বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী ৫টি ফোন সম্পর্কে জেনে নিন, আছে ১৮ হাজার mAh এর ব্যাটারি

top-5-powerful-battery-phones-in-the-world

স্মার্টফোনের ব্যাটারি সবসময় একটি চিন্তার বিষয়। আমরা প্রায় সবাই নতুন ফোন কেনার সময় ব্যাটারি ক্ষমতা জেনে নেওয়ার চেষ্টা করি। আর সেই কারণেই স্মার্টফোন কোম্পানিগুলি এখন বেশি mAh এর ব্যাটারি যুক্ত ফোন নিয়ে আসছে। এবছরের বেশিরভাগ ফোনে ৪,০০০- ৫০০০ এমএএইচ এর ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও সম্প্রতি Tecno ও Samsung লঞ্চ করেছে ৬,০০০ এমএএইচ৭,০০০ এমএএইচ ব্যাটারির ফোন। তবে আজ আমরা বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী ব্যাটারির ফোনগুলির বিষয়ে বলবো। যেখানে আপনি ১৮,০০০ এমএএইচ পর্যন্ত ব্যাটারি পাবেন।

Energizer Power Max P18K Pop

এটি আপাতত বিশ্বের সবচেয়ে বেশি শক্তিশালী ব্যাটারির ফোন। এতে ১৮,০০০ এমএএইচ এর ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে। এতে ডুয়েল পপ আপ সেলফি ক্যামেরা আছে। এছাড়াও দেখতে অনেকটাই ইটের মত। আবার বড় ব্যাটারি থাকার কারণে এর ওজন ও বেশি। ফোনটিতে ফুল স্ক্রিন ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে।

Energizer Power Max P16K Pro

নাম পড়েই আন্দাজ করতে অসুবিধা হয়না যে এতে ১৬,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে। ডুয়েল ক্যামেরার এই ফোনটিও যথেষ্ট ভারী। এর পিছনে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর ও উপলব্ধ।

Blackview BV9100

মিডিয়াটেক প্রসেসরের সাথে আসা এই ফোনে ১৩,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে। আবার চার্জিংয়ের জন্য আছে ইউএসবি টাইপ সি পোর্ট। সাথে ফাস্ট চার্জিংও সাপোর্ট করে। এই ফোনে ১৬ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা উপলব্ধ।

Doogee BL12000

এই ফোনে ৬,০০০ এমএএইচ ক্ষমতা সম্পন্ন ২টি ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও সিকিউরিটির জন্য আছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। আবার এতে এলইডি ফ্ল্যাশের সাথে ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে।

Gionee M30

এটিও যথেষ্ট ভারী একটি ফোন। কিছুদিন আগেই জিওনি এই ফোনকে চীনে লঞ্চ করেছে। এতে ১০,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে। চার্জিংয়ের জন্য আছে ইউএসবি টাইপ সি পোর্ট। এতে ২৫ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করে। ফোনটির সামনে আছে ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা ও পিছনে আছে ১৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।