ব্রেকিং: চীনের সাথে সম্পর্ক শেষ করে আমেরিকান কোম্পানি হিসাবে ব্যবসা করবে টিকটক

করোনা ভাইরাসের উৎস এবং ভারত-চীন সংঘর্ষের পরে, বর্তমানে চীনের অ্যাপ্লিকেশন এবং চীনের সমস্ত প্রোডাক্ট ব্যান করার উদ্যোগ শুরু হয়েছে সারা বিশ্বজুড়ে। এই দৌড়ে সবার আগে আছে ভারত। তবে আমেরিকা ও অস্ট্রেলিয়ার মত দেশও কিন্তু পিছিয়ে নেই। তারাও চীনকে বয়কট করতে তোড়জোড় শুরু করেছে। আর এই বয়কট এর জেরে সমস্যার মুখে পড়েছে চীনের বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশন।

এই অ্যাপ্লিকেশন গুলির মধ্যে অন্যতম শর্ট ভিডিও মেকিং অ্যাপ, টিকটক। ভারত এবং আমেরিকায় টিকটকের ব্যবহারকারীর সংখ্যা ছিল প্রচুর। ইতিমধ্যেই এই অ্যাপকে ভারতে ব্যান করা হয়েছে এবং শোনা যাচ্ছে আমেরিকাও শীঘ্রই এই অ্যাপকে ব্যান করবে। আর এই কারণেই টিকটকের কোম্পানি ByteDance চীন থেকে নিজেদের সমস্ত সম্পর্ক ছিন্ন করে আমেরিকায় চলে আসার প্রস্তুতি নিচ্ছে। একজন উচ্চপদস্থ হোয়াইট হাউজ অফিশিয়াল বৃহস্পতিবার জানিয়েছেন, আমেরিকার একটি স্বাধীন কোম্পানি হিসেবে নিজেদের কে প্রতিষ্ঠা করার মাধ্যমে Tiktok এই বয়কট কে পাশ কাটাতে পারবে।

রিপোর্ট থেকে জানা গিয়েছে, আমেরিকার হোয়াইট হাউসের ইকোনমিক এডভাইজার জানিয়েছেন যে, টিকটক চীন থেকে বেরিয়ে এসে, আমেরিকায় স্বাধীনভাবে ব্যবসা করার পরিকল্পনা নিচ্ছে। আমেরিকায় একটি স্বাধীন কোম্পানি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হওয়া, চীনে থেকে ব্যান হয়ে যাবার থেকে ভালো। এই কারণেই এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে টিকটক কর্তৃপক্ষ।

এছাড়াও তিনি জানিয়েছেন, আমেরিকায় চলে আসার পরে টিকটকের সমস্ত সার্ভার চীন এর পরিবর্তে আমেরিকায় ট্রান্সফার হয়ে যাবে। আগামী কিছু সপ্তাহের মধ্যেই, এই সার্ভার পরিবর্তন করা হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

বর্তমানে আমেরিকার আধিকারিকরা Tiktok, Wechat সহ অন্যান্য অ্যাপ্লিকেশন এর উপরে নজর রাখছে। জাতীয় সুরক্ষা বিষয়ে এই অ্যাপ্লিকেশনগুলি উপরে হস্তক্ষেপ করা হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। ইতিমধ্যেই ভারতে চীনের ৫৯টি অ্যাপ্লিকেশন কে ব্যান করে দেওয়া হয়েছে। তাই এই মুহূর্তে টিকটকের তরফ থেকে এরকম সিদ্ধান্ত খুবই তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।