HomeটেলিকমAirtel ফিরিয়ে আনল ৩৫ টাকার প্ল্যান, কি কি সুবিধা পাওয়া যাবে দেখে নিন

Airtel ফিরিয়ে আনল ৩৫ টাকার প্ল্যান, কি কি সুবিধা পাওয়া যাবে দেখে নিন

Airtel এর ৩৫ টাকার প্ল্যানটি ২ দিনের স্বতন্ত্র বৈধতা সহ আসে। এতে মোট ২ জিবি ডেটা পাওয়া যাবে। অর্থাৎ, প্রতিদিন এবং প্রতি জিবি ডেটা ব্যবহারের জন্য ইউজারদের ১৭.৫ টাকা খরচ করতে হবে

সম্প্রতি দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম টেলিকম কোম্পানি Airtel তাদের প্রিপেইড গ্রাহকদের জন্য একেবারে চুপিসারে ৩৫ টাকা দামের একটি নতুন প্ল্যান চালু করেছে। যদিও সংস্থার ওয়েবসাইটে এখনও পর্যন্ত এই প্ল্যানটির দেখা মেলেনি; তবে যারা মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে রিচার্জ করেন, তাদের জন্য এটি ইতিমধ্যেই উপলব্ধ হয়ে গিয়েছে। বলে রাখি, স্বতন্ত্র বৈধতা সহ আসা Airtel-এর ৩৫ টাকার প্ল্যানটি একটি ডেটা-ওনলি ভাউচার। অর্থাৎ, এই প্ল্যান মারফত ডেটা ব্যতীত অন্য কোনো সুবিধা পাওয়া যাবে না। ফলে দিনের মাঝপথে হঠাৎ করে দৈনিক ডেটা শেষ হয়ে গেলে বাকি সময়টুকু কাজ চালানোর জন্য ইউজাররা অনায়াসে এই প্ল্যানটি রিচার্জ করার কথা ভেবে দেখতে পারেন। আসুন, Airtel-এর এই নতুন 4G ডেটা ভাউচারটির সম্পর্কে বিশদে জেনে নেওয়া যাক।

Airtel-এর ৩৫ টাকার ডেটা ভাউচার

এয়ারটেলের ৩৫ টাকার প্ল্যানটি ২ দিনের স্বতন্ত্র বৈধতা সহ আসে। এতে মোট ২ জিবি ডেটা পাওয়া যাবে। অর্থাৎ, প্রতিদিন এবং প্রতি জিবি ডেটা ব্যবহারের জন্য ইউজারদের ১৭.৫ টাকা খরচ করতে হবে। উল্লেখ্য যে, এর আগে সংস্থার ঝুলিতে এমন কোনো ডেটা-অনলি ভাউচার উপলব্ধ ছিল না, যেটি রিচার্জ করলে ২ জিবি ডেটা ব্যবহারের সুবিধা মিলবে। সেক্ষেত্রে যে সকল ব্যবহারকারীরা হালফিলে ২ জিবি ডেটা প্যাকের খোঁজ করছেন, তাদের জন্য আলোচ্য প্ল্যানটি এককথায় আদর্শ।

Airtel-এর যাবতীয় ডেটা ভাউচার

প্রসঙ্গত জানিয়ে রাখি, ব্যবহারকারীদের জন্য এয়ারটেলের ঝুলিতে একাধিক ডেটা ভাউচার মজুত রয়েছে। সংস্থার সবচেয়ে সাশ্রয়ী মূল্যের ডেটা-অনলি ভাউচারটির দাম ১৯ টাকা, যাতে ১ দিনের জন্য ১ জিবি ডেটা পাওয়া যায়। আবার, সম্প্রতি চালু হওয়া কোম্পানির ৩৫ টাকার ডেটা ভাউচারে ২ দিনের স্বতন্ত্র বৈধতায় মিলবে ২ জিবি ডেটা। এছাড়া, এয়ারটেলের পোর্টফোলিওতে ৫৮ টাকা মূল্যের আরও একটি ৪জি ডেটা ভাউচার উপলব্ধ রয়েছে, যাতে ৩ জিবি ডেটা পাওয়া যায়। আবার, কোম্পানির ৬৫ টাকার ডেটা ভাউচারে ইউজারদেরকে ৪ জিবি ডেটা খরচের সুযোগ দেওয়া হয়েছে। উল্লেখ্য যে, ৫৮ ও ৬৫ টাকার প্ল্যান দুটির নিজস্ব কোনো মেয়াদ নেই। ইউজাররা তাদের বিদ্যমান রিচার্জ প্ল্যানের বৈধতা অনুযায়ী এগুলিকে ব্যবহার করতে পারবেন।

এরপর Airtel-এর পোর্টফোলিওতে উপলব্ধ রয়েছে ৯৮ টাকা মূল্যের আরও একটি 4G ডেটা ভাউচার, যেটির মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা ৫ জিবি ডেটা পাবেন৷ এটির ভ্যালিডিটি ইউজারদের বিদ্যমান রিচার্জ প্ল্যানের মেয়াদের সমান। আবার যারা কিছুটা ব্যয়বহুল ডেটা প্যাকের সন্ধান করছেন, তাদের জন্য সংস্থার ঝুলিতে ১১৮ টাকা, ১৪৮ টাকা, ১৮১ টাকা এবং ৩০১ টাকা মূল্যের চারটি প্ল্যান মজুত রয়েছে। এই চারটি প্ল্যানের মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা পাবেন যথাক্রমে ১২ জিবি ডেটা, ১৫ জিবি ডেটা, ১ জিবি দৈনিক ডেটা এবং ৫০ জিবি ডেটা। উল্লেখ্য যে, এগুলির মধ্যে কেবল ১৮১ টাকার প্ল্যানে ৩০ দিনের স্ট্যান্ডঅ্যালোন ভ্যালিডিটি রয়েছে। অর্থাৎ, প্ল্যানটির মাধ্যমে ইউজাররা মোট ৩০ জিবি ডেটা পেতে সক্ষম হবেন। তবে বাকি তিনটি প্ল্যানকে গ্রাহকরা তাদের বিদ্যমান রিচার্জ প্ল্যানের বৈধতা অনুযায়ী ব্যবহার করতে পারবেন।

আরও পড়ুন