Homeনিউজনিরাপত্তার জন্য ফের Play Store থেকে প্রায় ২,০০০টি লোন অ্যাপ সরালো Google

নিরাপত্তার জন্য ফের Play Store থেকে প্রায় ২,০০০টি লোন অ্যাপ সরালো Google

ইউজারদের কেলেঙ্কারি থেকে বাঁচাতে, সম্প্রতি হাজার হাজার লোন অ্যাপ Google Play Store থেকে রিমুভ হয়েছে।

আপদকালীন পরিস্থিতিতে বা হঠাৎ করে অনেক টাকার দরকার পড়লে অধিকাংশ মানুষেরই সর্বপ্রথম লোন নেওয়ার কথা মাথায় আসে। আর চলতি সময়ে যেহেতু সর্বত্রই স্মার্টফোনের রমরমা, তাই ব্যাংক ছাড়াও বর্তমানে অনলাইন অ্যাপের মাধ্যমে অনেকে খুব সহজেই লোন নেওয়ার পরিকল্পনা করেন। এই কারণে এমনিতে Google Play Store (গুগল প্লে স্টোর)-এ এরকম অনেক পার্সোনাল লোন অ্যাপ উপলব্ধ রয়েছে। কিন্তু অজানা অনলাইন অ্যাপ থেকে লোন নিয়ে ইউজাররা বেশ অনেক ক্ষেত্রেই নিজের জন্য ডেকে আনেন বড়োসড়ো রকমের বিপদ। সবচেয়ে বড়ো কথা হল, প্রয়োজনের তাগিদে অনলাইন অ্যাপ থেকে লোন নেওয়ার ফলে ইউজারদের জন্য আগামী দিনে যে কতটা মারাত্মক বিপদ ওৎ পেতে বসে থাকে, তা তারা আঁচও করতে পারেন না। এমনকি এরকম অনেক ঘটনাও ঘটেছে যেখানে অনলাইনে উপলব্ধ অ্যাপ থেকে ঋণ নিয়ে কার্যত সর্বস্বান্ত হয়ে গেছেন গ্রাহকরা, বা লাগাতার তারা ঋণ শোধ করার জন্য হুমকি পাচ্ছেন। আর সেই কারণেই ইউজারদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে এবার প্রায় ২,০০০টি পার্সোনাল লোন অ্যাপ Play Store থেকে সরালো Google।

ইউজারদের নিরাপত্তার স্বার্থে Play Store থেকে রিমুভ ২,০০০টি লোন অ্যাপ

আসলে ব্যাপারটা হল, হালফিলে মার্কেটে এমন অনেক ভুয়ো লোন অ্যাপ এসে হাজির হয়েছে, যেগুলি ব্যবহারকারীদের বিভিন্ন সুবিধার মাধ্যমে বা অল্প সুদে খুব সহজেই ঋণ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেয়। সবচেয়ে আশ্চর্যজনক বিষয়টি হল, এই ভুয়ো অ্যাপ্লিকেশনগুলির চেহারা হুবহু আসল অ্যাপ্লিকেশনের মতোই হয়, ফলে গ্রাহকদের মনে বিন্দুমাত্র সন্দেহের উদ্রেক হয় না। আর যেহেতু গুগল প্লে স্টোরেও এই ধরনের বহু অ্যাপের দেখা মেলে, তাতে করে ম্যালিশিয়াস তথা ছদ্মবেশী অ্যাপগুলির ফাঁদে সহজেই পড়েন ইউজাররা এবং তাদের আর্থিক প্রতারণার জালে জড়িয়ে নিজেদের স্বার্থসিদ্ধি করে হ্যাকাররা। তবে প্রতিবারের মত এবারেও ভারতীয় ইউজারদের নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে মাঠে নেমেছে গুগল। সাম্প্রতিক একটি রিপোর্ট থেকে জানা গিয়েছে যে, টেক জায়েন্টটি প্লে স্টোর থেকে প্রায় ২,০০০টি পার্সোনাল লোন অ্যাপ সরিয়ে নিয়েছে।

ঠিক কী কারণে নেওয়া হল এই সিদ্ধান্ত?

এই প্রসঙ্গে গুগল এশিয়া-প্যাসিফিকের সিনিয়র ডিরেক্টর এবং ট্রাস্ট অ্যান্ড সেফটির প্রধান সৈকত মিত্র (Saikat Mitra) জানিয়েছেন যে, মূলত ভারতীয় ইউজারদের নিরাপত্তা ও সুরক্ষার কথা মাথায় রেখেই সংস্থাটি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তাঁর মতে, এই অ্যাপ্লিকেশনগুলি ভারতীয় ইউজারদের মারাত্মক বিপদের সম্মুখীন করতে পারে। তাই আইন প্রয়োগকারী কর্তৃপক্ষের সাথে পরামর্শ করার পরে এই ধরনের যাবতীয় অ্যাপ প্লে স্টোর থেকে সরিয়ে ফেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে গুগল। তিনি আরও বলেছেন যে, যদিও যেকোনো অ্যাপ প্লে স্টোরে আপলোড করার আগে সেটির যথাযথ সিকিউরিটি চেক করা হয়, কিন্তু পার্সোনাল লোন অ্যাপগুলিকে কেন্দ্র করে ইন্টারনেট জগতের বাইরেও প্রচুর অপরাধমূলক ঘটনা ঘটার খবর পাওয়া গিয়েছে। বেশ কয়েকজন ইন্টার্ন এই ধরনের অ্যাপগুলির মারফত নেওয়া ঋণ পরিশোধের ক্ষেত্রে হয়রানি এবং ব্ল্যাকমেলিংয়ের ঘটনা রিপোর্ট করেছেন। তাই কোম্পানিটি ভারতে পার্সোনাল লোন অ্যাপ্লিকেশনগুলির সাথে সম্পর্কিত গুগল প্লে পলিসিগুলিকে আপডেট করেছে এবং সেই সমস্ত অ্যাপগুলিকে প্লে স্টোর থেকে সরিয়ে নিয়েছে যা ইউজারদের জন্য ক্ষতিকারক বলে বিবেচিত হতে পারে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে, RBI বা রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া অনিয়ন্ত্রিত ঋণদান কার্যক্রম নিষিদ্ধ করার (Banning of Unregulated Lending Activities বা BULA) জন্য একটি আইন সুপারিশ করার পরেই Google আলোচ্য সিদ্ধান্তটি গ্রহণ করে। সৈকতের মতে, বর্তমানে ভারতে কোনো সরকার প্রত্যয়িত (government certified) পার্সোনাল লোন অ্যাপ্লিকেশন নেই। ফলে ঋণ নিতে হলে ব্যবহারকারীদেরকে অগত্যা কোনো থার্ড পার্টি অ্যাপের সাহায্য নিতে হয়। তদুপরি, বছর দুয়েক আগে করোনা মহামারী পরিস্থিতির আগমন ঘটায় বহু মানুষ চাকরি হারিয়ে এখন বেকার এবং অধিকাংশেরই পকেটের অবস্থা বেসামাল হয়ে গিয়েছে। এতে মানুষের জীবনে টাকার চাহিদা আগের তুলনায় আরও বহুগুণে বৃদ্ধি পেয়েছে, আর এই পরিস্থিতিকে প্রত্যক্ষ করেই হ্যাকাররা বিভিন্ন রকমের ভুয়ো লোন অ্যাপকে হাতিয়ার করে ইউজারদেরকে প্রতারিত করার চেষ্টা করছে। কিন্তু এই ধরনের লোন অ্যাপ লঞ্চ না করার একদমই পক্ষপাতী নন তিনি। সৈকতের কথায়, ইউজারদের সুবিধার্থে মার্কেটে বেশ কিছু সরকার প্রত্যয়িত লোন অ্যাপ অবশ্যই মজুত থাকা প্রয়োজন। সেক্ষেত্রে আগামী দিনে সত্যি সত্যিই এরকম কোনো অথেন্টিক অ্যাপের দেখা পাওয়া যাবে কি না, তা একমাত্র সময়ই বলতে পারবে।

আরও পড়ুন