দেশবাসীর তথ্যের অপব্যবহার রুখতে নতুন নির্দেশিকা ভারত সরকারের, লঙ্ঘনে হতে পারে জেল

ভারত সরকার সোমবার আরোগ্য সেতু অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে একত্র করা ডেটা সঠিকভাবে ব্যবহার করার জন্য একটি নির্দেশিকা নিয়ে এসেছে। এই নির্দেশিকায় যারা ৬ মাস থেকে বেশি সময় পর্যন্ত ডেটা স্টোর করছে এবং কিছু নিয়মের লঙ্ঘন করেছে তাদের জেল অবধি হতে পারে বলে জানানো হয়েছে।

অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহারকারীদের ডেটা গোপনীয়তার ব্যাপারে বেশ কিছুদিন ধরে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে এবং তার পরেই এই নিয়মবিধির মধ্যে নিয়ে আসা হয়েছে। ব্যবহারকারীদের ৩০ দিনের মধ্যে রেকর্ড থেকে নিজের ডেটা মুছে ফেলার বিকল্প প্রদান করা হয়েছে। একজন বরিষ্ঠ সরকারি আধিকারিক জানিয়েছেন, ” গোপনীয়তা আরোগ্য সেতু অ্যাপ্লিকেশনের একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অংশ।”

ইলেকট্রনিক্স মন্ত্রালয় এবং আইটি মন্ত্রালয় সচিব অজয় প্রকাশ সাহানি সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন,” ডেটার গোপনীয়তার উপর বহু কাজ করা হয়েছে। এটা সুনিশ্চিত করার জন্য অত্যন্ত ভালো একটি গোপনীয়তার নীতি তৈরি করা হয়েছে যাতে যেকোনো লোকের ব্যক্তিগত ডেটার দুর্ব্যবহার না হয়।”

এই নতুন নিয়ম বিধিতে শুধুমাত্র ডেমোগ্রাফিক, কন্ট্যাক্ট, সেল্ফ অ্যাসেসমেন্ট এবং লোকেশন ডেটা গ্রহণ করা হবে। এছাড়াও এই মহামারীর থেকে নিজেদেরকে সুরক্ষিত রাখার জন্য একটি নতুন গ্রুপ তৈরি করা হয়েছে।

এখনো অবধি, ৯.৮ কোটি মানুষ আরোগ্য সেতু অ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করেছেন। এবং এই অ্যাপ্লিকেশন করোনাভাইরাস কনটেইনমেন্ট জোনে ব্যবহার করা বাধ্যতামূলক বলে ঘোষণা করা হয়েছে। এই অ্যাপ্লিকেশন জানিয়ে দেয় যে আপনি কোন কোন ভাইরাস আক্রান্ত রোগীর আশেপাশে আছেন কিনা।

এই প্রোফাইল থেকে টেকগাপের সম্পাদকীয় দল এবং নিজস্ব সংবাদদাতাদের লেখা প্রকাশিত হয়৷