Vivo T1, Vivo T1x লঞ্চ হল 5G সাপোর্ট সহ, রয়েছে 120Hz রিফ্রেশ রেটের ডিসপ্লে

Vivo T1 ও Vivo T1x ভারত সহ অন্যান্য দেশে কবে লঞ্চ হবে এখনও জানা যায়নি

vivo-t1-vivo-t1x-launched-price-yuan-2199-specifications-5g-connectivity-sale-date

Vivo তাদের প্রথম T সিরিজের ফোন হিসেবে Vivo T1 ও Vivo T1x লঞ্চ করল। মূলত Z সিরিজ বন্ধ করেই এই নতুন সিরিজের ফোন বাজারে আনতে চাইছে চীনা স্মার্টফোন ব্র্যান্ডটি। Vivo T1 ফোনে আছে পাঞ্চ হোল ডিসপ্লে, কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৭৭৮জি প্রসেসর ও ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ। যেখানে ওয়াটার ড্রপ নচ ডিসপ্লে, মিডিয়াটেক ডাইমেনসিটি ৯০০ প্রসেসর ও ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ সহ এসেছে Vivo T1x। এছাড়া এই দুই ফোনে পাওয়া যাবে ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট। আসুন Vivo T1 ও Vivo T1x এর দাম ও সম্পূর্ণ স্পেসিফিকেশন জেনে নেওয়া যাক।

Vivo T1 ও Vivo T1x দাম ও লভ্যতা

ভিভো টি১ ফোনের দাম শুরু হয়েছে ২১৯৯ ইউয়ান ( প্রায় ২৫,৮০০ টাকা) থেকে। এই মূল্য ফোনটির ৮ জিবি র‌্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজের। আবার ফোনটি ৮ জিবি র‌্যাম + ২৫৬ জিবি স্টোরেজ এবং ১২ জিবি র‌্যাম + ২৫৬ জিবি স্টোরেজের দাম যথাক্রমে ২,৩৯৯ ইউয়ান (প্রায় ২৮,১০০ টাকা) ও ২,৫৯৯ ইউয়ান (প্রায় ৩০,৪০০ টাকা)। ভিভো টি১ ব্ল্যাক ও ব্লু কালারে এসেছে।

অন্যদিকে ভিভো টি১এক্স ফোনটিও তিনটি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টে এসেছে। এগুলি হল ৬ জিবি র‌্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ, ৮ জিবি র‌্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ এবং ৮ জিবি র‌্যাম + ২৫৬ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্ট। এদের দাম যথাক্রমে ১,৬৯৯ ইউয়ান (প্রায় ২৮,১০০ টাকা), ১,৭৯৯ ইউয়ান (প্রায় ২৮,১০০ টাকা) ও ১,৯৯৯ ইউয়ান (প্রায় ২৮,১০০ টাকা)। ভিভো টি১এক্স পার্পেল, ব্লু ও ব্ল্যাক কালারে বেছে নেওয়া যাবে।

আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে ফোনগুলির সেল শুরু হবে। ওইদিন ২০০ ইউয়ান কমে পাওয়া যাবে Vivo T1। ফোন দুটি ভারত সহ অন্যান্য দেশে কবে আসবে তা এখনও জানা যায়নি।

Vivo T1 স্পেসিফিকেশন, ফিচার

ভিভো টি১ ফোনে আছে ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেটের ৬.৬৭ ইঞ্চি ফুল এইচডি প্লাস (১০৮০ x ২,৪০০ পিক্সেল) ডিসপ্লে, যার এসপেক্ট রেশিও ২০:৯ ও টাচ স্যাম্পলিং রেট ২৪০ হার্টজ পর্যন্ত। এই ফোনে ব্যবহার করা হয়েছে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৭৭৮জি প্রসেসর। ভিভো টি১ ১২ জিবি পর্যন্ত র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ সহ পাওয়া যাবে।

ফটোগ্রাফির জন্য এই ফোনের পিছনে ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ দেখা যাবে। এই ক্যামেরাগুলি হল এফ/১.৭৯ অ্যাপারচার সহ ৬৪ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর, ৮ মেগাপিক্সেল আল্ট্রা-ওয়াইড লেন্স ও ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো সেন্সর। সেলফি ও ভিডিও কলিংয়ের জন্য Vivo T1 ফোনে ১৬ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা উপস্থিত।

সিকিউরিটির জন্য এতে সাইড মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর দেওয়া হয়েছে। পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য Vivo T1 ফোনে রয়েছে ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি, যা ৪৪ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করবে। ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ১১ বেসড অরিজিন ওএস কাস্টম স্কিনে রান করবে। কানেক্টিভিটি অপশনের মধ্যে আছে 5G, 4G LTE, ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ, জিপিএস, ইউএসবি টাইপ-সি পোর্ট ও ৩.৫মিমি অডিও জ্যাক। এই ফোনের ওজন ১৯২ গ্রাম।

Vivo T1x স্পেসিফিকেশন, ফিচার

ভিভো টি১এক্স ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ১১ বেসড অরিজিন ওএস কাস্টম স্কিনে রান করবে। এই ফোনের সামনে দেখা যাবে ৬.৫৮ ইঞ্চি ফুল এইচডি প্লাস (১০৮০ x ২৪০৮ পিক্সেল) ডিসপ্লে, যা ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট সাপোর্ট করবে। এই ফোনের ওয়াটার ড্রপ নচ কাট আউটের মধ্যে এফ/২.০ অ্যাপারচার সহ ৮ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা উপস্থিত। ভিভো টি১এক্স মিডিয়াটেক ডাইমেনসিটি ৯০০ প্রসেসর সহ এসেছে। ফোনটি ৮ জিবি পর্যন্ত র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ সহ বেছে নেওয়া যাবে।

ক্যামেরার কথা বললে Vivo T1x ফোনে ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ বর্তমান। যার প্রাইমারি সেন্সর এফ/১.৭৯ অ্যাপারচার সহ ৬৪ মেগাপিক্সেল এবং সেকেন্ডারি সেন্সর ২ মেগাপিক্সেল। ফোনটির পাওয়ার বাটনে ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার এম্বেড করা হয়েছে।

ফোনটি ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি সহ এসেছে, যা ৪৪ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করবে। কানেক্টিভিটি অপশনের মধ্যে রয়েছে 5G, 4G, ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ, জিপিএস, ইউএসবি টাইপ-সি পোর্ট। এই ফোনের ওজন ১৮৯ গ্রাম।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

Passionate techie. Professional tech writer. A true cricket fan. Julai is a senior editor For Techgup and has frequently written about smartphones, apps, telecom News. You can follow him on Twitter @Julai_Mondal.