পেট্রল নয়! জল দিয়ে চলবে বাইক, আসছে Yamaha XT 500 H20 Edition

Maxime Lefvre জল দ্বারা চালিত Yamaha XT 500 H20 Edition এর কনসেপ্ট ছবি প্রকাশ করেছেন।

Yamaha XT 500 H20 Edition
Water-powered Yamaha XT 500 H2O Edition Concept revealed

এতদিন ধরে ফসিল ফুয়েল অর্থাৎ পেট্রোল-ডিজেলের মাধ্যমে যানবাহন চলার কথা আমরা শুনে এসেছি। পরিবেশ দূষণ কমানোর উদ্দেশ্যে এখন বৈদ্যুতিক গাড়িও কম-বেশী রাস্তায় দেখা যায়। কিন্তু এবার যদি আপনাদের বলা হয়, ভবিষ্যতের গাড়িতে ফুয়েল হিসাবে শক্তি জোগাবে ‘জল’। তাহলে নিশ্চই অবাক হবেন৷ কিন্তু সম্প্রতি ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডিজাইনার Maxime Lefvre জলের মাধ্যমে চালিত একটি টু-হুইলারের কনসেপ্ট ছবি প্রকাশ করেছেন।

এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি, ২০১৬ তে Maxime Lefvre, মোটরবাইক নির্মাতা Yamaha র সাথে বাইকটির স্কেচ প্রথম শেয়ার করেন। তারপর Yamaha এর উদ্যোগে বাইকটির ইঞ্জিন ফ্রেম ডেভলপমেন্ট থেকে শুরু করে ফেয়ারিং ডিজাইন, এছাড়া অন্যান্য আনুষাঙ্গিক কাজকর্ম শুরু হয়। বর্তমানে সেটারই ফাইনাল কনসেপ্টের ছবি Maxime Lefvre সামনে এনেছেন।

এই কনসেপ্ট বাইকটির নাম দেওয়া হয়েছে Yamaha XT 500 H20 Edition। অনেকে আবার বাইকটিকে ৭০ এর দশকের ইয়ামাহার এনডিউরো-আডভেঞ্চার বাইক XT 500-এর পুর্নজন্ম হিসাবে মনে করছেন। ১৯৭৫-১৯৮১ এর মধ্যে বিক্রীত Yamaha XT 500 বাইকটিতে ছিল পেট্রোল চালিত ৪৯৯ সিসির ফোর স্ট্রোক সিঙ্গল সিলিন্ডার ইঞ্জিন। এটি তখন সর্বোচ্চ ৩২ এইচপি এবং ৩৯ এনএম টর্ক জেনারেট করতে সক্ষম ছিল। বাইকটির সর্বোচ্চ গতিবেগ ছিল ১৬০ কিমি /ঘন্টা ৷

আপকামিং Yamaha XT 500 H20 এডিশানের বাইকটিতে থাকতে পারে ক্লোজড লুপ H20 মোটর। জানা গেছে এই বাইকটিতে থাকা একটি ওয়াটার পাম্প জলকে চক্রাকারে ঘোরাবে এবং ইঞ্জিনকে প্রোপালশান প্রদান করবে। কনসেপ্ট ছবিতে বাইকটিকে যে হোয়াইট শেডেড টায়ারে দেখা গেছে তা বাইকটির স্ট্যাইলের সাথে পুরোপুরি মানানসই। এই ওয়াটার-পাওয়ারড মোটরবাইকের মাধ্যমে পরিবেশ দূষণের সম্ভাবনা যেমন থাকবে না, তেমনি জলের অফরন্তু জোগান থাকার জন্য ফুয়েলের খরচ নিয়েও চিন্তা করতে হবে না। এছাড়া বাইকটির রক্ষনাবেক্ষনের খরচও ইলেকট্রিক চালিত বাইকের তুলনায় খুব কমই হবে ৷

বলা বাহুল্য, Yamaha যদি এই H20 এডিশানের বাইকটিকে বাজারে আনতে সক্ষম হয়, তাহলে এটি বাজারে শোরগোল ফেলার পাশাপাশি প্রযুক্তির দিক থেকে এক নতুন দিগন্তের উন্মোচন ঘটাবে। তবে এই মুহুর্তে, Yamaha বাইকটির প্রোডাকশান আরম্ভ করার ব্যাপারে চিন্তাভাবনা করছে কিনা, সে ব্যাপারে তথ্য অমিল। আর যদি প্রোডাকশান শুরুও হয় তাহলেও ২০২৫ এর আগে বাইকটির বাজারে আসার সম্ভাবনা কম।