সুখবর, WhatsApp কে টেক্কা দিতে এবার ভিডিও কলিং ফিচার আনছে Telegram

telegram-is-bringing-video-calling-feature-to-compete-with-whatsapp

বিশ্বের বিভিন্ন ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং অ্যাপগুলির সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় হল WhatsApp। Hike, Line, Telegram ইত্যাদির মত বিকল্প মেসেজিং অ্যাপ থাকা সত্ত্বেও ভারতে হোয়াটসঅ্যাপের অ্যাক্টিভ ইউজার ৩০০ মিলিয়নেরও বেশি। তবে ধীরে ধীরে হোয়াটসঅ্যাপের সবথেকে বড় প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে উঠছে টেলিগ্রাম। ক্লাউড বেসড এই অ্যাপটি চমৎকার সব ফিচার এবং পরিষেবার কারণে সম্প্রতি সময়ে বেশ টেক্কা দিচ্ছে WhatsApp কে।

এতদিন পর্যন্ত Telegram এ কেবল ভয়েস কলিংয়ের সুবিধা উপলব্ধ ছিল। কিন্তু আর টেলিগ্রাম ইউজারদের নিরাশার কোনো কারণ নেই। খুব শীঘ্রই Telegram অ্যাপে আসতে চলেছে ভিডিও কলিং সাপোর্ট। ইতিমধ্যে এই ফিচারটি লেটেস্ট অ্যান্ড্রয়েড বিটা ভার্সনে রোলআউট করা হয়েছে।

Android Police এর রিপোর্ট অনুযায়ী, টেলিগ্রামে ভিডিও কলিং ফিচার পেতে আপনাকে ০.৭ বিটা বা তার ওপরের সংস্করণটি ডাউনলোড করতে হবে। এর জন্য আপনি প্লে স্টোরে গিয়ে অ্যাপের বিটা প্রোগ্রাম জয়েন করতে পারেন, নাহলে আপনাকে স্টেবল আপডেট পেতে আরো কয়েকদিন অপেক্ষা করতে হবে।

জানা গিয়েছে, টেলিগ্রামের এই ভিডিও কলিং ইন্টারফেসটি সাধারণ ক্যামেরা অ্যাপ্লিকেশনের অনুরূপ। এতে ব্যাক ও ফ্রন্ট ক্যামেরা সুইচ করতে ফ্লিপ বাটন থাকবে। এছাড়া ভিডিও মোড শুরু বা বন্ধ করা, মিউট করা এবং কল ডিসকানেক্ট করার জন্য নির্দিষ্ট বাটন থাকবে। যদিও কবে এই ফিচারটি সমস্ত ইউজারের জন্য উপলব্ধ হবে তা এখনো পর্যন্ত জানা যায়নি।

বাজারের অন্যান্য প্রতিদ্বন্দ্বী অ্যাপগুলিতে যেখানে কতজন মিলে ভিডিও কল করা যাবে সেই নিয়ে হইচই শুরু হয়েছিলো, সেই সময় টেলিগ্রামের নাম চর্চায় ছিলনা শুধুমাত্র এই একটি খামতির জন্য। তবে যাইহোক এবার সংস্থাটি প্রতিযোগিতার বাজারে নিজের জনপ্রিয়তা ধরে রাখার সম্পূর্ণ চেষ্টা করছে। বেশ কয়েকদিন আগেই সংস্থাটি একটি নতুন আপডেট এনেছে, যার ফলে ইউজাররা সর্বাধিক ২ জিবি লিমিটে ফাইল শেয়ার করতে পারবেন। এসেছে ফেসবুকের মতো প্রোফাইল ভিডিও সেট করার অপশন-ও।