Tesla থেকে Audi, চলতি বছরে বিশ্বের সেরা পাঁচটি দ্রুততম বৈদ্যুতিক গাড়ির নাম জেনে নিন

২০২১ সালের দ্রুততম গতিবেগের বৈদ্যুতিক গাড়ি কোনগুলি জেনে নিন

Porsche Taycan

জীবাশ্ম জ্বালানি চালিত গাড়ির থেকে অটোমোবাইল সংস্থাগুলি ক্রমশই বৈদ্যুতিক জ্বালানি নির্ভর যানবাহনের দিকে দৃষ্টি নিবদ্ধ করছে। বিদ্যমান পেট্রোল-ডিজেল গাড়িগুলির বৈদ্যুতিক ভার্সন সহ নতুন মডেলের ইলেকট্রিক কার নিয়ে আসছে সংস্থাগুলি। কিন্তু অটোমোবাইলের দুনিয়ায় যে বৈশিষ্ট্যটি বরাবর গুরুত্ব পেয়েছে তা হচ্ছে ‘গতি’। সেই কারণে ইলেকট্রিক যানবাহনগুলির সর্বোচ্চ গতিবেগ বৃদ্ধির দৌড়ে শামিল হয়েছে কোম্পানিগুলি। জানতে চান এবছরের দ্রুততম গতিবেগের বৈদ্যুতিক গাড়ি কোনগুলি? তাহলে এই প্রতিবেদনটি আপনার জন্য।

Porsche Taycan

নিখুঁত ইন্টার্নাল কম্বাশান ইঞ্জিন বা আইসিই গাড়ির অন্যতম প্রস্তুতকারক সংস্থা হল পোর্সা (Porsche)। তাই সংস্থাটি যখন বৈদ্যুতিক গাড়ি তৈরি করার কথা জানিয়েছিল স্বভাবতই এর প্রতি মানুষের প্রত্যাশা ছিল অনেকটাই বেশি।

পোর্সা টেক্যান-এর বৈদ্যুতিক মডেলটি থেকে ৭৫০ এইচপি শক্তি এবং ৭৭৪ ফুট-পাউন্ড টর্ক উৎপন্ন হয়। ০-১০০ কিমি/ঘন্টার গতিবেগ তুলতে এর সময় লাগে মাত্র ২.৮ সেকেন্ড। সাথে এর সর্বোচ্চ গতিবেগ ২৬০ কিমি/ঘন্টা। এই কারণে গাড়িটি তালিকার সর্বপ্রথমে স্থান পেয়েছে। বিশ্বের দ্রুততম বৈদ্যুতিক গাড়িটি ভারতের বাজারে লঞ্চ হওয়ার পর এর দাম রাখা হতে পারে ২.৫ কোটি টাকা।

Tesla Model 3 (2021)

বিশ্বের মধ্যে সর্বাধিক জনপ্রিয় বৈদ্যুতিক গাড়ি এটিই। এমনকি গত ২০১৩ সাল থেকে সংস্থাটির সর্বাধিক বিক্রিত গাড়ি হল টেসলা মডেল ৩। এর মোটরটি থেকে সর্বাধিক ২২১ এইচপি পাওয়ার এবং ৩০২ ফুট-পাউন্ড টর্ক পাওয়া যায়, যা গাড়িটিকে ৩.২ সেকেন্ডে ০-১০০ কিমি/ঘন্টার গতিবেগ তুলতে সহায়তা করে। এর সর্বোচ্চ গতিবেগ ২৬১ কিমি/ঘন্টা। ভারতের বাজারে গাড়িটির মূল্য ৬০ লক্ষ টাকা।

Audi E-tron GT

পোর্সা টেক্যান ও অডি ই-ট্রন জিটি গাড়ি দুটি দর্শনের দিক দিয়ে প্রায় কাছাকাছি। এর দুটি ইলেকট্রিক মোটর থেকে সর্বাধিক ৬৩৭ এইচপি শক্তি এবং ৬১২ ফুট পাউন্ড টর্ক উৎপন্ন হয়। মাত্র ৩.৩ সেকেন্ডে ১০০ কিমি/ঘন্টার গতিবেগ তুলতে সক্ষম এর সর্বাধিক গতিবেগ ২৫০ কিমি/ঘন্টা। বিলাসবহুল বৈদ্যুতিক গাড়িটির ভারতের বাজারে দাম ২ কোটি টাকা।

Ford Mustang Mach-E

আমেরিকার বহুজাতিক অটোমোবাইল কোম্পানির এই গাড়িটি হল সংস্থার আইকনিক পনি কার (iconic pony car)। সম্পূর্ণ বৈদ্যুতিক ফোর্ট মাসটাঙ্গ্ মাচ-ই এর শক্তিশালী ইঞ্জিনটি থেকে উৎপন্ন হয় ৩৪৬ এইচপি পাওয়ার এবং ৪৬৮ ফুট-পাউন্ড টর্ক। প্রায় ২,০০০ কেজি কার্ব ওয়েটের গাড়িটি ০-১০০ কিমি/ঘন্টার গতি মাত্র ৪.১ সেকেন্ডে তুলতে পারে। গাড়িটির সর্বোচ্চ গতিবেগ ২১০ কিমি/ঘন্টা এবং ভারতে এর দাম ৭৫ লক্ষ টাকা।

Tesla Model 3 (2022)

তালিকার পঞ্চম স্থানে রয়েছে ফের টেসলা মডেল ৩ (২০২২) মডেলটি। নতুন মডেলটি থেকে সর্বোচ্চ ৫০৩ এইচপি পাওয়ার এবং ৫৩১ ফুট পাউন্ড টর্ক পাওয়া যেতে পারে। এই সেগমেন্টের সর্বোত্তম বৈদ্যুতিক গাড়ির তকমা পেতে পারে এটি। নতুন ভার্সনটি মাত্র ২.১ সেকেন্ডে ০-১০০ কিমি/ঘন্টার গতিবেগ তুলতে সক্ষম, যা পোর্সা টেক্যান-এর চাইতেও ০.৭ সেকেন্ড কম সময়। এর সর্বোচ্চ গতিবেগ হতে পারে ২৫০ কিমি/ঘন্টা। ভারতের বাজারে লঞ্চ হওয়ার পর এর দাম ৭০ লাখ থেকে ১ কোটি টাকা কাছাকাছি রাখা হতে পারে বলে অনুমান করা হচ্ছে।

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।