আগামী বছর 4G ফোনকে পিছনে ফেলবে 5G ফোন, নতুন রিপোর্ট আশা দেখালো স্মার্টফোন মার্কেটকে

মারণ ভাইরাস করোনার ভয়াবহ সংক্রমণ বিশ্বব্যাপী স্মার্টফোন বাজারকে যে চরমভাবে প্রভাবিত করেছে তা আমাদের কারো অজানা নয়। তদুপরি সাম্প্রতিককালে কোভিডের দ্বিতীয়/তৃতীয় সংক্রমণ গোটা বিশ্বকে চরমভাবে বেসামাল করেছে, কোথাও কোথাও আবার কোভিডের চতুর্থ ঢেউ আসার খবরও পাওয়া গেছে। তাই এখন সবার মনেই আশংকা যে এমত পরিস্থিতিতে স্মার্টফোন বাজার আরও খারাপ দিকে ধাবিত হবে। কিন্তু সম্প্রতি মার্কেট অ্যানালিস্ট ফার্ম ক্যানালিস (Canalys)-এর এক রিপোর্টে কিছুটা আশাজনক তথ্যই সামনে এল।

এই রিপোর্টে বলা হয়েছে যে, ২০২১ সালে বিশ্বব্যাপী স্মার্টফোনের বাজার ১২ শতাংশ বৃদ্ধি পাবে, এবং শিপমেন্ট ১.৪ বিলিয়ন ইউনিটে পৌঁছাবে, যা ২০২০ সালের তুলনায় অনেকটাই বেশি। এই বৃদ্ধির সিংহভাগটিই ল্যাটিন আমেরিকা, চীন, ইউরোপ, মধ্যপ্রাচ্য এবং আফ্রিকা (ইএমইএ); এবং এশিয়া প্যাসিফিকে পরিলক্ষিত হবে। এর পাশাপাশি স্মার্টফোন নির্মাতারা এই বছর বহু নতুন ৫জি (5G) ফোন আনবেন বলে আশা করা হচ্ছে, যা স্মার্টফোন বাজারকে আরও বহুল পরিমাণে উন্নতি ও লাভের লক্ষ্যে এগিয়ে নিয়ে যাবে। শুধু তাই নয়, ২০২২ সালের শুরুতে ৫জি (5G) ফোনের শিপমেন্ট ৪জি (4G) ফোনের শিপমেন্টকে ছাড়িয়ে যাবে বলেও পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে।

Canalys তাদের রিপোর্টে আরও উল্লেখ করেছে যে, সম্প্রতি গোটা বিশ্ব জুড়ে কোভিড-১৯ এর টিকাকরণ চালায়, অনেক জায়গাতেই করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বেশ খানিকটা কমেছে, তাই স্মার্টফোন বাজারে এর একটি ইতিবাচক প্রভাব পড়বে। তবে উপাদান সরবরাহের ক্ষেত্রে স্মার্টফোন সংস্থাগুলিকে কিছু বাধার সম্মুখীন হতে হবে বলে মনে করা হচ্ছে। চিপসেট এবং মেমরির মতো কম্পোনেন্টগুলির দাম বৃদ্ধি পাবে বলে আশা করা হচ্ছে, যার ফলে স্মার্টফোন বিক্রেতাদের ডিভাইসের দাম বাড়ানোর কথা চিন্তা করতে হতে পারে।

এর সাথে সাথে Canalys একথাও জানিয়েছে যে, বছরের শেষের দিকে ৫জি (5G) ফোন শিপমেন্ট ৬১০ মিলিয়ন ইউনিটের কাছাকাছি পৌঁছাবে, যা প্রায় পুরো বছরের বিশ্বব্যাপী চালানের ৪৩ শতাংশ। ক্যানালিসের রিসার্চ ম্যানেজার বেন স্ট্যান্টন বলেছেন, খুব কম মূল্যে গ্রাহকদের ৫জি ফোন উপহার দেওয়ার লক্ষ্যে স্মার্টফোন নির্মাতারা ডিভাইসে ডিসপ্লে বা পাওয়ারের ক্ষেত্রে নতুনত্ব সামনে নাও আনতে পারে। তিনি আরও বলেন যে, বছরের শেষে শিপমেন্ট হওয়া ৫জি ফোনের ৩২ শতাংশের দাম ৩০০ ডলারের নীচে (প্রায় ২২,০০০ টাকা) হবে।

প্রসঙ্গত জানিয়ে রাখি, Canalys-ই একমাত্র অ্যানালিস্ট ফার্ম নয় যা স্মার্টফোনের বাজারের বৃদ্ধি এবং ৫জি ফোনের সম্প্রসারণের পূর্বাভাস দিয়েছে। ফেব্রুয়ারিতে Connecticut-ভিত্তিক গবেষণা সংস্থা Gartner বিশ্বব্যাপী স্মার্টফোন বাজারে ১১.৪ শতাংশ YoY গ্রোথের পূর্বাভাস দিয়েছে। ইন্টারন্যাশনাল ডেটা কর্পোরেশনও (IDC) এই বছরের শুরুতে ভবিষ্যদ্বাণী করেছিল যে, ২০২১ সালে বিশ্বব্যাপী স্মার্টফোন শিপমেন্ট ৫.৫ শতাংশ বৃদ্ধি পাবে এবং মোট শিপমেন্ট ভলিউমের ৪০ শতাংশ ৫জি ফোন হবে।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন