Car Rules: মদ খেয়ে গাড়ি চালালে গতি কমে যাবে, আইন এনে নতুন প্রযুক্তি ডেভেলপ করছে এই দেশ

আমেরিকার সমস্ত যাত্রী মোটরগাড়িতে অত্যাবশ্যক সরঞ্জামগুলির মধ্যে ‘Advanced drunk and impaired driving prevention technology’ রাখতেই হবে

us-all-new-cars-to-come-with-anti-drunk-driving-systems

শুভদীপ দাশগুপ্ত: মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালানোর ক্ষেত্রে কঠোর আইন আসতে চলেছে। যদিও এদেশে নয়, সম্প্রতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এই বিষয়ে একটি বিল আনা হয়েছে। এখন অপেক্ষা কেবল রাষ্ট্রপতি জো বাইডেন (Joe Biden)-এর স্বাক্ষরের। রাষ্ট্রপতি একবার সম্মতি প্রদান করলেই তা আইনে রূপান্তরিত হবে। আসলে আমেরিকায় মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালানোর ফলে দুর্ঘটনাগ্রস্থ হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা মাত্রাতিরিক্ত হারে বেড়ে চলেছে। তাই অতিরিক্ত মদ পান করে গাড়ি চালাতে গেলে যাতে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি হয় এমন প্রযুক্তিসহ গাড়ি চালু করার উদ্দেশ্যেই এই বিল আনা হয়েছে। এমনকি সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রে বৈদ্যুতিক চালিত যানবাহনকেই প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে।

এই বিলের ২৪২২০ নং ধারাতে বলা হয়েছে, প্রতি বছর দুর্ঘটনা কবলিত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যার এক-তৃতীয়াংশই হচ্ছে মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালানোর কারণে। গত ২০১৯ সালের তথ্য অনুযায়ী সে বছর গাড়ির চালক সহ মোট ১০,১৪২ জনের রক্তে অ্যালকোহলের মাত্রা ধরা পড়েছিল ০.০৮ অথবা এর অধিক। এই অবস্থায় গাড়ি চালালে দুর্ঘটনা ঘটা অস্বাভাবিক নয়।

সড়কে চলার সুরক্ষা ক্ষেত্রে মার্কিন এক বীমা সংস্থার বিশ্বাস এই অত্যাধুনিক প্রযুক্তি যা মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালানোর ক্ষেত্রে বাধা সৃষ্টি করবে, এটি চালু হলে প্রতি বছর দেশে দুর্ঘটনায় মৃত্যুর সংখ্যা ৯,৪০০-রও অধিক কমবে। সেই কারণে মার্কিন পরিকাঠামো বিলে বলা হয়েছে, দেশের সমস্ত যাত্রী মোটরগাড়িতে অত্যাবশ্যক সরঞ্জামগুলির মধ্যে ‘Advanced drunk and impaired driving prevention technology’ রাখতেই হবে।

সেই বিলে এও বলা হয়েছে, অত্যাধুনিক প্রযুক্তিটি চালক পানাশক্ত অবস্থায় রয়েছেন কিনা তা পরখ করে দেখবে। যদি তাঁর শরীরে অ্যালকোহলের মাত্রা বেশি ধরা পড়ে সেক্ষেত্রে এটি গাড়ির গতি কমাতে বা থামিয়ে দিতে বাধ্য করবে চালককে। এই ‘অ্যাডভান্সড ড্রাংক এন্ড ইম্পেয়ার্ড ড্রাইভিং প্রিভেনশন টেকনোলজি’ আগামী তিন বছরের মধ্যে চালু করার সময়সীমার উল্লেখ রয়েছে সেই বিলে। যদিও এর সময়সীমা প্রয়োজন অনুসারে পেছানো হতে পারে।

এছাড়াও উক্ত বিলটিতে দেশে বৈদ্যুতিক গাড়ির সংখ্যা বাড়াতে মোট ১.৭৫ ট্রিলিয়ন ডলার বাজেট বরাদ্দ করা হয়েছে। বিশেষ করে Detroit-এর বড় তিন চাকার গাড়ি এবং মার্কিন পোস্টাল সার্ভিসের ক্ষেত্রে জোর দেওয়া হয়েছে।

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।