বিশেষ 5G নেটওয়ার্কের জন্য বড় পদক্ষেপ BSNL-এর, চুক্তি পাকা করল এই সংস্থার সাথে

ক্যাপটিভ নন-পাবলিক নেটওয়ার্ক বা সিএনপিএন (CNPN) স্থাপনের লক্ষ্যে BSNL গ্লোবাল প্রোডাক্ট ইঞ্জিনিয়ারিং এবং সিস্টেম ইন্টিগ্রেশন কোম্পানি অমান্ত্য টেকনোলজিস (Amantya Technologies)-এর সাথে অংশীদারিত্ব করেছে

BSNL Partner Amantya

চলতি বছরের মার্চ মাসের মধ্যে গোটা দেশে 4G পরিষেবা চালু করার জন্য হালফিলে Bharat Sanchar Nigam Limited বা BSNL জোরকদমে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। তবে এর পাশাপাশি আপামর দেশবাসীকে খুব শীঘ্রই 5G পরিষেবা উপহার দেওয়ার জন্যেও রীতিমতো কোমর বেঁধে লেগে পড়েছে সরকারি মালিকানাধীন সংস্থাটি। ইতিমধ্যেই ইলেকট্রনিক্স ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব বেশ জোর গলায় দাবি করেছেন যে, আগামী বছর অর্থাৎ ২০২৪ সালে 5G সার্ভিস নিয়ে হাজির হবে BSNL। আবার সম্প্রতি পাওয়া খবর অনুযায়ী, ক্যাপটিভ নন-পাবলিক নেটওয়ার্ক বা সিএনপিএন (CNPN) স্থাপনের লক্ষ্যে রাষ্ট্রায়ত্ত টেলিকম সংস্থাটি হালফিলে গ্লোবাল প্রোডাক্ট ইঞ্জিনিয়ারিং এবং সিস্টেম ইন্টিগ্রেশন কোম্পানি অমান্ত্য টেকনোলজিস (Amantya Technologies)-এর সাথে অংশীদারিত্ব করেছে।

রিপোর্ট অনুযায়ী, উভয় সংস্থা একসাথে হাতে হাত মিলিয়ে ভারতীয় গ্রাহকদের জন্য ক্যাপটিভ প্রাইভেট ৫জি নেটওয়ার্ক স্থাপন করবে। অমান্ত্য-র পক্ষ থেকে জানা গিয়েছে যে, এই অংশীদারিত্বের ফলে উভয় সংস্থাই ব্যাপকভাবে উপকৃত হবে। এর সুবাদে আগামী দিনে অটোমেশন এনাবেল করার জন্য অত্যন্ত নিরাপদ, অতি-নির্ভরযোগ্য, লো ল্যাটেন্সি এবং হাই-থ্রুপুট নেটওয়ার্কের অ্যাক্সেস পেতে সক্ষম হবে এন্টারপ্রাইজগুলি।

BSNL-এর সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধতে পেরে যারপরনাই আনন্দিত Amantya Technologies

অমান্ত্য টেকনোলজিসের চিফ টেকনিক্যাল অফিসার সঞ্জয় বিসেন (Sanjay Bisen) জানিয়েছেন, বিএসএনএল এর সঙ্গে সিএনপিএন হিসেবে গাঁটছড়া বাঁধা ৫জি ইকোসিস্টেমে অমান্ত্যের ক্রমবর্ধমান উন্নতির জন্য একটি বেশ গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। বর্তমানে আইওটি (IoT), এআর ভিআর (AR VR), এআই এমএল (AI ML), রোবোটিক্স, ভি২এক্স (V2X) ইত্যাদির মতো উন্নত প্রযুক্তির জন্য ৫জি খুবই জরুরি। সেক্ষেত্রে বিএসএনএলের সাথে অংশীদারিত্বের সুবাদে ব্যবহারকারীরা নিঃসন্দেহে অতি উন্নত মানের ইউজার এক্সপেরিয়েন্স অর্জন করতে সক্ষম হবেন।

এই অংশীদারিত্বের দৌলতে ব্যাপকভাবে উপকৃত হবে BSNL

উল্লেখ্য যে, অমান্ত্য টেকনোলজিস এবং বিএসএনএল এর মধ্যে এই অংশীদারিত্ব সরকারি মালিকানাধীন টেলিকম সংস্থাটির জন্যেও খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ সংস্থাটি এখনও এদেশে ৪জি সার্ভিস নিয়ে আসতে পারেনি। তদুপরি, আপামর দেশবাসীকে পঞ্চম প্রজন্মের নেটওয়ার্ক পরিষেবা প্রদানের ক্ষেত্রেও বিএসএনএলের কোনো পূর্ব অভিজ্ঞতা নেই। এমত পরিস্থিতিতে অমান্ত্য টেকনোলজিস সরকারি টেলিকম কোম্পানিটিকে ব্যাপকভাবে সহায়তা করবে বলে আশা করা যেতে পারে, যার সুবাদে ভারতীয় গ্রাহকদের মনে বিএসএনএল একটি পাকাপোক্ত জায়গা করে নিতে সক্ষম হবে।

আগামী কয়েক মাসের মধ্যেই 4G পরিষেবা নিয়ে আসছে BSNL

প্রসঙ্গত জানিয়ে রাখি, 5G পরের বছর এলেও চলতি বছরেই 4G পরিষেবা নিয়ে আসছে BSNL। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী কয়েক মাসের মধ্যেই সুখবর পাওয়া যাবে। সেক্ষেত্রে একবার 4G সার্ভিসের আগমন ঘটলে BSNL যে বেসরকারি টেলিকম কোম্পানিগুলির সাথে একেবারে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে চলতে পারবে, সেকথা নিঃসন্দেহে বলাই বাহুল্য। পাশাপাশি সাশ্রয়ী মূল্যে ভালো পরিষেবা প্রদান করলে সরকারি মালিকানাধীন সংস্থাটি আগামী দিনে বেসরকারি টেলিকম অপারেটরগুলিকে বেশ বড়োসড়ো চাপের মুখে ফেলবে বলেও আশা করা যেতে পারে।