আমেরিকায় রবিবার থেকে ডাউনলোড করা যাবেনা TikTok ও WeChat

Tiktok Wechat to be banned in the US starting september 20

সরকারের সাথে আলোচনা, বৈঠক, অন্য সংস্থার সাথে জোট বাঁধতে চাওয়ার পরিকল্পনা – কোনোটাই শেষ অবধি কাজে দিলনা এবার মার্কিন বাজার থেকে একরকম পাততাড়ি গোটাতে চলেছে TikTok। আসলে আগামী সপ্তাহ থেকে আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রে আর TikTok ডাউনলোড করা যাবেনা। এরসাথে ডাউনলোড করা যাবেনা আরেক জনপ্রিয় চীনা মেসেজিং অ্যাপ WeChat-ও।

সাম্প্রতিক রিপোর্ট থেকে জানা গিয়েছে, ট্রাম্প সরকার, এই দুটি অ্যাপ্লিকেশনের ডাউনলোডের ওপর নিষেধাজ্ঞা করতে চলেছে। যার জেরে, আগামী ২০শে সেপ্টেম্বর থেকে মার্কিন নাগরিকরা আর এই অ্যাপদুটিকে ডাউনলোড করতে পারবেন না। ইতিমধ্যেই মার্কিন প্রশাসন, তাদের বাণিজ্য বিভাগের ওয়েবসাইটে নতুন বিধি প্রকাশ করেছে।

বিগত কয়েক মাস ধরে চীনের সাথে গোটা বিশ্বের ঠান্ডা লড়াই চলছে। কখনো করোনা সংক্রমণের উৎস হিসেবে, কখনো সীমান্তে ভারতের সাথে উত্তেজনায়, আবার কখনো আমেরিকার সাথে প্রযুক্তি মতবিরোধের কারণে বারবার খবরের শিরোনামে উঠে এসেছে চীনের নাম। এমনকি গত জুন মাসে গোপনীয়তা এবং সুরক্ষা জনিত উদ্বেগের কারণে ভারত সরকার টিকটকসহ ৫৭টি চীনা অ্যাপ্লিকেশন ব্যান করে। তবে, এরপরেই জোর জল্পনা শুরু হয় আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রেও নিষিদ্ধ হবে টিকটক।

এরপরেই লাগাতার খবর আসতে থাকে, মার্কিন সরকার, টিকটকের গতিবিধির ওপর নজর রাখছে। প্রশাসনের রোষ নজর থেকে রক্ষা পায়নি ‘উইচ্যাট’ নামের সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মটিও। গত মাসেই শোনা গিয়েছিল, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, টিকটককে নিষিদ্ধ করার আদেশে স্বাক্ষর করেছেন। শুধু তাই নয়, মার্কিন সরকার টিকটক বা উইচ্যাটের ওপর নানা বিধিনিষেধ জারি করেছে – এমনটাও শোনা গিয়েছিল। তবে এখন, মার্কিন সরকার, অ্যাপ্লিকেশনদুটির ডাউনলোডের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে। যার ফলে অ্যাপগুলির ইউজারবেস অনেকটাই কমে যাবে। 

রয়টার্সের একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ট্রাম্প প্রশাসন – অ্যাপল, গুগল এবং অন্যান্য সংস্থাগুলিকে তাদের প্ল্যাটফর্ম বা অ্যাপ স্টোর থেকে TikTok এবং WeChat-কে সরানোর আদেশ দেবে। ফলে কোনোভাবেই এই অ্যাপগুলি নতুন করে ডাউনলোড বা আপডেট করা যাবেনা। তবে, যুক্তরাষ্ট্রে, ভারতের মত অ্যাপগুলিকে একেবারে নিষিদ্ধ করা হবেনা। কারণ শোনা যাচ্ছে Tiktok-এর কোম্পানি, ByteDance, আমেরিকান কোম্পানি Oracle-এর সাথে সমঝোতায় যেতে চাইছে। সেক্ষত্রে ট্রাম্প প্রশাসন ফের টিকটককে আমেরিকায় ব্যবসা করার মান্যতা দিতে পারে। তবে যতদিন না Oracle এর সাথে টিকটকের ডিল চূড়ান্ত না হয় ততদিন আমেরিকায় Tiktok ডাউনলোড করা যাবেনা।

প্রসঙ্গত গতমাসেই ট্রাম্প প্রশাসন জানিয়েছিল, ২০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে আমেরিকার কোনো কোম্পানিকে টিকটক তাদের ব্যবসা বিক্রি করে না দিলে, এদেশেও নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হবে। এরপরই টিকটকের সাথে কখনো Microsoft, কখনো Oracle এর নাম জড়াতে থাকে। যদিও কোনো কোম্পানির সাথে এখনও টিকটকের চূড়ান্ত চুক্তি হয়নি।

তবে সম্প্রতি জানা গেছে আমেরিকায় বৈদেশিক কারবার নিয়ন্ত্রণ করে যে সংস্থা অর্থাৎ Committee on Foreign Investment in the United States (CFIUS)-এর কাছে ByteDance একটি প্রস্তাব রেখেছে। যেখানে Oracle সাথে চুক্তি করলেও তারা বেশির ভাগ মালিকানা নিজেদের হাতে রাখবে এবং আমেরিকায় Tiktok-এর একটি হেডকোয়ার্টার গড়ে তুলবে বলে জানিয়েছে। এখন দেখার Oracle এই চুক্তিতে রাজি হয় কিনা। অন্যথায় আমেরিকাতেও চিরদিনের জন্য ব্যান হতে পারে টিকটক।