সাবধান! এবার প্রেম দিবসকে হাতিয়ার করেই ফাঁদ পাতছে জালিয়াতরা

valentines-day-online-fraud-beware-from-this-fake-websites

সদরে কড়া নাড়ছে প্রেমের দিন – সামনেই উঠতি বয়সীদের আবেগের ‘ভ্যালেন্টাইনস ডে’। তাই সমস্ত চোখরাঙানিকে উপেক্ষা করে প্রেমভাবে মাতোয়ারা মানুষের মনে বিগত কয়েকদিন ধরেই বিরাজ করছে উৎসবের মেজাজ। চকোলেট, টেডি, প্রমিস ইত্যাদি আয়োজন শেষে এবার হবে একমুঠো নিভৃতযাপন! সেক্ষেত্রে একঘেয়ে-কর্মব্যস্ত জীবনে, একটুকরো আনন্দ পেতে মরিয়া আমাদের অনেকেই, কিন্তু এই সুখাবেশ সৃষ্টির আন্তরিক মুহূর্তেও যে প্রতারণাকারীরা ফাঁদ পেতে বসে আছে, সেই খবরটা কী রেখেছেন? আজ্ঞে হ্যাঁ, ভ্যালেন্টাইন দিবসের প্রাক্কালে এমন বহু অসাধু চক্র এবং প্রতারণাকারী এখন সক্রিয়, যারা মানুষের আবেগকে পুঁজি করে যারা নিজেদের পকেট ভরানোর জন্য সম্পূর্ণ তৈরী। রিপোর্ট অনুযায়ী, এখন প্রতারকরা অনলাইন শপিং কোম্পানির নাম করে, ভুয়ো ই-মেইল এবং ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে আমজনতাকে বোকা বানাচ্ছে। ফলে প্রিয়জনের জন্য পছন্দের উপহার কিনতে গিয়ে সহজেই প্রতারিত হচ্ছেন অনেক মানুষ। চলুন, ব্যাপারটি সম্পর্কে একটু বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

আসলে আসন্ন ভ্যালেন্টাইনস ডে উপলক্ষ্যে সকলেই তাদের প্রিয় মানুষটির জন্য বিশেষ উপহার কিনতে আগ্রহী। সেক্ষেত্রে আজকাল কেনাকাটার জন্য আমরা বিভিন্ন অনলাইন প্ল্যাটফর্মগুলির উপরেই বেশি ভরসা করে থাকি। এদিকে, চেকপয়েন্টের (CheckPoint) রিপোর্ট বলছে, মানুষের এই অনলাইন শপিংয়ের প্রবণতাকে কাজে লাগিয়েই প্রতারণাকারীরা নিজেদের উপার্জনের পথ প্রশস্ত করছে। এমনকি হঠাৎ করেই অনলাইনে কেনাকাটার মাধ্যম হিসেবে কয়েকটি ভুয়ো ওয়েবসাইট অতিসক্রিয় হয়ে উঠেছে। এরা নকল ই-মেইল পাঠিয়ে এবং অন্য অসংখ্য ছলে-কৌশলে ইউজারদের অ্যাকাউন্ট সাফ করছে। এই প্রসঙ্গে সবথেকে প্রথমে উল্লেখ করতে হয়, একটি আন্তর্জাতিক জুয়েলারি ব্র্যান্ডের নামে তৈরি জাল ওয়েবসাইটের কথা; জানা গিয়েছে, প্যান্ডোরা (Pandora) নামের একটি ব্র্যান্ডের জনপ্রিয়তাকে কাজে লাগিয়ে প্রতারণাকারীরা সাধারণ মানুষকে (পড়ুন প্রেমীদের) ফাঁদে ফেলছে।

এক্ষেত্রে প্যান্ডোরার জাল ওয়েবসাইটে মানুষের বিশ্বাসযোগ্যতা অর্জনের জন্য মার্কিনি ডলারেই জুয়েলারির দাম প্রদর্শিত হচ্ছে। এমনকি ওয়েবপেজের নীচে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি ঠিকানাও দেওয়া রয়েছে। কিন্তু একটু সচেতনভাবে খোঁজ করলেই জানা যাবে ছোট হাতের অক্ষরে লেখা কোম্পানীর এই ঠিকানাটি আসলে ভ্রান্ত। তাছাড়া ওয়েবপেজটি সাম্প্রতিককালে অর্থাৎ ২০২১ সালে একবারের জন্যেও আপডেট করা হয়নি। তাই এদের হাত থেকে বাঁচতে গেলে অনলাইন কেনাকাটার সময় একটু সতর্ক থাকা জরুরী।

ভুয়ো অনলাইন শপিং কোম্পানির ই-মেইল আইডি যে জাল-ই হবে সে কথা নতুন করে বলার কিছু নেই। সেক্ষেত্রে জানিয়ে রাখি, মূলত xwxrp@langqicyu[.]wang ই-মেইল আইডি-টি এদের দ্বারা ব্যবহার করা হচ্ছে। তাছাড়া ওই ওয়েবসাইটগুলি www[.]pcharms[.]com বলে যে ওয়েবপেজে রিডাইরেক্ট করছে, তার সাথে আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ডটির কোন সম্পর্কই নেই! সবথেকে বড় কথা উক্ত ই-মেইল সাবজেক্টের মধ্যে ব্যাকরণগত ভুলের দেখা মিলছে। যেমন, ‘Valentine’s Day Give The Gift They Really Want’ – সাবজেক্ট লাইনে এই যে ভুলটি দেখা যাচ্ছে তা একটি আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ডের থেকে কখনোই কাম্য নয়।

তবে এর বাইরেও, প্রতারকেরা বিভিন্ন ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং অ্যাপ্লিকেশন বা সামাজিক মাধ্যম চ্যানেলগুলিতে জাল মেসেজ ও লিঙ্ক ছড়িয়ে দিচ্ছেন। এগুলিতে ক্লিক করলেই থাকছে নিশ্চিত উপহার বা গিফ্ট ভাউচার জিতে নেওয়ার হাতছানি। কিন্তু এই ফাঁদে পড়লেই হয়রানি অবধারিত। জানা গিয়েছে, এই ভুয়ো লিঙ্কগুলিতে টাটা গ্রুপের নামও ব্যবহার করা হচ্ছে। তাই এর বিরুদ্ধে টাটা গ্রুপ এবং মুম্বই পুলিশের পক্ষ থেকেও জনগণকে সতর্ক করা হয়েছে। অতএব অনলাইন শপিং করার সময় সচেতন থাকুন…

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন