5400mah ব্যাটারি সহ থাকবে 100W ফাস্ট চার্জ সাপোর্ট, কাঁপিয়ে দেবে Xiaomi 15 Pro

শাওমি ১৫ সিরিজটি চলতি বছরের শেষের দিকে বাজারে আসতে চলেছে। তবে আসন্ন ফ্ল্যাগশিপ সিরিজটিকে নিয়ে প্রযুক্তি মহলে কয়েক মাস ধরেই জল্পনা শোনা যাচ্ছে। আসন্ন সিরিজটিতে স্ট্যান্ডার্ড শাওমি ১৫ এবং শাওমি ১৫ প্রো মডেল দুটি অন্তর্ভুক্ত থাকবে। আর এখন এক সুপরিচিত টিপস্টার শাওমি ১৫ প্রো মডেলটির ব্যাটারি এবং চার্জিং ক্ষমতা সম্পর্কে বিশদে জানিয়েছেন। আসুন এসম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জেনে নেওয়া যাক।

সামনে এল শাওমি ১৫ প্রো ফোনের ব্যাটারি ক্ষমতা এবং চার্জিংয়ের গতি

টিপস্টার ডিজিটাল চ্যাট স্টেশন ওয়েইবো (চীনা মাইক্রোব্লগিং ওয়েবসাইট)-তে একটি পোস্ট করে জানিয়েছেন যে, শাওমি ১৫ প্রো ফোনটি একটি ৫,৪০০ এমএএইচ ব্যাটারি সহ আসবে এবং ওয়্যার্ড এবং ওয়্যারলেস অপশনগুলির জন্য ১০০ ওয়াট চার্জিং সাপোর্ট করবে।

ডিজিটাল চ্যাট স্টেশন তার পোস্টে উল্লেখ করেছেন যে শাওমি ১৫ প্রো ফোনের ইঞ্জিনিয়ারিং প্রোটোটাইপটি বর্তমানে ১২০ ওয়াট ওয়্যার্ড চার্জিং ব্যবহার করে। তবে, হিট ডিসিপেশন উদ্বেগের কারণে এই ফাস্ট অপশনটি চূড়ান্ত মডেলে উপলব্ধ নাও হতে পারে। টিপস্টার ব্যাটারির ক্ষমতা সম্পর্কেও ব্যাখ্যা করেছেন। তার মতে, ফোনটিকে পাতলা এবং হালকা রাখার জন্য কোম্পানি এতে ৫,৪০০ এমএএইচ ব্যাটারি ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

যদিও এই ব্যাটারির ক্ষমতা কিছু প্রতিদ্বন্দী ডিভাইসের তুলনায় কম মনে হতে পারে, তবে টিপস্টার বলেছেন করে যে ব্যাটারিটির পাওয়ার ডেনসিটি বেশি। উদাহরণ স্বরূপ, আসন্ন রিয়েলমি জিটি ৭ প্রো ফোনে ৬,০০০ ব্যাটারি রয়েছে বলে শোনা যাচ্ছে, কিন্তু শাওমি ১৫ প্রো ফোনের উচ্চতর শক্তি-ঘনত্বের ব্যাটারি ডিজাইন উন্নত দক্ষতা প্রদান করবে।

এছাড়াও, অন্যান্য রিপোর্টের মাধ্যমে শাওমি ১৫ প্রো সম্পর্কে আরও কিছু তথ্য সামনে এসেছে। শোনা যাচ্ছে এর ডিসপ্লেটি বায়োমেট্রিক্সের জন্য একটি আল্ট্রাসনিক ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর সহ ২কে রেজোলিউশনের মাইক্রো-কার্ভড প্যানেল হবে বলে আশা করা হচ্ছে। ফোনটির ক্যামেরা সিস্টেমে একটি বড় অ্যাপারচার সহ ৫০ মেগাপিক্সেলের প্রাইমারি সেন্সর, একটি ৫০ মেগাপিক্সেলের আল্ট্রাওয়াইড লেন্স এবং ৩x অপটিক্যাল জুম সহ একটি ৫০ মেগাপিক্সেলের পেরিস্কোপ লেন্স সহ তিনটি লেন্স অন্তর্ভুক্ত থাকবে।

শাওমি ১৫ প্রো মডেলের প্রাইমারি রিয়ার ক্যামেরাটি উচ্চতর লো-লাইট পারফরম্যান্স এবং ডায়নামিক রেঞ্জের জন্য উদ্ভাবনী ‘থিয়াসেল’ প্রযুক্তি সহ একটি অমনিভিশন ওভি৫০কে সেন্সর ব্যবহার করবে বলে জানা গেছে। এছাড়া, ক্যামেরা মডিউল ডিজাইনে সামান্য পরিবর্তন হতে পারে, কারণ ফ্ল্যাশ ইউনিটটি প্রধান মডিউলের বাইরে অবস্থান করবে বলে শোনা যাচ্ছে।

পারফরম্যান্সের জন্য, শাওমি ১৫ প্রো ফোনটি কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮ জেন ৪ চিপের সাথে লঞ্চ হবে বলে জানা গেছে। তবে, এমনও শোনা যাচ্ছে যে চিপের ব্যয়বহুল উৎপাদন প্রক্রিয়ার কারণে স্ন্যাপড্রাগন ৮ জেন ৪ চালিত ফোনের দাম বেশি হতে পারে। যদিও এখনও পর্যন্ত শাওমি ১৫ প্রো হ্যান্ডসেটের দাম সম্পর্কে কোনও সুনির্দিষ্ট তথ্য পাওয়া যায়নি, তবে এই তথ্যগুলি সত্য হলে, ফোনটি তার পূর্বসূরির তুলনায় আরও ব্যয়বহুল হতে পারে।