গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট এর মত দেশীয় ভয়েস কমান্ড কন্ট্রোল চ্যাটবট আনছে ভারত সরকার

গত বছর থেকে ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ বা স্বনির্ভর ভারত গড়ে তোলার কর্মসূচি গ্রহণ করেছে ভারত সরকার। সেক্ষেত্রে দেশের মাটিতে বিভিন্ন প্রোডাক্ট উৎপাদন করার বা দেশীয় প্রযুক্তি উন্নত করে তোলার জন্য কেন্দ্র সরকারকে একাধিক পদক্ষেপ নিতেও দেখা গিয়েছে। কিন্তু যদি বলি আগামী দিনগুলিতে নির্দিষ্ট ইলেকট্রনিক ডিভাইসে দেখা যাবে দেশীয় ভয়েস অ্যাসিস্ট্যান্ট পরিষেবা, তাহলে কেমন লাগবে? অবাক হওয়ার কিছু নেই, কারণ রিপোর্ট বলছে সরকার এবার গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট বা অ্যামাজন অ্যালেক্সার অনুরূপ ভয়েস কমান্ড কন্ট্রোল প্ল্যাটফর্মের বিকাশের পরিকল্পনা করছে।

গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট বা অ্যামাজন অ্যালেক্সার ফিচার সম্পর্কে আশা করি নতুন করে কিছু বলার নেই। তবু যারা এই দুটি নামের সাথে পরিচিত নন, তাদের জানিয়ে রাখি, গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট, অ্যামাজন অ্যালেক্সা কিংবা অ্যাপল সিরি এমনই এক ধরণের মজার পরিষেবা যার সাহায্যে ইউজাররা ডিভাইসে হাত না লাগিয়েও বিভিন্ন কাজ করতে পারেন, শুধুমাত্র ভয়েস কমান্ড দিয়ে। তবে গুগল, অ্যামাজন বা অ্যাপল – কেউই এদেশীয় সংস্থা নয়, আর তাই বিষয়টি নিয়ে ভাবনা চিন্তা শুরু করেছে ভারত সরকার। গত শুক্রবার সরকার এই পরিকল্পনার কথা সর্বসমক্ষে এনেছে। বলা হচ্ছে, মূলত দেশের ই-গভর্নেন্স পরিষেবা পরিচালনা করতে এই দেশীয় ভয়েস অ্যাসিস্ট্যান্ট প্ল্যাটফর্মটি ব্যবহৃত হবে।

সেক্ষেত্রে, প্ল্যাটফর্মটি সরকারের উমাং (UMANG) প্ল্যাটফর্মে বিভিন্ন রেজিস্ট্রেশন, লগইন বা পাসওয়ার্ড রিসেট করবে এবং বিভিন্ন সরকারি পরিষেবা, অনুষ্ঠান ও নতুন লঞ্চ সম্পর্কিত তথ্য সরবরাহ করবে। অন্যদিকে সরকারি ডোমেইনে চালিত এই মাধ্যমটি ইউজারদের সেরা পরিষেবা বা স্কিম উপভোগ করার সুযোগ দেবে।

পিটিআই-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, এই এআই-ভিত্তিক বিশেষ প্ল্যাটফর্মটি একাধিক ভাষায় জনসাধারণের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করবে। এছাড়া, এটি ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত পরিষেবাদিও সরবরাহ করতে পারে; তবে এর জন্য প্ল্যাটফর্মটি ইউজারদের অনুভূতিগুলি বিশ্লেষণ করতে পারে এবং কিছু ডেটা সংগ্রহ করতে পারে। আপাতত, ইলেকট্রনিক্স এবং তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রক (MEITY), এই বিশেষ প্ল্যাটফর্মটি তৈরির জন্য বিভিন্ন প্রস্তাব পেশ করেছে, এবং প্রযুক্তিবিদদের আমন্ত্রণ জানিয়েছে। মনে করা হচ্ছে, এই প্রোজেক্টটি সম্পূর্ণ হতে চার বছরের কাছাকাছি সময় লাগবে।