অবশেষে গ্রেফতার, ১৩০টি টুইটার অ্যাকাউন্ট হ্যাক ঘটনার মাস্টারমাইন্ড ১৭ বছর বয়সী এক কিশোর

twitter-bitcoin-scam-mastermind-17-year-old-arrested-for-twitter-account-hack

কয়েকদিন আগে টুইটারে ঘটা ‘বিটকয়েন” কেলেঙ্কারী সারা বিশ্বকে চমকে দিয়েছিল। প্রাক্তন মার্কিন রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামা, ডেমোক্র্যাটিক প্রেসিডেন্টের মনোনীত প্রার্থী জো বিডেন, অ্যামাজনের CEO জেফ বেজোস, কিম কারদাশিয়ান, এবং বিল গেটসের মতো ১৩০ জন প্রভাবশালীর Twitter অ্যাকাউন্ট হ্যাক করেছিল হ্যাকাররা। যার পরে টুইটারে নিরাপত্তে নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিল অনেকে। Twitter কর্তৃপক্ষ জানিয়েছিল, শীঘ্রই তারা এই ঘটনার তদন্তে নামবে।

যারপর এই ঘটনার মাস্টারমাইন্ড ধরা পড়লো। তবে চমকে দেওয়ার মত বিষয় এই যে, এই ঘটনার মাস্টারমাইন্ড একজন কিশোর। যার বয়স মাত্র ১৭ বছর। অবাক হচ্ছেন না? যে সারা বিশ্ব তোলপাড় করে দেওয়া একটি হ্যাকিংয়ের ঘটনায় মাত্র ১৭ বছরের একটা ছেলের হাত আছে। হ্যাঁ এমনটাই জানানো হয়েছে টুইটারের পক্ষ থেকে।

টুইটার কর্তৃপক্ষ এই ঘটনার আপডেট দিতে গিয়ে জানিয়েছে, ১৭ বছর বয়সী ফ্লোরিডার গ্রাহাম ইভান ক্লার্ক নামে এক কিশোর এই পুরো হ্যাকিংয়ের ঘটনায় সামিল ছিল এবং সেই ছিল এই ঘটনার মাস্টারমাইন্ড। তার সাথে আরও দুজনও জড়িত ছিল। ফেডারাল অথোরিটিজ টুইটার অ্যাকাউন্ট হ্যাক হওয়ার ঘটনার আগেই ক্লার্ককে ট্র্যাক করেছিল। আপাতত তার বিরুদ্ধে জালিয়াতির মামলা এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

জানা গেছে অ্যাকাউন্ট হ্যাক করার কাজ ক্লার্ক অনেকদিন থেকেই করছে। গত এপ্রিলে একটি সিক্রেট এজেন্সি ৭০০,০০০ ডলার (প্রায় ৫.২ কোটি টাকা) মূল্যের বিটকয়েন সিজ করে দিয়েছিল। যা সে হ্যাকিং থেকেই কামিয়েছিল বলে জানা গেছে। প্রসঙ্গত গত ১৫ এপ্রিল, টুইটার অ্যাকাউন্ট হ্যাক করার ঘটনা সামনে আসে। যেখানে ৪৫ জন প্রভাবশালীর অ্যাকাউন্ট থেকে বিটকয়েন চেয়ে টুইট করা হয় এবং ৩৬ জনের মেসেজ অ্যাক্সেস করা হয় এবং ৭ জনের প্রোফাইলের সমস্ত তথ্য ডাউনলোড করে নেওয়া হয়।

হ্যাকার ওইসমস্ত অ্যাকাউন্ট থেকে টুইট করে যে, ইউজাররা তার অ্যাকাউন্টে যত পরিমান বিটকয়েন পাঠাবে, সে তার ডাবল ফেরত দেবে। করোনা পরিস্থিতিতে সে মানুষকে সাহায্য করার জন্য এই পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। যেহেতু অ্যাকাউন্টগুলি প্রভাবশালীদের ছিল তাই অনেকে এই টুইট বিশ্বাস করে বিটকয়েন পাঠিয়েছিল।