Homeঅ্যাপ্লিকেশনবিদেশি নয়, ব্যবহার করুন এই ৫টি দেশীয় ভিডিও কলিং অ্যাপ

বিদেশি নয়, ব্যবহার করুন এই ৫টি দেশীয় ভিডিও কলিং অ্যাপ

করোনা প্যান্ডেমিকের জন্য আমরা বাড়িতে থাকতে বাধ্য হচ্ছি। কিন্তু আমাদের কাজ বলুন কিংবা পড়াশোনা, কোনোটাই থেমে থাকলে চলবেনা।তাই অনলাইন কনফারেন্স বা ভিডিও কলে ক্লাস করতে আমরা বাধ্য হচ্ছি। আবার প্রিয়জনদের সাথে সংযুক্ত থাকতেও আমরা ভিডিও কলের ওপর নির্ভর করছি। ফলে Zoom, Google Meet, Microsoft Meet বা TeamLink-এর মত ভিডিও কলিং প্ল্যাটফর্মগুলির চাহিদা বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে আপনি যদি এই বিদেশি অ্যাপ্লিকেশনগুলি ব্যবহার করতে না চান বা এগুলির ভারতীয় বিকল্প খোঁজ করেন তাতে অসুবিধা নেই। আজ আমরা এই পোস্টে ৫টি ভারতীয় ভিডিও কলিং অ্যাপের কথা বলব, যা অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস উভয় প্ল্যাটফর্মেই ব্যবহার করা যাবে।

১. JioMeet:

রিলায়েন্স জিও সংস্থার জিওমিট বর্তমানে ভারতের জনপ্রিয় ভিডিও কলিং অ্যাপগুলির মধ্যে একটি। অ্যাপটির সাহায্যে HD অডিও এবং ভিডিও কল করা যাবে, এবং প্রতি কলিং সেশনে সর্বাধিক ১০০ জনকে নিয়ে ভিডিও কনফারেন্স করা যাবে। এতে কোনো কল লিমিট নেই। এটিতে মিটিং শিডিউল নির্ধারণ করা যাবে। গাড়ি চালাতে চালাতে ভিডিও কল করার জন্য রয়েছে সেফ ড্রাইভিং মোড। এছাড়া, জুম অ্যাপের সমস্ত ফিচার এটিতে পাওয়া যাবে। ম্যাক এবং উইন্ডোজ ব্যবহারকারীদের জন্যও এটি উপলব্ধ। JioMeet ব্যবহার করতে ইউজারদের তাদের ফোন নম্বর বা ইমেল আইডি দিয়ে একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে।

২. VideoMeet:

ভিডিওমিট অ্যাপ্লিকেশনটি রাজস্থানের আইটি ফার্ম, ডেটা ইনজিনিয়াস গ্লোবাল লিমিটেড তৈরি করেছে। এটি অ্যান্ড্রয়েড, আইওএস এবং ওয়েব প্ল্যাটফর্মের জন্য উপলব্ধ। এতে রয়েছে চ্যাটিং, রেকর্ডিং, স্ক্রিন শেয়ার, মিউজিক শেয়ার, ফ্লিপ ক্যামেরার মত কিছু মজাদার ফিচার। এটি বিনামূল্যে এবং খুব কম ডেটা খরচ করে ব্যবহার করা যাবে। এতে ইউজারের ভিডিও কলিং ডেটা পুরোপুরি এনক্রিপ্টেড থাকে।

৩. Say Namaste:

সে নমস্তে হল আরেকটি ভারতীয় ভিডিও কলিং অ্যাপ যা সম্প্রতি চালু হয়েছে। অ্যাপ্লিকেশনটির সাহায্যে আপনি ৫০ জনের সাথে ভিডিও এবং অডিও কল করতে পারবেন। এটি খুব সাধারণ, ব্যবহার করতে কোনো অ্যাকাউন্ট তৈরি করার প্রয়োজন নেই। অ্যাপটিতে ডকুমেন্টস, পিডিএফ, ছবি, ভিডিও ইত্যাদি ফাইল শেয়ার করা যায়। এই অ্যাপটিও অ্যান্ড্রয়েড, আইওএস এবং ওয়েব প্ল্যাটফর্মে উপলব্ধ।

৪. Floor:

ফ্লোর নামের ভিডিও কলিং প্ল্যাটফর্মটি ভারতীয় সংস্থা টেনটাইমস দ্বারা নির্মিত। এটি কোনো অ্যাপ্লিকেশন নয়। তবে এটি প্লে স্টোর এবং অ্যাপ স্টোর থেকে অ্যাক্সেস করা যাবে। মূলত বড় ওয়েবিনার এবং ইন্টারঅ্যাকশনের জন্য এটি ব্যবহার করা যেতে পারে। এই প্ল্যাটফর্মটি এক মিলিয়ন অংশগ্রহণকারীদের নিয়ে সেশন হোস্ট করতে পারে।

৫. Webkonf Meetings:

ওয়েবকনফ মিটিং, মূলত ওয়েব প্ল্যাটফর্মে উপলব্ধ। এটি ভারত সরকারের ‘মেড ইন ইন্ডিয়া’ প্রকল্পের একটি অংশ। এতে আপনি অডিও এবং ভিডিও কল করতে পারেন। নির্মাতা সংস্থা দাবি করে, তারা তৃতীয় পক্ষের সাথে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য শেয়ার করেনা। ওয়েবকনফ, আপনার ভিডিও সেশন, স্ক্রিন শেয়ার বা চ্যাট সার্ভারে রেকর্ড করেনা। এটির অ্যান্ড্রয়েড এবং আইওএস অ্যাপ্লিকেশন ভার্সনও পেয়ে যাবেন।

আরও পড়ুন