Vivo Y10, Vivo Y10 (t1 version) শক্তিশালী ব্যাটারি ও বড় ডিসপ্লে সহ ১৩ হাজার টাকার কমে লঞ্চ হল

ভিভো ওয়াই১০ ও ভিভো ওয়াই১০ (টি১ সংস্করণ) চীনের বাজারে ৪ জিবি র‍্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজ সহ পাওয়া যাবে, যার দাম রাখা হয়েছে ১,০৯৯ ইউয়ান (আনুমানিক ১২,৮৭০ টাকা)

vivo-y10-t1-version-launched-price-cny-1099-sale-date-specifications-features-availability

ভিভো চুপিসারে দেশীয় বাজারে লঞ্চ করল তাদের দুটি ব্র্যান্ড নিউ বাজেট স্মার্টফোন, Vivo Y10 ও Vivo Y10 (t1 version)। প্রসেসর, স্টোরেজ এবং ব্লুটুথ ভার্সন ছাড়া এই ফোনদুটি একে অপরের সাথে প্রায় অভিন্ন। এমনকি একই কালার অপশন এবং দামে এগুলি বাজারে এসেছে। দুটি ফোনেই পাওয়া যাবে ৬.৫১ ইঞ্চি এইচডি প্লাস ডিসপ্লে ও ৫০০০ এমএএইচ ব্যাটারি। আসুন Vivo Y10 ও Vivo Y10 (t1 version)-এর দাম ও সমস্ত স্পেসিফিকেশন জেনে নেওয়া যাক।

ভিভো ওয়াই১০ ও ভিভো ওয়াই১০ (টি১ সংস্করণ) দাম ও লভ্যতা (Vivo Y10, Vivo Y10 (t1 Version) Price and Availability)

ভিভো ওয়াই১০ ও ভিভো ওয়াই১০ (টি১ সংস্করণ) চীনের বাজারে ৪ জিবি র‍্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজ সহ পাওয়া যাবে, যার দাম রাখা হয়েছে ১,০৯৯ ইউয়ান (আনুমানিক ১২,৮৭০ টাকা)। ফোনগুলি গ্লেসিয়ার ব্লু, মুনলিট নাইট – এই দুই কালার অপশনে বেছে নিতে পারবেন ক্রেতারা।

ভিভো ওয়াই১০ (টি১ সংস্করণ) ফোনটি ইতিমধ্যেই দেশে বিক্রির জন্য উপলব্ধ হয়েছে, তবে ভিভো ওয়াই১০ কয়েকদিন পর থেকে কেনা যাবে।

ভিভো ওয়াই১০ ও ভিভো ওয়াই১০ (টি১ সংস্করণ) স্পেসিফিকেশন ও ফিচার (Vivo Y10, Vivo Y10 (t1 Version) Specifications and Features)

আগেই বলেছি ভিভো ওয়াই১০ এবং ভিভো ওয়াই১০ (টি১ সংস্করণ) – স্মার্টফোন দুটি প্রায় একই রকম বৈশিষ্ট্যসহ বাজারে আত্মপ্রকাশ করেছে। এগুলির মধ্যে পার্থক্য রয়েছে শুধু প্রসেসর, স্টোরেজ ও ব্লুটুথ ভার্সনের ক্ষেত্রে। ভিভো ওয়াই১০ (টি১ সংস্করণ) ফোনে যেখানে দেওয়া হয়েছে মিডিয়াটেক হেলিও পি৭০ চিপসেট, ইউএফএস ২.১ স্টোরেজ ও ব্লুটুথ ৪.২, সেখানে ভিভো ওয়াই১০ ফোনে পাওয়া যাবে মিডিয়াটেক হেলিও পি৩৫ চিপসেটের সাথে ইএমএমসি ৫.১ স্টোরেজ এবং ব্লুটুথ ৫.০৷

এছাড়া Vivo Y10 এবং Vivo Y10 (t1 Version) স্মার্টফোন দুটিতে রয়েছে ৬.৫১ ইঞ্চির এইচডি+ (১,৬০০× ৭২০ পিক্সেল) ডিউ ড্রপ নচ এলসিডি ডিসপ্লে। এই ডিসপ্লের রিফ্রেশ রেট ৬০ হার্টজ, কন্ট্রাস্ট রেশিও ১,৫০০:১, স্ক্রিন টু বডি রেশিও ৮৯% ও অ্যাসপেক্ট রেশিও ২০:৯। এছাড়াও, এই ফোনগুলির ডিসপ্লেতে সাপোর্ট করে ১৬.৭ মিলিয়ন কালার।

ফটোগ্রাফির জন্য, নতুন ভিভো স্মার্টফোন দুটির ব্যাক প্যানেলে দেওয়া হয়েছে ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ। এর মধ্যে রয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেলের ওয়াইড অ্যাঙ্গেল লেন্স ও ২ মেগাপিক্সেলের ম্যাক্রো সেন্সর। এরসাথে ফোনের সামনে নচের ভিতরে সেলফি এবং ভিডিও কলের জন্য ৮ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা বর্তমান।

Vivo Y10 এবং Vivo Y10 (t1 Version)- এর কানেক্টিভিটি অপশনের সামিল রয়েছে, ডুয়েল-সিম, ৪জি, ডুয়েল-ব্যান্ড ওয়াইফাই, জিএনএসএস(জিপিএস, বেইদাও, গ্লোনাস, গ্যালিলিও, কিউজেডএসএস) এবং মাইক্রো ইউএসবি পোর্ট৷ এছাড়াও এই ফোন দুটিতে সাইড-মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর, অ্যাক্সিলোমিটার, অ্যাম্বিয়েন্ট লাইট সেন্সর, কম্পাস এবং প্রক্সিমিটি সেন্সর ছাড়াও ৩.৫ মিলিমিটার হেডফোন জ্যাক এবং মাইক্রোএসডি কার্ড স্লট উপলব্ধ।

ভিভোর এই নতুন বাজেট ফোনগুলি রান করে অ্যান্ড্রয়েড ১১ ভিত্তিক অরিজিনওএস (OriginOS) কাস্টম স্কিনে। পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য Vivo Y10 এবং Vivo Y10 (t1 Version) ফোনে দেওয়া হয়েছে ১০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট সহ ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি। সর্বোপরি, স্মার্টফোনগুলিতে সাইনি লুক এবং ম্যাট ফিনিশ যুক্ত প্লাস্টিকের বডি দেখা যাবে। এগুলির পরিমাপ ১৬৩.৯৬ x ৭৫.২০ x ৮.২৮ মিলিমিটার এবং ওজন ১৭৯ গ্রাম।

Ananya graduated with a degree in Journalism and Mass Communication And she loves to read and write, enjoys music and is very interested in technology