ভিডিও কলের মাধ্যমে চলছিল টুইটার হ্যাক মামলার শুনানি, চলতে শুরু করলো পর্ন ভিডিও

স্মার্টফোন, কম্পিউটার বা ইন্টারনেট ব্যবহারে কোনো বয়েস নিষেধ নেই। এদিকে এগুলির ব্যবহার যেমন বেড়েছে, তেমনই বেড়েছে প্রযুক্তির অপব্যবহার। গতমাসে হঠাৎ Twitter-এ সবচেয়ে বড় হ্যাকিং কেলেঙ্কারি সামনে আসে। এই ঘটনায় প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা, প্রাক্তন ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বিডেন, বিল গেটস বা এলন মাস্কের মত কিছু হাই-প্রোফাইল ব্যক্তির টুইটার অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছিল।

ইতিমধ্যেই এই হ্যাকিংয়ের মাস্টারমাইন্ড এক ১৭ বছরের কিশোরকে পাকড়াও করা হয়েছে। গত শুক্রবার, গ্রাহাম ইভান ক্লার্ক নামের ওই কিশোর সহ আরও দুজন কে গ্রেফতার করা হয়। এই ঘটনার আগে থেকেই গ্রাহাম বিভিন্ন কারণে সন্দেহের তালিকায় ছিল। আজ গ্রাহাম কে এই মামলার শুনানির জন্য আদালতে তোলা হয়েছিল।

যদিও করোনা মহামারীর কারণে Zoom অ্যাপ্লিকেশন দ্বারা ভিডিও কলের মাধ্যমেই এই শুনানি চলছিল। এমন সময় হঠাৎ কনফারেন্সে র‌্যাপ গান এবং পর্ন ভিডিও চলতে শুরু করে। এমনকী BBC এবং CNN-এর নামে কিছু ভুয়ো ইউজার কনফারেন্সে যোগ দেয়, যদিও পরে তাদের রিমুভ করে দেওয়া হয়। মনে করা হচ্ছে, গ্রাহামের পরিচিত হ্যাকাররা ইউজারদের ডেটা এবং পাসওয়ার্ড অ্যাক্সেস করে এমনটা ঘটিয়েছে।

প্রসঙ্গত, গতমাসে হ্যাকাররা কোনোভাবে হাই-প্রোফাইল ব্যক্তিদের টুইটার অ্যাকাউন্টের অ্যাক্সেস পায় এবং সেখান থেকে ভুয়ো টুইট পোস্ট করে। সেই পোস্টে অন্যান্য ইউজারদের থেকে বিটকয়েন চাওয়া হয়, বলা হয় সেই বিটকয়েনের দ্বিগুণ পরিমাণ ফেরত দেওয়া হবে। এইভাবে বেশ কিছু বিটকয়েনও হাতিয়ে নেয় হ্যাকার।