শীঘ্রই গ্লোবাল মার্কেটে লঞ্চ হবে Vivo Y51s, থাকবে পাওয়ারফুল ব্যাটারি

আজই ইন্দোনেশিয়ায় লঞ্চ হয়েছে Vivo Y51 (2020)। এই ফোনটিকে শীঘ্রই ভারতের বাজারেও আনা হবে। তবে এছাড়াও চীনা স্মার্টফোন কোম্পানিটি Y সিরিজের আরও একটি ফোন শীঘ্রই লঞ্চ করতে পারে। Vivo Y51s নামের এই ফোনটিকে সম্প্রতি ইন্দোনেশিয়া টেলিকম ও রাশিয়ার EEC সার্টিফিকেশন ওয়েবসাইটে দেখা গেছে। এখানে ফোনটির মডেল নম্বর V2031।

সার্টিফিকেশন সাইটে দেখা গেল Vivo Y51s কে 

আজই ভিভো ওয়াই৫১এস কে ইন্দোনেশিয়া টেলিকম ও রাশিয়ার EEC সার্টিফিকেশন ওয়েবসাইটে দেখা যায়। যদিও ফোনটির স্পেসিফিকেশন সম্পর্কে কোনো ওয়েবসাইটেই কিছু জানানো হয়নি। তবে আশা করা যায় এই ফোনেও Vivo Y51 (2020) এর মত ফিচার থাকবে। অর্থাৎ এখানেও পাঞ্চ হোল ডিসপ্লে, স্ন্যাপড্রাগন প্রসেসর ও পাওয়ারফুল ব্যাটারি দেখা যেতে পারে।

এদিকে ইতিমধ্যেই চীনের বাজারে Vivo Y51s ফোনটি উপলব্ধ। তবে গ্লোবাল মার্কেটের ভিভো ওয়াই৫১এস এর স্পেসিফিকেশন চীনের ভার্সনের থেকে আলাদা হবে। কারণ দুটি ফোনের মডেল নম্বর আলাদা। ইন্দোনেশিয়া টেলিকম ও রাশিয়ার EEC সার্টিফিকেশন সাইটে যেখানে এই ফোনটি V2031 মডেল নম্বরের সাথে অন্তর্ভুক্ত আছে, সেখানে চীনে লঞ্চ হওয়া Vivo Y51s এর মডেল নম্বর V2002A। তাই এই ফোনের গ্লোবাল ভার্সনের স্পেসিফিকেশন জানতে আমাদেরকে আরও কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে।

চীনে লঞ্চ হওয়া Vivo Y51s এর স্পেসিফিকেশন

চীনে ভিভো ওয়াই৫১এস 5G কানেক্টিভিটির সাথে লঞ্চ হয়েছিল। এই ফোনে আছে ৬.৫৩ ইঞ্চি ফুল এইচডি প্লাস ডিসপ্লে। এই ফোনে স্যামসাংয়ের এক্সিনস ৮৮০ অক্টা কোর প্রসেসর ব্যবহার করেছে। গ্রাফিক্সের জন্য Vivo Y51s ফোনে পাবেন মালি জি৭৬ জিপিইউ। সাথে আছে ৬ জিবি র‍্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজ।

ক্যামেরার কথা বললে Vivo Y51s ফোনে ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা উপলব্ধ। এর প্রাইমারি ক্যামেরা ৪৮ মেগাপিক্সেল। অন্য দুটি ক্যামেরা হল ২ মেগাপিক্সেল ডেপ্থ সেন্সর ও ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো লেন্স। ফোনটির সামনে আছে ৮ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা। ফোনটিতে পাবেন ৪,৫০০ এমএএইচ ব্যাটারি। যার সাথে ১৮ ওয়াট ডুয়েল ইঞ্জিন ফ্ল্যাশ চার্জিং সাপোর্ট করবে। এতে আছে সাইড মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর।