টেলিকম

শীঘ্রই লঞ্চ হবে Vi 5G নেটওয়ার্ক, পরিষেবা পেতে নতুন সিম লাগবে? জেনে নিন খুঁটিনাটি

এই মুহূর্তে সংবাদমাধ্যম এবং নেটদুনিয়ার অন্যতম চর্চার বিষয় 5G (৫জি)। আসলে বহুদিনের অপেক্ষার পর এবার পঞ্চম প্রজন্মের নেটওয়ার্ক ভারতের দোরগোড়ায় এসে দাঁড়িয়েছে, আশা করা হচ্ছে আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই চালু হয়ে যাবে এর পরিষেবা। সাম্প্রতিক ভাষণে প্রধানমন্ত্রী মোদী এরকমই ইঙ্গিত দিয়েছেন, তাছাড়া বারংবার Jio বা Airtel-এর মত মূল দুই টেলিকম সংস্থাও 5G সংক্রান্ত কাজের শেষ পর্যায়ে পৌঁছেছে বলে ঘোষণা করেছে। এই পরিস্থিতিতে স্বাভাবিকভাবেই Vodafone Idea (ভোডাফোন আইডিয়া) বা Vi (ভিআই) গ্রাহকদের মনে তাদের নিজস্ব অপেরাটরের 5G পরিষেবা সম্পর্কে কৌতুহল জন্মাচ্ছে। এদিকে Vi, অন্যান্য কোম্পানির মত তেমন কিছুই বলছে না! সেক্ষেত্রে আপনিও যদি এই সংস্থার গ্রাহক হন এবং আপনার মনে দেশের তৃতীয় বৃহত্তম টেলকো Vodafone Idea ঠিক কবে 5G পরিষেবা চালু করবে, কোন কোন শহরে এই পরিষেবা মিলবে, নেটওয়ার্কের স্পিড কেমন হবে, পরিষেবা পেতে নতুন সিম লাগবে কিনা ইত্যাদি প্রশ্ন ঘুরপাক খায়, তাহলে এই বিষয়ে সমস্ত আপডেট পাবেন আমাদের আজকের প্রতিবেদনে। কারণ আমরা এখন Vi 5G (ভিআই ৫জি) পরিষেবা সম্পর্কে খুঁটিনাটি আলোচনা করব।

Vodafone Idea-র 5G পরিষেবা কবে চালু হবে?

স্পেকট্রাম নিলামে, ভোডাফোন আইডিয়া ১৮,৭৯৯ কোটি টাকা খরচ করে শুধুমাত্র ৩,৩০০ মেগাহার্টজ এবং ২৬ গিগাহার্টজের দুটি ফ্রিকোয়েন্সি ব্যান্ড কিনেছে – এমন খবর মাসের শুরুতেই সামনে এসেছে। কিন্তু তারপর থেকে এখনো পর্যন্ত ৫জি পরিষেবা চালুর তারিখ সম্পর্কে কোম্পানি আনুষ্ঠানিকভাবে সম্প্রতি কিছুই বলেনি। তবে একাধিক রিপোর্টে নিশ্চিত হয়েছে যে, ভোডাফোন আইডিয়া ভারতে নোকিয়া এবং এরিকসনের সরঞ্জাম ব্যবহার করে ৫জির ট্রায়াল পরিচালনা করছে। সম্ভবত অক্টোবরে অর্থাৎ আর প্রায় দু মাস পর ভিআই ৫জি নেটওয়ার্ক উপলব্ধ হবে।

কোন কোন শহরে মিলবে Vodafone Idea-র 5G পরিষেবা?

লঞ্চের তারিখের মত ভিআই ৫জি সমর্থিত শহর (অর্থাৎ কোথায় কোথায় সংস্থার ৫জি পরিষেবা পাওয়া যাবে) সম্পর্কেও কিছু বলেনি ভোডাফোন আইডিয়া। তবে যেহেতু ডট (DoT) বা ডিপার্টমেন্ট অফ টেলিকমিউনিকেশনস বলেছে যে বাণিজ্যিক ৫জি পরিষেবা প্রাথমিকভাবে কলকাতা, দিল্লি, গুরুগ্রাম, মুম্বাই, পুনে, চেন্নাই, বেঙ্গালুরু, হায়দ্রাবাদ, চণ্ডীগড়, লখনউ, আহমেদাবাদ, গান্ধীনগর এবং জামনগরের মত ১৩টি ভারতীয় শহরে চালু হবে, সেই প্রেক্ষিতে বলা যায় এই সমস্ত জায়গার ভোডাফোন গ্রাহকরা সবার আগে ৫জি পরিষেবা পেতে পারেন।

উল্লেখ্য, সংস্থাটি ইতিমধ্যে পুনে, গান্ধীনগর এবং বেঙ্গালুরুতে সফলভাবে ট্রায়াল পরিচালনা করেছে। তাই দেশের টায়ার ১ শহরগুলিতে আগামী মাসগুলিতে আসন্ন নেটওয়ার্ক পরিষেবা উপলব্ধ হবে, এমনটা নিশ্চিতভাবে আশা করাই যায়। তবে মনে রাখবেন যে, ভোডাফোন আইডিয়া আসাম, হিমাচল প্রদেশ, জম্মু ও কাশ্মীর, উত্তর পূর্ব এবং ওড়িশা সার্কেলের জন্য স্পেকট্রাম কেনেনি। সুতরাং এই অঞ্চলের অধিবাসী গ্রাহকরা সম্ভবত ভিআই ৫জি পরিষেবা পাবেন না!

Vodafone Idea-র 5G পরিষেবার খরচ

৫জি নেটওয়ার্ক চালু হলে এর রিচার্জ প্ল্যানগুলি যে বর্তমান ৪জি প্ল্যানগুলির তুলনায় ব্যয়বহুল হবে, সে সম্ভাবনার কথা আগেই বহু রিপোর্টে বলা হয়েছে৷ সেক্ষেত্রে ভোডাফোন আইডিয়ার স্পেকট্রাম খরিদের বিপুল খরচ এবং এর ঋণে জর্জরিত অবস্থার কথা বিচার করে বলা যায়, গড় আয় বাড়াতে ভিআই ৫জি প্ল্যানের দাম খানিকটা চড়া হবে। কিছুদিন আগে সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টর রবিন্দর টক্করও সেরকমই ইঙ্গিত দিয়েছেন।

Vi 5G নেটওয়ার্কের স্পিড

গত বছর ডিসেম্বরে ভোডাফোন আইডিয়া গুজরাটের গান্ধীনগরে একটি ৫জি ট্রায়াল দিয়েছিল যাতে এটি ১.৫ জিবিপিএস পর্যন্ত ডাউনলোড স্পিড পায়। এরপর তারা ট্রায়ালে ৩.৭ জিবিপিএস পর্যন্ত ডাউনলোড স্পিড রেকর্ড করে। তবে চলতি ২০২২-এর মে মাসে, সংস্থা পুনেতে ট্রায়াল পরিচালনা করে যেখানে সর্বোচ্চ ৫.৯২ জিবিপিএস ডাউনলোড স্পিড ফলাফল হিসেবে মেলে। সেক্ষেত্রে ভিআই ৫জি নেটওয়ার্ক উপলব্ধ হলে এতে চোখের পলকে কোনো কিছু ডাউনলোড করা যাবে তাতে সন্দেহ নেই! তবে কোন সংস্থার নেটওয়ার্কে সবচেয়ে হাইস্পিড মিলবে, তা সময়ই বলবে।

Vi 5G পরিষেবা পেতে কি নতুন সিম প্রয়োজন?

আপনাদের জানিয়ে রাখি যে, ভোডাফোন আইডিয়ার ৫জি নেটওয়ার্ক অ্যাক্সেস করার জন্য কোনো নতুন সিমের প্রয়োজন নেই ৷ কারণ বিদ্যমান ৪জি (4G) সিম এই নেটওয়ার্কের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ হবে এবং সমস্যা ছাড়াই কাজ করবে।

Back to top button