সুরক্ষিত নয় মেসেজিং প্ল্যাটফর্ম Telegram, এই ফিচার ব্যবহারের পরিনাম হতে পারে ভয়ংকর

telegram-people-nearby-feature-help-hacker-to-track-you

বিশ্বের জনপ্রিয় মেসেজিং প্ল্যাটফর্ম হোয়াটসঅ্যাপ এর সিকিউরিটি নিয়ে আমরা এমনিতেই চিন্তিত। তবে এবার বিতর্কের মুখে পড়ল আরেক জনপ্রিয় মেসেজিং প্ল্যাটফর্ম Telegram! এই অ্যাপের ‘People Nearby’ ফিচারটি থেকে হ্যাকিং আক্রমণের সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। রিসার্চারের মতে, হ্যাকাররা এই মেসেজিং অ্যাপ্লিকেশনটির উল্লিখিত ফিচার থেকে সহজেই কোনো ইউজারের লোকেশন বা অবস্থান জানতে পারে এবং বিভিন্নভাবে ফাঁদে ফেলতে পারে। তাই আপাতত ইউজারদের এই ফিচারটির ব্যবহার থেকে বিরত থাকতে অনুরোধ করা হচ্ছে।

কী এই ‘পিপল নিয়ারবাই’ ফিচার?

টেলিগ্রামের এই ফিচারটি, ইউজারদের নতুন মানুষের সাথে পরিচয় করায় এবং একই ভৌগোলিক অঞ্চলের ইউজারদের গ্রুপ তৈরি করার সুযোগ দেয়। এই বছরের শুরুর দিকে, ‘পিপল নিয়ারবাই’ ফিচারের দ্বিতীয় সংস্করণটি রোল আউট করেছে মেসেজিং মাধ্যমটি।

কিন্তু, আহমেদ হাসান নামে জনৈক ইন্ডিপেন্ডেন্ট রিসার্চার সম্প্রতি দাবি করেছেন যে টেলিগ্রামের ‘পিপল নিয়ারবাই’ ফিচারটি থেকে সহজেই কোনো ইউজারকে ট্র্যাক করা যেতে পারে। এমনকি হ্যাকাররা উল্লিখিত টেলিগ্রাম গ্রুপগুলি ক্র্যাশ করে ইউজারদের লোকেশন ছড়িয়ে দিতে পারে এবং তারপর বিটকয়েন ইনভেসমেন্ট, বিভিন্ন হ্যাকিং টুল, সামাজিক সুরক্ষা নম্বর চুরি প্রভৃতি অসাধু কাজ করতে পারে। স্বস্তির বিষয় এটাই যে এই ফিচারটি ডিফল্ট নয় অর্থাৎ, ফিচারটি ইচ্ছেমত অন অফ করা যায়।

হাসানের মতে, বেশিরভাগ টেলিগ্রাম ইউজাররা সাত পাঁচ না ভেবেই তাদের অবস্থান বা বাড়ির ঠিকানা শেয়ার করে বসেন। সেক্ষেত্রে, কোনও মহিলা ইউজার যদি কোনো লোকাল গ্রুপে চ্যাট করার জন্যে এই ফিচারটি ব্যবহার করেন তবে যেকোনো অপরিচিত ইউজার তাকে চুপিসাড়ে অনুসরণ করতে পারে। সুতরাং, যদি ইউজাররা হ্যাকিংয়ের শিকার নাও হন, তাহলেও এই ফিচারটি ব্যবহার করার দরুন তাদের প্রোফাইলগুলি প্রাইভেসি নষ্ট সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া যায়না। তবে টেলিগ্রামের দাবি যে এটি কোনো সমস্যা নয়; ইউজাররা অযাচিত অনলাইন অনুসরণকারীদের নজরদারি এড়াতে নিজেদের লোকেশন সম্পর্কিত তথ্য শেয়ার নাও করতে পারেন বা প্রয়োজনে ফিচারটিকে টার্ন অফ করে রাখতে পারেন।