Homeনিউজ8 জিবি র‌্যামের সাথে 5G সাপোর্ট, 20 হাজার টাকার কমে সেরা ফোন দেখে নিন

8 জিবি র‌্যামের সাথে 5G সাপোর্ট, 20 হাজার টাকার কমে সেরা ফোন দেখে নিন

আজ আমরা আপনাদের এমন ৫টি সেরা স্মার্টফোনের খোঁজ দেব, যেগুলিতে বেশি র‌্যামের পাশাপাশি থাকবে 5G কানেক্টিভিটি। আর, এগুলির দাম ২০,০০০ টাকার কম

Cheapest 8GB RAM 5G Phone: একটি নতুন স্মার্টফোন কেনার সময় কিছু বিষয়ে বিশেষ খেয়াল রাখতে হয়, যেগুলি ভবিষ্যতে আপনার কাজে লাগতে পারে। যেমন, ফোনের র‌্যাম ক্যাপাসিটি পর্যাপ্ত থাকা খুবই দরকার। কেননা, র‌্যামের উপর অনেকখানি ফোনের পারফরম্যান্স নির্ভর করে। তাই পরবর্তী সময়ে যাতে আপনার ফোন ধীর না হয়ে যায়, তার জন্য ফোন কেনার আগে সেটির র‌্যাম ক্যাপাসিটি দেখে নেওয়া উচিত। বাজারের বেশির ভাগ মিড রেঞ্জ স্মার্টফোন এখন বেশি র‌্যামের সাথে আসে। তবে আজ আমরা আপনাদের এমন ৫টি সেরা স্মার্টফোনের খোঁজ দেব, যেগুলিতে বেশি র‌্যামের পাশাপাশি থাকবে 5G কানেক্টিভিটি। আর, এগুলির দাম ২০,০০০ টাকার কম।

৮ জিবি র‌্যাম সহ উপলব্ধ ৫টি সেরা ৫জি স্মার্টফোন (Top 5 best 5G smartphones available with 8GB RAM)

Realme 8s 5G : ১৭,৯৯৯ টাকা

রিয়েলমি ৮এস ৫জি স্মার্টফোনে আছে ৬.৫ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস (১,০৮০ x ২,৪০০ পিক্সেল) এলসিডি ডিসপ্লে। এই ডিসপ্লের, রিফ্রেশ রেট ৯০ হার্টজ, এসপেক্ট রেশিও ২০:৯, টাচ স্যাম্পলিং রেট ১৮০ হার্টজ, স্ক্রিন ব্রাইটনেস ৬০০ নিট ও স্ক্রিন-টু-বডি রেশিও ৯০.৫%। ফাস্ট পারফরম্যান্সের জন্য ফোনে মিডিয়াটেক ডাইমেনসিটি ৮১০ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। রিয়েলমি ৮এস ৫জি অ্যান্ড্রয়েড ১১ ভিত্তিক রিয়েলমি ইউআই ২.০ কাস্টম ওএস স্কিনে চলবে। নির্ধারিত র‌্যাম ছাড়াও এই ফোনে ৫ জিবি এক্সটেন্ডেড র‌্যাম সাপোর্ট করবে। ছবি তোলার জন্য, রিয়েলমি ৮এস ৫জি ফোনের ব্যাক প্যানেলে থাকছে ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ। এই ক্যামেরাগুলি হল, ৬৪ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর, ২ মেগাপিক্সেল মনোক্রোম পোট্রেট সেন্সর এবং ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো লেন্স। সেলফি বা ভিডিও চ্যাটিংয়ের জন্য ফোনে রয়েছে ১৬ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট-ফেসিং ক্যামেরা। রিয়েলমির এই হ্যান্ডসেটে সিকিউরিটির জন্য রয়েছে সাইড মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য এই ফোনে, ৩৩ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট সহ ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি আছে।

Vivo T1 5G : ১৯,৯৯০ টাকা

গতমাসে লঞ্চ হওয়া ভিভো টি১ ৫জি ফোনে দেখা যাবে একটি ৬.৫৮ ইঞ্চি ফুল এইচডি প্লাস (১০৮০×২৪০৮ পিক্সেল) আইপিএস এলসিডি ডিসপ্লে। যার রিফ্রেশ রেট ১২০ হার্টজ এবং টাচ স্যাম্পলিং রেট ২৪০ হার্টজ। হ্যান্ডসেটটি অ্যান্ড্রয়েড ১২ ভিত্তিক ফান টাচ ওএস১২ কাস্টম স্কিনে চলে। ফাস্ট পারফরম্যান্সের জন্য এতে স্ন্যাপড্রাগন ৬৯৫ ৫জি প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। আবার ফটোগ্রাফির জন্য এতে ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ থাকবে। এগুলি হল, ৫০ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর, ২ মেগাপিক্সেল সেকেন্ডারি সেন্সর এবং ২ মেগাপিক্সেল সেন্সর। একইভাবে সেলফি এবং ভিডিও কলের জন্য, ১৬ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা থাকছে ফোনে। ভিভো টি১ ৫জি ফোনে ১৮ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট সহ ৫,০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি আছে।

iQOO Z3 5G : ১৮,৯৯০ টাকা

ডুয়েল সিমের আইকো জেড৩ ৫জি, অ্যান্ড্রয়েড ১১ ভিত্তিক ফানটাচ ওএস ১১.১ কাস্টম স্কিনে চলবে। এতে, ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট সহ একটি ৬.৫৮ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস (২৪০৮x১০৮০ পিক্সেল) ওয়াটার ড্রপ ডিসপ্লে আছে। এই ডিসপ্লে, ৪০১পিপিআই পিক্সেল ডেনসিটি ও ৯০.৬১% স্ক্রিন-টু-রেশিও অফার করবে। সিকিউরিটির জন্য এই ফোনে সাইড মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর উপলব্ধ। আবার উন্নত পারফরম্যান্সের জন্য এতে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৭৬৮জি ৫জি প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। ক্যামেরা ফ্রন্টের কথা বললে, স্মার্টফোনটিতে ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ উপস্থিত। এগুলি হল, ৬৪ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর, ৮ মেগাপিক্সেল ওয়াইড-অ্যাঙ্গেল লেন্স এবং ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো লেন্স। আবার সেলফি এবং ভিডিও কলিংয়ের জন্য এতে এফ/২.০ অ্যাপারচারের একটি ১৬ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরাও দেওয়া হয়েছে। আইকোর এই ৫জি ফোনে ৪,৪০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি আছে, যা ৫৫ ওয়াট ফ্ল্যাশ চার্জ সাপোর্ট করে। এছাড়া ডিভাইসটিকে ওভার-হিটিংয়ের সমস্যা থেকে রেহাই দেওয়ার জন্য ফাইভ লেয়ারের লিকুইড কুলিং সিস্টেমও বর্তমান।

Redmi Note 11T 5G : ১৮,৯৯৯ টাকা

ডুয়েল সিমের রেডমি নোট ১১টি ৫জি ফোনে আছে, একটি ৬.৬ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস (১,০৮০x২,৪০০ পিক্সেল) IPS LCD ডিসপ্লে। এই ডিসপ্লে কর্নিং গরিলা গ্লাস ৩ প্রটেকশন সহ এসেছে এবং ৯০ হার্টজ অ্যাডাপ্টিভ রিফ্রেশ রেট ও ২০:৯ এসপেক্ট রেশিও সাপোর্ট করে। মাল্টিটাস্কিং ও ফাস্ট পারফরম্যান্সের জন্য ডিভাইসে, মালি জি৫৭ এমসি২ জিপিইউ সহ অক্টা কোর মিডিয়াটেক ডাইমেনসিটি ৮১০ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। এটি অ্যান্ড্রয়েড ১১ ভিত্তিক এমআইইউআই ১২.৫ কাস্টম স্কিন চালিত। নির্ধারিত র‌্যাম ছাড়াও এই ফোন ৩ জিবি পর্যন্ত এক্সটেন্ডেড র‌্যাম সাপোর্ট করে। ফটোগ্রাফির জন্য রেডমির এই ফোনে ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ বর্তমান। এগুলি হল, ৫০ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর ও ৮ মেগাপিক্সেল আল্ট্রা ওয়াইড শুটার। আবার, ফোনটির ডিসপ্লেতে থাকা পাঞ্চ-হোল কাটআউটের মধ্যে থাকছে ১৬ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা। পাওয়ার ব্যাকআপের কথা বললে, এই ৫জি ফোনে ৫,০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি আছে, যার সাথে ৩৩ ওয়াট প্রো ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করে। তদুপরি, এই ব্যাটারি একক চার্জে দু-দিন পর্যন্ত সক্রিয় থাকবে বলে সংস্থার দাবি। এটি IP53 রেটিং প্রাপ্ত, তাই জল ও ধুলো প্রতিরোধ করতে সক্ষম।

Oppo A53s 5G : ১৭,৮৯০ টাকা

মিডিয়াটেক ডাইমেনসিটি ৭০০ প্রসেসরের সাথে আসা ওপ্পো এ৫৩এস স্মার্টফোনে, একটি ৬.৫২ ইঞ্চি (৭২০x১,৬০০ পিক্সেল) সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লে আছে। এটি অ্যান্ড্রয়েড ১১ ভিত্তিক কালারওএস ১১.১ কাস্টম ওএস দ্বারা চালিত হবে। ফটোগ্রাফির জন্য এই ফোনে, ১৩ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর, ২ মেগাপিক্সেল সেকেন্ডারি সেন্সর এবং ২ মেগাপিক্সেল সেন্সর সহ ট্রিপল-রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ বর্তমান। আর সেলফি তোলার জন্য ব্যবহারকারীরা এতে পেয়ে যাবেন ৮ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা। ৫জি কানেক্টিভিটির এই স্মার্টফোনে ৬৭ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট সহ ৫,০০০ এমএএইচ পাওয়ারের ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন