৮ শহরে 5G চালু করল Airtel, আপনার এলাকায় নেটওয়ার্ক পাওয়া যাবে কিনা চেক করুন এভাবে

এয়ারটেল নিশ্চিত করেছে যে ব্যবহারকারীরা এয়ারটেল থাঙ্কস অ্যাপ' ব্যবহার করে তাদের বিদ্যমান স্মার্টফোন ৫জি নেটওয়ার্কের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ কিনা তা জানতে পারবেন।

Airtel Launches 5G Services in these 8 cities

গতকাল অর্থাৎ ১লা অক্টোবর, ভারতী এয়ারটেলের (Bharti Airtel) চেয়ারম্যান সুনীল ভারতী মিত্তল ষষ্ঠ ইন্ডিয়া মোবাইল কংগ্রেস (IMC 2022) ইভেন্টের প্রথম দিনে ভারতে 5G পরিষেবা চালু করার ঘোষণা করেছিলেন। পাশাপাশি তিনি নিশ্চিত করেছিলেন যে, গতকাল থেকেই ৫তম সেলুলার নেটওয়ার্কিং পরিষেবাকে আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচিত কয়েকটি শহরে উপলব্ধ করা হবে এবং গ্রাহকরা তাদের স্মার্টফোনে 5G পরিষেবা উপভোগ করতে সক্ষম হবেন। তাই, আপনি যদি একজন এয়ারটেল সিম ব্যবহারকারী হন এবং সংস্থার 5G পরিষেবা কীভাবে ব্যবহার করবেন তা জানতে উৎসাহী থাকেন, তবে আমাদের এই প্রতিবেদন থেকে এই সংক্রান্ত সমস্ত নির্দেশিকা ও তথ্যাদি বিস্তারিতভাবে জেনে নিতে পারেন…

কোন কোন শহরে এয়ারটেল ৫জি পরিষেবা পাওয়া যাবে? (In which cities will Airtel 5G service be available)

দেশের প্রথমসারির টেলিকম সংস্থা এয়ারটেল বর্তমানে – দিল্লি, বারাণসী, ব্যাঙ্গালোর, হায়দ্রাবাদ, মুম্বাই, চেন্নাই, কলকাতা এবং শিলিগুড়িতে ৫জি পরিষেবা রোলআউট করার ঘোষণা করেছে। যদিও আলোচ্য শহরগুলির ঠিক কোন স্থান বা অঞ্চলে পঞ্চম প্রজন্মের এই নেটওয়ার্ক উপলব্ধ থাকবে, তা এখনো জানায়নি সংস্থাটি।

আপনার ফোন এবং ঠিকানা ৫জি রেডি কিনা কীভাবে পরীক্ষা করবেন? (How to check if your phone and location are 5G ready)

এয়ারটেল নিশ্চিত করেছে যে ব্যবহারকারীরা এয়ারটেল থাঙ্কস অ্যাপ’ (Airtel Thanks App) ব্যবহার করে তাদের বিদ্যমান স্মার্টফোন ৫জি নেটওয়ার্কের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ কিনা তা জানতে পারবেন। একই সাথে, এই অ্যাপের মাধ্যমেই আপনারা নিজেদের অঞ্চলে ৫জি পরিষেবার উপলব্ধতা সম্পর্কেও জানতে সক্ষম হবেন।

স্মার্টফোনে ৫জি পরিষেবা ব্যবহার করার জন্য কী কী প্রয়োজন? (What Things are required to use 5G service on smartphone)

১. স্মার্টফোনে ৫জি পরিষেবা ব্যবহার করার জন্য, আপনাকে এমন একটি এলাকার নিবাসী হতে হবে যেখানে ৫জি পরিষেবা পাওয়া যাচ্ছে। আরো সোজা ভাষায় বললে, এয়ারটেল গতকালের ইভেন্টে উল্লেখ করেছিল যে – ৫জি পরিষেবা বর্তমানে শুধুমাত্র সেইসকল জায়গাগুলিতেই উপলব্ধ যেখানে ৫জি টাওয়ার ইনস্টল করা আছে। এক্ষেত্রে, আমরা প্রতিবেদনের প্রথমেই শহরগুলির নাম উল্লেখ করেছি।

২. একটি ৫জি সামঞ্জস্যপূর্ণ স্মার্টফোন হাতে থাকা আবশ্যক। দেখতে গেলে, সম্প্রতি লঞ্চ হওয়া বেশিরভাগ স্মার্টফোনই ৫জি-এনাবল। ফলে আপনিও যদি হালফিলে একটি নয়া মোবাইল কিনে থাকেন, হয়তো সেটি ৫তম সেলুলার নেটওয়ার্কের সাথে কাজ করতে সক্ষম হবে।

৩. একটি সক্রিয় এয়ারটেল সিম কানেকশন থাকা জরুরি। প্রসঙ্গত, বিদ্যমান ৪জি (4G) সিমগুলি ৫জি-রেডি বলে জানিয়েছে এয়ারটেল।

স্মার্টফোনকে ৫জি এনাবল করার পদ্ধতি (Steps to enable 5G on your smartphone) :

১. আপনার ব্যবহৃত স্মার্টফোনটি ৫জি কানেক্টিভিটি যুক্ত কিনা তা পরীক্ষা করতে, প্রথমেই ডিভাইসে থাকা সেটিংস অ্যাপ খুলুন।

২. এবার কানেকশন বা মোবাইল নেটওয়ার্ক বিকল্পে যান।

৩. এখানে, নেটওয়ার্ক মোডে ট্যাপ করুন এবং 5G/4G/3G/2G বিকল্প দেখতে পাবেন।

এবার নেটওয়ার্ক মোড ৫জি সেট করুন। এরপর আপনি যদি ৫জি- উপলব্ধ অঞ্চলে থাকেন তবে স্মার্টফোনটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে ডিভাইসের ডিসপ্লের উপরিভাগে ৫জি লোগো দেখাবে।