চীনা অ্যাপ টিকটক ডিলিট করার অনুরোধ, তোয়াক্কা না করে ডাউনলোড সংখ্যা পেরোলো ১০০ কোটি

লকডাউনের কারণে মোবাইল ব্যবহার অনেকগুন বেড়ে গেছে। সময় কাটাতে মানুষ সোশ্যাল মিডিয়া ও বিভিন্ন অ্যাপের ব্যবহার করছে। আর তাতে ফায়দা হয়েছে Whatsapp, Tiktok এর মত অ্যাপের। অ্যান্ড্রয়েড পুলিশের রিপোর্ট অনুযায়ী, লকডাউন কারণে জনপ্রিয়তা অনেকটাই বেড়ে গেছে শর্ট ভিডিও শেয়ারিং অ্যাপ টিকটকের। যার ফলস্বরূপ গুগল প্লে স্টোরে এর ডাউনলোড সংখ্যা ১০০ কোটি পেরিয়ে গেল।

যদিও কিছুদিন ধরে সোশ্যাল মিডিয়ায় টিকটক অ্যাপ ডিলিট করার অনুরোধ করা হয় কিছু পেজ থেকে। চীনের প্রোডাক্ট বর্জন করতেই তারা এই অনুরোধ করেছিল। যদিও তাতে যে কোনো প্রভাব পড়েনি তা নতুন রেকর্ডই প্রমান করে।

স্বল্প দৈঘ্যের ভিডিও ফর্ম্যাটের কারণে টিকটক কে পছন্দ করছে মানুষ। এতে ব্যবহারকারীরা ভিডিও শ্যুট, পোস্ট এবং শেয়ার করে, আবার অন্যান্য ব্যবহারকারীর ভিডিও দেখে নিজেকে এন্টারটেন করে। আর তাই কোভিড -১৯ লকডাউনে এর ডাউনলোড হু হু করে বা বেড়ে গেছে। তবে শুধু টিকটক নয়, ফেসবুকের Lasso, ইনস্টাগ্রাম প্রভৃতি অ্যাপের ডাউনলোড সংখ্যাও বেড়েছে।

প্লে স্টোরে দ্বিতীয় সবচেয়ে বেশি ডাউনলোড অ্যাপ :

লঞ্চের পর থেকেই অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমে টিকটক সবসময় খুব জনপ্রিয় অ্যাপ। ডাউনলোড সংখ্যার বিচারে গত ফেব্রুয়ারী মাসে এই অ্যাপ গুগল প্লে স্টোরে তৃতীয় স্থানে ছিল। যদিও মার্চে এর ব্যবহার আরও বেড়ে যায় এবং ডাউনলোড ও সমান তালে হতে শুরু করে। ফলে এখন ডাউনলোডের দিক থেকে ফেসবুকের পরেই আছে Tiktok।

এদিকে করোনা মোকাবিলায় টিকটক ভারতীয় ডাক্তার এবং মেডিক্যাল স্টাফদের জন্য ১০০ কোটি টাকার মেডিকেল ইকুইপমেন্ট প্রদান করেছে। এরমধ্যে রয়েছে প্রায় ৪ লক্ষ হ্যাজম্যাট স্যুট এবং ২ লক্ষ মাস্ক। শুধু তাই নয় TikTok এর তরফ থেকে জানানো হয়েছে, আগামী বেশ কিছুদিনের মধ্যে তারা ভারতকে করোনা ভাইরাস থেকে সুরক্ষিত থাকার জন্য আরো সাহায্য করার পরিকল্পনা নিয়েছে।