Homeঅডিওদুর্দান্ত সাউন্ড কোয়ালিটি সহ JBL আনলো তিনটি হেডফোন

দুর্দান্ত সাউন্ড কোয়ালিটি সহ JBL আনলো তিনটি হেডফোন

ভালো হেডফোনের কোম্পানির তালিকায় সব থেকে উপরের দিকের কোম্পানিগুলির মধ্যে একটি হলো জেবিএল। জেবিএল এর বহু হেডফোন ভারতসহ সারা বিশ্বে বেশ জনপ্রিয়। JBL সাউন্ড কোয়ালিটি এবং বেস এর জন্য বিখ্যাত। কিছুদিন আগে জেবিএল লঞ্চ করেছিল গেমিং হেডফোন। এবার জেবিএল নিয়ে এসেছে তাদের নতুন ওভার ইয়ার হেডফোন সিরিজ। এই হেডফোন সিরিজের নাম দেওয়া হয়েছে ‘CLUB’। এই লাইনআপে রয়েছে Club ONE, Club 950NC, Club 700BT । এই তিনটি হেডফোনে থাকছে জেবিএল এর দুর্দান্ত সাউন্ড কোয়ালিটি, পারসনি ফাই ফিচার, এবং নেটিভ ভয়েস অ্যাসিস্ট্যান্ট সাপোর্ট।

JBL Club ONE, Club 950NC, Club 700BT দাম:

এই হেডফোনগুলির সবকটির দাম ১০,০০০ টাকার উপরে। Club 700BT হেডফোনের দাম রাখা হয়েছে ১১,৯৯৯ টাকা। Club 950NC হেডফোনের দাম ১৭,৯৯৯ টাকা। এবং সবশেষে Club ONE হেডফোনের দাম রাখা হয়েছে ২৯,৯৯৯ টাকা।

JBL Club ONE, Club 950NC, Club 700BT স্পেসিফিকেশন:

এই সিরিজের সবথেকে দামি হেডফোন Club ONE এ হাইরেস সার্টিফাইড গ্রাফিন ড্রাইভার এবং ট্রু অ্যাডাপটিভ নয়েজ ক্যান্সলেশন ফিচার রয়েছে। সঙ্গে আপনারা এই হেডফোনে সাইলেন্ট নাও ফিচারটিও পাবেন। এর গ্রাফিন ড্রাইভার অত্যন্ত হালকা, খুব ভালো কন্ডাক্টিভ এবং সাউন্ড ডেলিভারির ক্ষেত্রে অত্যন্ত উন্নত। সঙ্গে এই নয়েজ ক্যান্সলেশন ফিচারটির কারণে আপনারা প্রতি সেকেন্ডে ৫০,০০০ টি প্রকৃতিগত সাউন্ড বাদ দিতে পারবেন। এই সাউন্ড ফিচারের মাধ্যমে আপনার গান শোনার অভিজ্ঞতা বহুমাত্রায় বেড়ে যাবে। সাইলেন্ট নাউ ফিচারের মাধ্যমে আপনারা একটি বাটন ট্যাপ করে নয়েজ ক্যান্সলেশন চালু অথবা বন্ধ করতে পারবেন। এর জন্য ব্লুটুথ অ্যাক্টিভেট করার প্রয়োজন পড়বে না।

এতে দেওয়া হবে ৪৫ ঘন্টার প্লেব্যাক টাইম। এই হেডফোনে আপনারা এয়ার কুশন রিপ্লেস করতে পারবেন, এছাড়াও পাবেন ডুয়াল অক্স অডিও ইনপুট এবং ফ্লাইট অ্যাডাপ্টার। গুগলের ভয়েস অ্যাসিস্ট্যান্ট এবং অ্যামাজন অ্যালেক্সা ব্যবহার করতে পারবেন এই হেডফোনের মাধ্যমে। এছাড়াও ব্যবহারকারীরা মাই জেবিএল হেডফোন অ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করলে নিজেদের মতো হেডফোনের প্রেফারেন্স সেট করতে পারবেন।

এবার আসা যাক একটু কম দামি ভার্সন Club 950NC এর ক্ষেত্রে। এই হেডফোনেও থাকছে জেবিএল এর প্রো সাউন্ড ফিচার, গ্রাফিন ড্রাইভার, এবং ভয়েস অ্যাসিস্ট্যান্ট সাপোর্ট। এখানেও জেবিএল এর হেডফোন অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করা যাবে। এছাড়া আপনারা নিজের মতো জেবিএল এর হেডফোন ফিচার সেট করতে পারবেন। এই হেডফোনে থাকছে অ্যাম্বিয়েন্ট অ্যাওয়্যার এবং টক থ্রু টেকনোলজি। এছাড়াও এই হেডফোনে টাচ কন্ট্রোল এবং মেটাল হিঞ্জ থাকবে, যার ফলে আপনার হেডফোনের স্থায়িত্ব বৃদ্ধি পাবে। এছাড়া ওই হেডফোনে অ্যাডাপটিভ নয়েজ ক্যানসেলেশন সাপোর্ট থাকবে। তবে এই নয়েজ ক্যান্সলেশন আগের মডেল Club ONE এর মত হবে না। এই হেডফোনে আপনারা একটি অতিরিক্ত বেস বুষ্ট বাটন পেয়ে যাবেন। এছাড়াও কোম্পানি দাবি করেছে যে, এই হেডফোন ৫৫ ঘন্টার লিসনিং টাইম দেবে, অর্থাৎ টানা ৫৫ ঘন্টা আপনি এই হেডফোনে গান শুনতে পারবেন।

এবার যাক তিন নম্বর হেডফোন, JBL Club 700BT হেডফোনের দিকে। এই হেডফোনেও থাকছে জেবিএল সাউন্ড ফিচার, গ্রাফিন ড্রাইভার, ভয়েস অ্যাসিস্ট্যান্ট সাপোর্ট। এখানেও আপনি অ্যামাজন অ্যালেক্সা এবং গুগল ভয়েস অ্যাসিস্ট্যান্ট ব্যবহার করতে পারবেন। টক থ্রু টেকনোলজি থাকবে এই হেডফোনেও। তবে আপনারা এই হেডফোনে অ্যাডাপটিভ নয়েজ ক্যান্সলেশন পাবেন না। এই ফিচারটি শুধুমাত্র দুটি প্রিমিয়াম রেঞ্জের হেডফোনের ক্ষেত্রেই দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে এই হেডফোনে ব্যাটারি লাইফ কিছুটা কম। এই হেডফোনে ফুল চার্জ দিলে টানা ৫০ ঘণ্টা গান শুনতে পারবেন। তবে যদি আপনি স্টার্টিং রেঞ্জের ভালো ওভার ইয়ার হেডফোন কিনতে চান তাহলে এই হেডফোনটি আপনার জন্য খুব ভালো বিকল্প হতে চলেছে।

আরও পড়ুন