়ে যায়। গড়িয়ে পড়ার সময়ে গাছে আটকে পড়ায় তিনি প্রাণে বেঁচে গেলেও, একটি বড় পাথরে ধাক্কা লেগে তার পা ভেঙে যায়। আর ঘটনার আকস্মিকতায় তার হাতে থাকা আইফোনটিও ছিটকে হারিয়ে যায়। এমত অবস্থায় স্মিতের কব্জিতে অ্যাপল ওয়াচটি অক্ষত থাকায়, তিনি এই ওয়্যারেবলের সাহায্যে পরিবার ও বন্ধুদের সাথে যোগাযোগ স্থাপনে এবং যথাযথ লোকেশন শেয়ারে সক্ষম হয়েছিলেন। যদি সেদিন অ্যাপল ওয়াচ স্মিথের সঙ্গে না থাকতো, তাহলে হয়তো দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করার দরুন পরিণাম মারাত্মক প্রমাণিত হতে পারতো।

স্মিত মেহতা অ্যাপল ওয়াচের মাধ্যমে তার বন্ধু-বান্ধবদের নিজের অবস্থা সম্পর্কে জানায়। যারপর তারা স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় স্মিথকে খাদ থেকে টেনে বের করে এবং পরবর্তীতে তিনি দীর্ঘদিন হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। বর্তমানে চিকিৎসার পর এই কিশোরের অবস্থার উন্নত হয়েছে। যদিও পা ফ্রাকচার হয়ে যাওয়ায় এই মুহূর্তে তাকে ক্র্যাচের সাহায্যে হাটতে হচ্ছে। যাইহোক অ্যাপলের ওয়াচগুলিতে সমন্বিত এসওএস (SOS) বৈশিষ্ট্যটি যে শুধুমাত্র ফিচার তালিকা দীর্ঘ করার জন্য উপস্থিত নেই, বরং ইউজারের জীবন বাঁচানোর জন্যও যথেষ্ট কার্যকর তা এই ঘটনা আবারো প্রমান করে দিয়েছে।

টিম কুককে সরাসরি ইমেল পাঠিয়ে Apple Watch দ্বারা উদ্ধার হওয়ার কাহিনী শেয়ার করেছেন স্মিথ

প্রসঙ্গত, এই গুরুতর দুর্ঘটনা থেকে সেরে ওঠার পর মুম্বাই নিবাসী স্মিত মেহতা অ্যাপল সংস্থার সিইও টিম কুককে একটি ইমেল পাঠান। যেখানে অ্যাপল ওয়াচ সিরিজ ৭ স্মার্টওয়াচটি কীভাবে তাকে এই আকস্মিক দুর্ঘটনার কবল থেকে নিরাপদে বের করে নিয়ে এসেছে তার বিশদ দেওয়া ছিল। স্মিত প্রেরিত এই ইমেলের প্রত্যুত্তরে, টিম কুক প্রতিক্রিয়া স্বরূপ গল্পটি শেয়ার করার জন্য তাকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। উক্ত টেক জায়ান্টটির সিইও প্রতিবার নয়া ওয়্যারেবল লঞ্চ হওয়ার সময়ে বা কোনো প্রেজেন্টেশন দেখানো কালীন বারংবার অ্যাপল ওয়াচের ‘লাইভ সেভিং’ ক্ষমতার কথা উল্লেখ করেন। আর লেটেস্ট আপডেটের সঙ্গে ওয়াচগুলিতে নতুন এসওএস (SOS) ফিচার যুক্ত হওয়ায়, এখন প্রত্যেক ইউজাররা তাদের স্বাস্থ্য ও প্রাণের চিন্তা অ্যাপল ওয়াচের হাতে ছেড়ে নিশ্চিন্তে লাইফ ডিল করতে পারবেন বলে আমাদের বিশ্বাস।

আরও পড়ুন