ট্যাবলেট

Redmi Pad কিনতে গিয়ে হুড়োহুড়ি, এক দিনে বিক্রি ছাড়ালো ৭৫ হাজার

গত ৪ঠা অক্টোবর বাছাই করা কয়েকটি আঞ্চলিক বাজার সহ বিশ্বব্যাপী আত্মপ্রকাশ করেছিল Xiaomi ব্র্যান্ডিংয়ের ‘ফার্স্ট এভার’ ট্যাবলেট Redmi Pad। যদিও চীনের বাজারে উক্ত ট্যাবলেটটি গত সপ্তাহেই প্রবেশ করেছে। কিন্তু লঞ্চ হওয়ার পরক্ষনেই যেরূপ মাইলস্টোন গড়েছে প্রোডাক্টটি, তা অবাক করার মতো। সংস্থার বিবৃতি অনুসারে, গ্লোবাল ট্যাবলেট মার্কেটের গ্রোথ ধীর (YoY) হওয়া সত্ত্বেও “Redmi Pad হোম-মার্কেটে হটকেকের মতো বিক্রি হচ্ছে।” Xiaomi -এর এরূপ মন্তব্যের কারণ কি চলুন জেনে নেওয়া যাক…

সেলের প্রথম দিনেই চীনে ৭৫,০০০ ইউনিটেরও অধিক বিক্রি হওয়ার দরুন রেকর্ড গড়লো Redmi Pad

শাওমি অধীনস্ত সংস্থা রেডমি সম্প্রতি ঘোষণা করেছে যে, লঞ্চ-পরবর্তী প্রথম সেল চলাকালীন রেডমি প্যাডের ৭৫,০০০টিরও বেশি ইউনিট বিক্রি হয়েছিল চীনের বাজারে, তাও মাত্র ২৪ ঘন্টার মধ্যেই। দেখতে গেলে, চলতি বছরের তৃতীয় কোয়ার্টারে (Q3) বৈশ্বিক ট্যাবলেট শিপমেন্টের ইয়ার-অন-ইয়ার বা YoY গ্রোথ ৮.৮% হ্রাসপ্রাপ্ত হয়েছে। ফলে এমত পরিস্থিতিতেও রেডমি আনীত ট্যাবটির এরূপ রেকর্ড পরিমাণ ‘সেল স্ট্রাকচার’ অর্জন করা যথেষ্টই অবাক করার মতো।

প্রসঙ্গত, রেডমি প্যাড এই মুহূর্তে গ্লোবাল মার্কেটে বিদ্যমান সর্বাধিক সাশ্রয়ী ট্যাবলেটগুলির মধ্যে একটি হওয়ার পাশাপাশি ‘বাজেট প্রাইজ সেগমেন্ট’ -এর অধীনে আসা সবচেয়ে বেশি ফিচার সমৃদ্ধ ডিভাইসও বটে। আর এই দুটি বিশেষত্বই হয়তো আলোচ্য ট্যাবলেটির চীনে বহুল পরিমাণে বিক্রি হওয়ার অন্যতম একটি কারণ হতে পারে।

জানিয়ে রাখি, চীনের বাজারে রেডমি প্যাডের ৪জিবি র‍্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ এবং ৬ জিবি র‍্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ কনফিগারেশনের দাম যথাক্রমে ১,২৯৯ ইউয়ান ও ১,৪৯৯ ইউয়ান রাখা হয়েছে। তবে ফার্স্ট সেলের অংশ হিসাবে এটিকে সীমিত সময়ের জন্য ১০০ ইউয়ান ডিসকাউন্টের সাথে বিক্রি করা হচ্ছে, যা হয়তো সেলকে আরো ত্বরান্বিত করেছে। এটি – গ্রে, সিলভার এবং গ্রীন কালারে উপলব্ধ।

এক্ষেত্রে জানিয়ে রাখি, ভারতের বাজারে রেডমি প্যাডকে মোট তিনটি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টে লঞ্চ করা হয়েছিল। এগুলি হল – ৩ জিবি র‌্যাম + ৬৪ জিবি স্টোরেজ, ৪ জিবি র‌্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ এবং ৬ জিবি র‌্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্ট। এদের দাম যথাক্রমে ১৪,৯৯৯ টাকা, ১৭,৯৯৯ টাকা ও ১৯,৯৯৯ টাকা।

রেডমি প্যাড স্পেসিফিকেশন ও ফিচার (Redmi Pad Specifications and Features)

রেডমি প্যাড ট্যাবে আছে একটি ১০.৬-ইঞ্চির WUXGA+ (২০০০ x ১২০০ পিক্সেল) IPS LCD ডিসপ্লে প্যানেল, যা ৯০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট এবং ১ বিলিয়ন কালার অফার করে। এছাড়া এই ডিসপ্লে এসজিএস আই প্রোটেকশন ও টিইউভি রেইনল্যান্ড সার্টিফিকেশন সহ এসেছে। পারফরম্যান্সের জন্য উক্ত ট্যাবলেটে ব্যবহার করা হয়েছে মিডিয়াটেক হেলিও জি৯৯ প্রসেসর, যা দুর্দান্ত গেমিং অভিজ্ঞতা দেবে বলে দাবি করেছে সংস্থা। এটি অ্যান্ড্রয়েড ১২ ভিত্তিক এমআইইউআই ১৩ কাস্টম স্কিনে রান করে। স্টোরেজ হিসাবে এতে ৬ জিবি পর্যন্ত LPDDR4X র‌্যাম ও ১২৮ জিবি পর্যন্ত UFS 2.2 রম পাওয়া যাবে। যদিও মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে ডিভাইসের ইন্টারনাল স্টোরেজ ১ টেরাবাইট পর্যন্ত বাড়ানো সম্ভব।

ছবি তোলার জন্য, Redmi Pad -এ ৮ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা ও ৮ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা উপস্থিত, যা ১০৫-ডিগ্রি ফিল্ড-অফ-ভিউ অফার করে। অন্যান্য বিশেষত্বের কথা বললে, উক্ত ডিভাইসে বিল্ট-ইন ডকুমেন্ট স্ক্যানার সহ ক্যামেরা অ্যাপ রয়েছে এবং এটি ডলবি অ্যাটমস টেকনোলজি সমর্থিত কোয়াড স্পিকার সিস্টেমের এসেছে। কানেক্টিভিটির জন্য এতে – ব্লুটুথ ৫.৩, ডুয়েল ব্যান্ড ওয়াই-ফাই ৫ এবং ইউএসবি টাইপ-সি পোর্ট অন্তর্ভুক্ত। আর পাওয়ার ব্যাকআপের ক্ষেত্রে, শাওমির এই ‘ফার্স্ট এভার’ ট্যাবলেটে ১৮ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সমর্থিত ৮,০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি আছে।

Back to top button