এক মিনিটে ডাউনলোড হবে সিনেমা, Starlink স্যাটেলাইট ইন্টারনেট সার্ভিসের নতুন নজির

Startlink satellite internet service speed same like fixed broadband says report
Starlink স্যাটেলাইট ইন্টারনেট সার্ভিস ফিক্সড ব্রডব্যান্ডের মতো স্পিড দিচ্ছে

বর্তমান প্রযুক্তি-ইন্টারনেট নির্ভর জীবনে বিশেষত এই করোনা পরিস্থিতিতে দ্রুত ইন্টারনেট স্পিড এখন একান্ত প্রয়োজনীয় বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। কয়েকটা ক্লিক আর ঠিকঠাক ইন্টারনেট স্পিডের ওপর ভিত্তি করেই কাটছে দিন-রাত! সেক্ষেত্রে এবার এমন একটি চমকপ্রদ খবর সামনে এসেছে, যা ইন্টারনেটের পোকাদের এই রোজকার রুটিনে খুব সহজেই অনন্য মাত্রা যোগ করবে বলে অনুমান করা হচ্ছে। আসলে সুপরিচিত টেস্টিং ওয়েবসাইট Speedtest (স্পিডটেস্ট), নিজের সাম্প্রতিক প্রতিবেদনে দাবি করেছে যে, এলন মাস্কের মালিকানাধীন স্পেস এক্সপ্লোরেশন টেকনোলজি কোম্পানি SpaceX (স্পেসএক্স), ইন্টারনেটের স্পিডকে একটি নতুন স্তরে নিয়ে গেছে। সোজা ভাষায় বললে, সংস্থাটির ‘Starlink’ (স্টার লিঙ্ক) স্যাটেলাইট ইন্টারনেট সার্ভিস, প্রচলিত ব্রডব্যান্ড পরিষেবার মত (অনেক দেশের পরিষেবা চেয়ে দ্রুত) স্পিড সরবরাহ করে নজির গড়েছে।

Starlink স্যাটেলাইট ইন্টারনেট সার্ভিস কী?

স্টারলিঙ্ক আসলে স্পেসএক্স কোম্পানির একটি বিশেষ স্যাটেলাইট ইন্টারনেট প্রকল্প যা ২০১৯ থেকে ২০২৪ সাল পর্যন্ত সময়ে কার্যকরী থাকবে। এই পাঁচ বছরের নেটওয়ার্কিং পরিষেবার জন্য ইতিমধ্যেই ১,৬৫০টি স্যাটেলাইট কাজে লাগিয়েছে কোম্পানিটি।

Starlink স্যাটেলাইট ইন্টারনেট সার্ভিসের নতুন নজির

স্পিডটেস্টের রিপোর্ট অনুযায়ী, এই বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে মার্কিন বাজারে স্টার লিঙ্ক স্যাটেলাইট ইন্টারনেট পরিষেবার গড় ডাউনলোড স্পিড ছিল ৯৭.২৩ এমবিপিএস। এই পরিসংখ্যান মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ফিক্সড ব্রডব্যান্ডের গড় ডাউনলোড স্পিড ১১৫.২২ এমবিপিএসের অনেকটাই কাছাকাছি। সেক্ষেত্রে প্রায় ১০০ এমবিপিএসের এই ইন্টারনেটের স্পিডকে কাজে লাগিয়ে এক মিনিটে একটি সিনেমা ডাউনলোড করতে সক্ষম হবেন।

এদিকে, এই একই সময়ে দেশীয় বাজারে স্টারলিঙ্ক নেটওয়ার্কের আপলোড স্পিড ১৩.৮৯ এমবিপিএস ছিল বলে যা জানা গিয়েছে, যা বাজারের ফিক্সড ব্রডব্যান্ডের স্পিড ১৭.১৮ এমবিপিএসের চেয়ে মাত্র কিছুটা পিছিয়ে। সব মিলিয়ে ডাউনলোড স্পিড এবং আপলোড স্পিডের দিক থেকে স্পেসএক্স স্টারলিঙ্ক নেটওয়ার্ক মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বাজারের প্রতিযোগিতায় হিউজেসনেট (HughesNet) এবং ভায়াস্যাট (Viasat)-এর মত ব্রডব্যান্ড সার্ভিস প্রোভাইডারকে যে অনেকটাই পেছনে ফেলেছে, তাও নিশ্চিত হয়েছে রিপোর্টে।

শুধু তাই নয় কানাডা, নিউজিল্যান্ড এবং যুক্তরাজ্যের মতো বাজারেও স্টারলিঙ্ক ইন্টারনেট পরিষেবার গতি নির্দিষ্ট ব্রডব্যান্ডের তুলনায় ভালো ফল করেছে। রিপোর্ট বলছে, কানাডায় এই বছরের দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে স্টার লিঙ্ক নেটওয়ার্কের গড় ডাউনলোড স্পিড ছিল ৮৬.৯২ এমবিপিএস, যেখানে ফিক্সড ব্রডব্যান্ডের কাঁটা ৮৪.২৪ এমবিপিএসেই আটকে ছিল।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

A person who enjoys creating, buying, testing, evaluating and learning about new technology.